টেকনাফ সদরে মাদকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও পথ সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১১:১৭ : অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ***
টেকনাফ উপজেলার সদর ইউনিয়নে কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম,আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ,মাদক নির্মূল কমিটি ও সহযোগী অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে শনিবার বিকেলে সদর ইউনিয়ন বটতলী বাজার এলাকায় কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমানের সঞ্চালনায় ডাঃআব্দুল গণির সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,টেকনাফ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আলম।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,টেকনাফ উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হুদা,সদর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আবু ছৈয়দ,সদস্য সচিব সরওয়ার আলম।

বক্তব্য রাখেন,টেকনাফ উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম,পৌর কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক নুরুল হোসাইন। এসময় উপস্থিত ছিলেন,বিভিন্ন সংগঠনের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সদর ইউনিয়নের কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সদস্যরা প্রমুখ।

পৌর কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক নুরুল হোসাইন বলেন,মাদক ও সন্ত্রাস নির্মূল করতে হলে টেকনাফের ওসি প্রদীপ কুমার দাসের কোন বিকল্প নেই।

উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম বক্তব্যে বলেন, আপনারা যারা উপস্থিত হয়েছেন চোখ বন্ধ করে আল্লাহকে হাজির নাজির করে একটু চিন্তা করেন। ওসি প্রদীপ আসার পর থেকে মাদক কি কমেছে, নাকি বেড়েছে। আমার জানামতে অবশ্যই কমেছে। ওসির প্রদীপের বিরুদ্ধে গভীর ভাবে বিভিন্ন ধরণের ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। উক্ত ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াঁতে হবে।

উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি নুরুল হুদা বলেন, এখনও যারা খুচরা ইয়াবা ব্যবসায়ী,সেবনকারী সময় আছে সময় থাকতে ভাল হয়ে যাও।যদি ভাল পথে ফিরে না আসলে তাহলে তোমাদের পরিণতি হবে ভয়াবহ।আমরা চাই মাদকমুক্ত টেকনাফ।বন্দুকযুদ্ধে যে শতাধিক লোক নিহত হয়েছেন।তার মধ্যে কেউ কি নিরীহ লোক ছিলো কেউ প্রমাণ দিতে পারবেন। মাদক,সন্ত্রাস নির্মূলে টেকনাফবাসীর জন্য যে কাজ গুলো করেছেন প্রশংসার দাবিদার ওসি প্রদীপ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আলম বলেন,মানুষ এখন মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার। যার ফলে এখানে কোন মাদক ব্যবসায়ীর ঠাঁই হবে না।ওসি প্রদীপ থানায় আসার পর থেকে মাদকের বিরুদ্ধে যে ভূমিকা রেখেছেন তা প্রশংসার দাবিদার।।ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরণের ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে।একটি মাপিয়া চক্র চাইতেছে ওসিকে থানা থেকে সরাতে পারলে,এরা আবার এসে মাদক ব্যবসা শুরু করতে পারবেন।অর্ধৈক সময়ে মাদক সহিংসা পযার্য়ে কমে এসেছে।ওসি প্রদীপ চলেগেলে আবারও পূনরায় আগের মতোই বেড়ে যাবে।মাদক নির্মূলে ওসি,কমিউনিটি পুলিশিং একার পক্ষে সম্ভব হবে না।সবাই যদি ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করি তাহলে মাদক বন্ধ হয়ে যাবে। আমি আপনাদের সব সময় মাদক নির্মূলে সহযোগিতা করে যাবো।মাদক ব্যবসায়ীরা খুবই ভয়ংকর এরা যদি আবার আসতে পারে তাহলে আপনার আমার নিরাপত্তা থাকবে না।যারা খুচরা ইয়াবা ব্যবসায়ী ও সেবনকারী রয়েছেন আপনারা ভাল পথে ফিরে না আসলে পরিনতি ভয়ংকর হবে।


সর্বশেষ সংবাদ