সেন্টমার্টিনদ্বীপ হাইস্কুলকে কলেজ শাখার পাঠদান অনুমোদন

প্রকাশ: ২২ এপ্রিল, ২০১৯ ১০:৩২ : অপরাহ্ণ

 

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ … দীর্ঘ বছর পর দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনের একমাত্র উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সেন্টমার্টিন বিএন ইসলামিক উচ্চ বিদ্যালয়কে কলেজ শাখার পাঠদান অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এদিকে অনুমোদন লাভ করায় অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে।
জানা যায়, ২০ এপ্রিল শনিবার সকাল ১০টায় উক্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কার্যালয়ে প্রধান শিক্ষক উজ্জল ভৌমিকের সভাপতিত্বে অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেন্টমার্টিন বিএন ইসলামিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ। বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য আলহাজ্ব মোঃ হাবিবুর রহমান প্রকাশ হাবিব খান, হাজী আবদুচ্ছালাম মেম্বার, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মোঃ ছৈয়দ আলম, কলেজের প্রভাষক আক্তার কামাল, সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহজালাল সরকার, সহকারি শিক্ষক কাজ্বি মোঃ দিদারুল আলম, সহকারী শিক্ষক মুকুল দাশ, সহকারী শিক্ষক নিশি কান্ত, মৌঃ মোঃ জাফর, সাংবাদিক মৌঃ জয়নুল আবেদীন ও মৌলানা জুবাইর হোসাইন, সাবেক ছাত্র মোঃ আয়াতুল্লাহ খোমেনী, মোঃ রফিক সায়েম, মোঃ মাহাবুব, মাওলানা এমএ রহিম জিহাদী, মোঃ ইসমাইল প্রমুখ। দাতা সদস্য সাবেক ইউপি মেম্বার মোঃ নুরুল হক, মোঃ নাজির আহমদ, আমির হামজাহ, মোঃ ইব্রাহীম প্রমুখ এসময় উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, সেন্টমার্টিনের একমাত্র উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সেন্টমার্টি বিএন ইসলামিক উচ্চ বিদ্যালয়টি ১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়ে ধীরে ধীরে উন্নতি হয়েছে। বিদ্যালয়ে বর্তমানে ৩ শত ৫০ জন শিক্ষার্থীরা রয়েছে। উক্ত বিদ্যালয়কে কলেজে অনুমোদন দিয়ে পাঠদান অনুমতি পত্র চলতি এপ্রিল মাসে বাংলাদেশ শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ, বেসরকারি মাধ্যমিক-২ বাংলাদেশ সচিবালয় হইতে চেয়ারম্যান চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড নিকট প্রদান করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সেন্টমার্টিন বিএন ইসলামিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ বলেন, ‘অনেক ত্যাগ স্বীকার করে জুনিয়র স্কুল থেকে হাই স্কুল এবং কলেজে শাখার পাঠদানের অনুমতি পেয়েছি। আজ হতে বিদ্যালয়টি কলেজে অনুমোদন হয়ে সেন্টমার্টিন বিএন ইসলামিক স্কুল এন্ড কলেজ নামে ভুষিত হল। নতুন নাম পেয়ে স্কুলের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা খুবই আনন্দিত। এজন্য আমরা শিক্ষামন্ত্রণালয়সহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। কলেজের উন্নতির জন্য অভিভাবকসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করছি’। ##


সর্বশেষ সংবাদ