প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

প্রকাশ: ১৪ মে, ২০১৫ ৯:৩১ : অপরাহ্ণ

অনলাই নিউজ টেকনাফ একাত্তর ডট কমে সেন্টমার্টিনদ্বীপে মালয়েশিয়া মানবপাচারকারী ১৫ সিন্ডিকেট শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন ফয়েজুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার টেকনাফ একাত্তর নিউজ ডট কমে ১৫ সিন্ডিকেটের নামে সেন্টমার্টিন মাঝেরপাড়ার  মৃত জাফর আহমদের ছেলে আবুল কালাম (কালাইয়া) (৩৫), পূর্বপাড়ার খলিলুর রহমানের ছেলে আবু তালেব মাঝি, লাল মিয়ার ছেলে আবদুর রহমান, করিম উল্লাহর ছেলে  ইসমাইল মাঝি, জাফর আহমদের ছেলে নজির মাঝি (প্রকাশ দালাল) (৪০), পশ্চিমপাড়ার ছৈয়দ কাশিমের ছেলে ফয়েজুল ইসলাম (৩৫), গলাচিপার  সিরাজুল ইসলামের ছেলে ছৈয়দ মাঝি, মৃত আমির আহমদের ছেলে রশিদ আহমদ, ডেইল পাড়ার আবদুল করিমের ছেলে হাফেজ আহমদ, কোনাপাড়ার মো: হোছনের ছেলে হাফেজ আহমদ ও আজিম উল্লাহ। দ্বীপের ৬নং ওয়ার্ডের বশির মেম্বারের মেয়ের জামাই বামাইয়া ফয়েজ কামাল (২৭)তার ভাই কবির আহমদ ও বার্মার ডংখালীর আলী আহমদের ছেলে মো: রফিক, পশ্চিম পাড়ার আবদুল আলীর ছেলে কবির আহমদ (৪৮), ৫নং ওয়ার্ডের শামসু মেম্বার ও ৯নং ওয়ার্ডের আবদুর রব মেম্বারকে মানব পাচার হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে যা সম্পুর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তীহীন।
এই সংবাদের প্রতিবাদ জানাচ্ছি। প্রকৃত ঘটনা হল সের্ন্টমাটিন দ্বীপবাসি বিভিন্ন সময়ে সার্ভিস ও ফিশিং বোট দিয়ে নৌ-বাহিনী, কোস্ট গার্ড, পুলিশ ও র‌্যাবকে ইয়াবা ও মানব পাচার প্রতিরোধের সহযোগিতা করে আসছি। যেমন ১১৬ জন মালয়েশিয়া অভিবাসিসহ ট্রলার শাহপরীরদ্বীপে গোলারচরে আটকে গেলে সেন্টমার্টিন থেকে দুইটি সার্ভিস বোট দিয়ে তাদের উদ্ধার করে টেকনাফে নিয়ে আসেন  করিম উল্লাহর ছেলে  ইসমাইল মাঝি। তাকেও ওই প্রকাশিত সংবাদে মানব পাচারের দালাল উল্লেখ করা হয়েছে। মানব পাচারকারির দালালেরা সংবাদ কর্মিদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে প্রশাসনের  চিরনি অভিযান থেকে রক্ষা পেতে আমাদের নাম ওই সংবাদে উল্লেখ করে বিভ্রান্তী সৃষ্টি করছে। সের্ন্টমাটিনের এই ছোট দ্বীপে পুলিশ, কোস্ট গার্ড ও নৌ-বাহিনীর ক্যাম্প রয়েছে। এখান থেকে মানব পাচারের কোন সুযোগ নেই এবং পাচারও হয়না। ওই সংবাদটি মিথ্যা, বানোয়াট ,ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য মুলক তাই উক্তা সংবাদে প্রশাসনসহ কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহবাদ জানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারি
সকলের পক্ষে
ফয়েজুল ইসলাম, সের্ন্টমাটিন


সর্বশেষ সংবাদ