টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

হেফাজত ও বিরোধী জোটের অর্থ লেনদেনের অভিযোগ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩ মে, ২০১৩
  • ১৯৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

আরটিএনএন
ঢাকা: হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে বিরোধী জোটের বিএনপি ও জামায়াতের নেতৃবৃন্দের গোপন বৈঠক এবং ৮৫ কোটি টাকা অর্থ লেনদেনের অভিযোগ এনেছে বাংলাদেশ ইমাম-ওলামা সমন্বয় ঐক্য পরিষদ।
‘তাদের মধ্যকার ওই গোপন বৈঠকে বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুলসহ ১৮ দলীয় জোটের নেতৃবৃন্দ ছিলেন এবং সেখানেই অর্থ লেনদেন হয়েছে’, এমন তথ্য-প্রমাণাদি পরিষদের কাছে রয়েছে বলেও দাবি করেন নেতৃবৃন্দ।

 

শুক্রবার সকালে ঢাকার তোপখানা রোডে একটি রেঁস্তোরায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন পরিষদের নেতৃবৃন্দ।
সংবাদ সম্মেলনে ওই গোপন বৈঠকের ধারণকৃত ভিডিও ফুটেজ পেনড্রাইভে করে ইলেক্ট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকদের মাঝে বিতরণ করে পরিষদ।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তৃতায় পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা মো: ইসমাইল হোসাইন বলেন, মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারকে বাধাগ্রস্ত করতে জোর তৎপরতা চালাচ্ছে বিএনপি-জামায়াত।

 

তিনি বলেন, ‘বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ৫ মে হেফাজতে ইসলামের ঢাকা অবরোধ। ঠিক তার আগের দিন থেকে অর্থাৎ শনিবার থেকে দেশের নানা স্থানে বোমা বিষ্ফোরণের মাধ্যমে সহিংসতা ছড়িয়ে দেয়ার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘গোপন বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পুরান ঢাকা থেকে বোমা বানানোর সরঞ্জামাদি ক্রয় করে হেফাজতে ইসলাম দেশের বিভিন্ন জেলার কওমী ও আলীয়া মাদ্রাসাগুলোতে পাঠিয়ে দিয়েছে।’
‘দেশব্যাপী নাশকতা সৃষ্টির জন্য কওমী ও আলিয়া মাদ্রাসাগুলোতে এখন ওই সরঞ্জামাদি দিয়ে বোমা তৈরি করা হচ্ছে’ বলেও দাবি করেন তিনি।

 

তিনি বলেন, তাই দেশকে সহিংসতার হাত থেকে রক্ষা করতে হলে সরকারকে আজই ঘোষণা দিয়ে আগামীকাল শনিবার থেকে ১০ মে পর্যন্ত সকল কওমী ও আলীয়া মাদ্রাসা ছুটি ঘোষণা করতে হবে। পাশাপাশি শনিবারের মধ্যে সব ছাত্রদের মাদ্রাসা ত্যাগ করারও নির্দেশ দিতে হবে।
১৩ দফা দাবি না মানলে ৫ মে থেকে হেফাজতের নেতাকর্মীদের দেশ পরিচালনার ঘোষণার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এ বক্তব্য অগণতান্ত্রিক ও দেশদ্রোহিতার শামিল। ধৃষ্টতাপূর্ণ বক্তব্য দেয়ার পরও সরকার কেন তাদের গ্রেফতার করছে না, কোথায় সরকারের দুর্বলতা তা দেশবাসী জানতে চায়।’

 

হেফাজতের ১৩ দফা দাবিকে তিনি মানবতাবিরোধীদের রক্ষায় দেশব্যাপী নাশকতা সৃষ্টির ফর্মূলা ছাড়া আর কিছুই নয় বলে উল্লেখ করেন।
সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন পরিষদের মহাসচিব মাওলানা শাহ মো: ওমর ফারুক, মাওলানা নূর মো: আহাদ আলী নীলফামারী, মাওলানা আরিফ উদ্দিন সরওয়ার্দ্দী, অধ্যক্ষ মাওলানা ডা. আল ইমরান প্রমুখ।

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT