আমাদের পথ খুব সহজ নয়,কঠিন চ্যালেঞ্জ নিয়ে এগুচ্ছি : পুলিশ সুপার

প্রকাশ: ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ১১:১৬ : অপরাহ্ণ

নুরুল হোসাইন,টেকনাফ:
বাংলাদেশ পুলিশের সর্বোচ্চ মর্যাদাপূর্ণ পদবী ‘বিপিএম’ পদকপ্রাপ্তিতে জেলা কমিউনিটি পুলিশের সংবর্ধনায় এসপি এবিএম মাসুদ হোসেন বক্তব্যে বলেন, শুধু আইন দিয়ে পুরোপুরি মাদক নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়, প্রয়োজন সামাজিক আন্দোলন। মাদক একটি সামাজিক ব্যাধি। সামাজিকভাবেই মাদক প্রতিরোধ করতে হবে। আমাদের দায়িত্ব পালনে সবার সহযোগিতা চাই।

মাদকের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে এসপি মাসুদ হোসেন বলেন, কে কোন দলের, কোন বর্ণের? তা দেখব না। মাদক ব্যবসায়ীদের উচ্ছেদ করাই আমাদের ১ নং টার্গেট। কক্সবাজারকে মাদকের কলঙ্কমুক্ত করব। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা বাস্তবায়নে আমরা সর্বোচ্চ সচেষ্ট থাকব।
তিনি বলেন, আমাদের পথ খুব সহজ নয়। কঠিন চ্যালেঞ্জ নিয়ে এগুচ্ছি। কক্সবাজারকে মাদকমুক্ত করতে আমাদের চেষ্টার কোনো ত্রুটি নেই। তবে, এখনো কাঙ্খিত সফলতা আসেনি।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। চেষ্টাতে কোন ত্রুটি নেই।
সংবর্ধনা প্রাপ্তির বিষয়ে জেলা পুলিশের সর্বোচ্চ এই কর্তা বলেন, অনুষ্ঠানে আমার উপস্থিতিতে অনেক প্রশংসা করা হয়েছে, যা শুনতে আমি ব্যক্তিগতভাবে স্বাচ্ছন্দবোধ করি না।
তিনি বলেন, পুরস্কার প্রাপ্তির মাধ্যমে আমাদের দায়িত্ব অনেক বেড়ে গেছে। এই স্বীকৃতি ও সুনাম আমার একার নয়, পুরো জেলাবাসীর। কাজের সফলতার জন্য সবার সহযোগিতা দরকার। মাদকের বিরুদ্ধে সর্বস্তরে আরো বেশী সচেতনতা বাড়াতে হবে।
এসপি এবিএম মাসুদ হোসেন বলেন, অনেক চেষ্টার পরও মাদক পুরোপুরি নির্মূল সম্ভব হচ্ছে না। ইয়াবাসক্তদের চিকিৎসার কোন ব্যবস্থা নেই। তাদের চিকিৎসার মাধ্যমেই চাহিদা কমাতে হবে।
রবিবার (১৯ জানুয়ারী) বিকালে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্র মিলনায়তনে এই নাগরিক সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ পুলিশের সর্বোচ্চ মর্যাদাপূর্ণ পদবী ‘বিপিএম’ পদকপ্রাপ্ত কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন ও আইজিপি ব্যাজ প্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের এই ‘নাগরিক সংবর্ধনা’ প্রদান করেছে কক্সবাজার জেলা কমিউনিটি পুলিশ।
বিকাল ৪ টার দিকে সমস্বরে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়।
এরপর স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ।
স্বাগত বক্তব্যে তিনি সবাইকে সোনার মানুষ হওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়ে বলেন, ভালো কাজ করলে স্বীকৃতি পাওয়া যায়। যে যার অবস্থান থেকে স্বীকৃতি পাওয়ার মতো কাজ করা সম্ভব। সেটা নির্ভর করে নিজের মানসিকতার উপর।
এর আগে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মুফতি মাওলানা মুহাম্মদ তৈয়ব।
এসপি এবিএম মাসুদ হোসেন ছাড়াও আইজিপি পুরস্কারপ্রাপ্ত কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ ইকবাল হোসাইন, মহেশখালী থানার ওসি প্রবাস চন্দ্র ধর, টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ উপ-পরিদর্শক (এসআই) সনজিব দত্তকেও আনুষ্ঠানিক সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে।
এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন -কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া) আসনের এমপি আশেক উল্লাহ রফিক।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন -কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের এমপি জাফর আলম, জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, প্রফেসর সোমেশ্বর চক্রবর্ত্তী, এডভোকেট মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ শাহজাহান, আওয়ামীলীগ নেতা এডভোকেট রনজিত দাস, শ্রিম্প হ্যাচারী এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (সেভ) এর সভাপতি মুহাম্মদ নজিবুল ইসলাম।
বক্তব্য রাখেন -জেলা কমিউনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, সদরের ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান টিপু সুলতান।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের যৌথ সঞ্চালনায় ছিলেন -জেলা কমিউনিটি পুলিশের কোষাধ্যক্ষ অ্যাডভোকেট প্রতিভা দাস ও সাংবাদিক দিপক শর্মা দীপু।
সফল পুলিশ কর্মকর্তাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এডভোকেট ফরিদুল আলম (পিপি), আওয়ামী লীগ নেতা এডভোকেট আবু হেনা মোস্তফা কামাল, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ জয়, কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি শাহজাহান কবির, উখিয়া থানার ওসি মুঃ আবুল মনসুরসহ জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন স্তরের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন


সর্বশেষ সংবাদ