মহেশখালী পুলিশের অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী জাগির সহ গ্রেপ্তার-৬

প্রকাশ: ১৫ মে, ২০১৫ ১:৫৩ : পূর্বাহ্ণ

এম রমজান আলী মহেশখালী =মহেশখালীর থানা পুলিশ ২৪ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে শীর্ষ সন্ত্রাসী ও ডজন খানেক মামলার আসামী জাগির সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে একাধিক মামলার আসামী গ্রেপ্তার করেছে। আসামীরা হলেন-ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের পশ্চিম সিপাহীর পাড়া এলাকার মৃত মোসাদ্দেক আলীর পুত্র নারী ও শিশু মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী হেফাজত উল্লাহ (৪৪), বড় মহেশখালী ইউনিয়নের সাতঘরিয়া পাড়া এলাকার নুরুল ইসলামের পুত্র নারী ও শিশু মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী আনছারুল করিম (৩৮), বড় মহেশখালী ইউনিয়নের পশ্চিম ফকিরাঘোনা এলাকার মত মকবুল আহমদের পুত্র ২০১২ সালের জব্বর হত্যা মামলার আসামী মোঃ ছিদ্দিক (৫২), হোয়ানক ইউনিয়নের ধলঘাট পাড়া এলাকার মৃত আমিনুর রহমানের পুত্র নারী ও শিশু মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী আব্দুল খালেক (৩৫), মাতারবাড়ি ইউনিয়নের মগডেইল এলাকার আলী আসকরের পুত্র মারামারি মামলার আসামী মোজাম্মেল হক (৪৫) ও ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের লম্বাঘোনাস্থ তিনতুলা নামক এলাকার আব্দু সোবহানের পুত্র শীর্ষ সন্ত্রাসী, ইয়াবা ও মানবপাচারাকারীর গডফাদার জাগির হোসেন ওরফে জাগিজ্জ্যা (৩৫) গ্রেপ্তারকে করেছে। গ্রেপ্তারের সংবাদে শুনে মহেশখালীর সন্ত্রাসীরা আতংকে রয়েছে বলে জানাগেছে। থানা সুত্রে জানাগেছে, ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের লম্বাঘোনাস্থ তিনতুলা গাছ নামক এলাকার বাসিন্দা কালা মিয়া বলির নাতি গোলাম সোবহানের ছেলে শীর্ষ সন্ত্রাসী জাগির হোছেন দীর্ঘ ১ যুগধরে সন্ত্রাসীদের নেতৃত্ব দিয়ে আসছে পুলিশ প্রশাসন তাকে ধরার জন্য মরিয়া হলে ও তার নেটওয়ার্ক শক্ত হওয়ায় ধৃত করা সম্ভব হয়নি। জাগিরের বিরোদ্ধে ডাকাতি ১৪১/০৯, সি আর ৫৬/১১, জি আর ১৪১/০৯, জি আর ১৫৩/০৪, জি আর ২০৭/০৯ সহ মারামারি, সড়ক ডাকাতি, চিংড়ীঘের দখল, প্যারাবন কেটেঁ ঘের নির্মান, ইয়াবা পাচার, মানবপাচার ও মদ উৎপাদনের বিশাল বেন্ডার তৈরী সহ নানান অপকর্মের শীর্ষ গডফাদার তার অত্যাচারে মহেশখালী বাসিঁ অতিষ্ট তার গ্রেপ্তারের খবরে এলাকায় মিষ্টি বিতরন করেন। শীর্ষ সন্ত্রাসী জাগিরের আশ্রয়দাতা ও সহযোগীরা হলেন-তার নিকটতম আতœীয় মুখোশধারী জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন ও জন চিহ্নিত ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের বাসিন্দা, শাপলাপুর ইউনিয়নের এক মুখোশধারী মেম্বার সহ আরো অনেকে। এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, সন্ত্রাসী যত বড়ই হউক কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা। সন্ত্রাসী ও মানবপাচারকারীর বিরোদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে যতদিন পর্যন্ত তাদের নির্মুল করা হবেনা ততদিন এই অভিযান চলতে থাকবে।


সর্বশেষ সংবাদ