টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

২৫ বছর পরে টেকনাফ হাসপাতালে পানি সংকটের অবসান

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩
  • ১১৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফঃ         teknaf pic-02.02দীর্ঘ ২৫ বছর পরে অবশেষে টেকনাফ ৫০ শয্যা হাসপাতালে পানি সংকটের অবসান হয়েছে । হাসপাতালে আগত রুগী, হাসপাতালের বিশাল কম্পাউন্ডে বসবাসরত ডাক্তার, কর্মকর্তা-কর্মচারী সুদীর্ঘ ২৫ বছর পরে বর্তমানে এই পানি সুবিধা ভোগ করছেন । সেই সাথে মানসম্মত এবাদতখানা ও সুদৃশ্য বাগান সর্ব মহলের দৃষ্টি আকৃষ্ট করছে । আন্তরিকতা, দেশপ্রেম ও দায়িত্ববোধ থাকলে নারী অফিসার হলেও যে সফল হওয়া যায়, তারই জ্বলন্ত প্রমাণ টেকনাফ ৫০ শয্যা হাসপাতালের উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা ডাঃ সামসুজ্জাহান রকিবুন্নেছা চৌধুরী । ২০১১ সনের ৩ মার্চ ১৫ তম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা হিসাবে তিনি টেকনাফ হাসপাতালে যোগদান করার পর সততা,পরিশ্রমও দায়িত্ববোধের কারণে সর্বত্র পরিবর্তন আনতে সÿম হয়েছেন । শুধু তাই নয়, হাসপাতাল কম্পাউন্ডে ২ যুগেরও অধিক কালের পানির সংকট ঘুছিয়ে গভীর নলক‚প স্থাপন করে, পৃথক এবাদতখানা নির্মাণ এবং হাসপাতাল প্রাঙ্গণে শক্ত ঘেরা দিয়ে বাগান (ফলজ,বনজ,ঔষধী) সৃষ্টি করে নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে সÿম হয়েছেন । যা টেকনাফের হেলথ সেক্টরের ইতিহাসে ‘মাইলফলক’ এবং  স্মরণীয় হয়ে থাকবে । টেকনাফে সর্বপ্রথম হাসপাতাল চালু হয়েছিল থানার পাশে ১৯৩৩ সনে। এরপর উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন বর্তমান স্থানে বিশাল আয়তনের উপর মান উন্নীত ৩১ শয্যা হাসপাতাল হিসাবে চালু হয় ১২ মার্চ ১৯৮৭ ইংরেজী । দীর্ঘ ২ যুগ পরে ৫০ শয্যা হাসপাতাল চালু হয় ২০১০ সনের ২৫ এপ্রিল। জানা যায়, বহুবার বিভিন্নভাবে চেষ্টা-তদবির এবং অর্থ ব্যয় করেও এই দীর্ঘ সময়ে হাসপাতাল কম্পাউন্ডে পানির উৎস পাওয়া যায়নি । নিকটস্থ হেচ্ছার খালের পানি পাম্প দিয়ে এনে হাসপাতাল এবং আবাসিক কোয়ার্টার সমুহে সরবরাহ দেয়া হত । এতে প্রায় সময় পানির সমস্যা লেগেই থাকত । দীর্ঘ ২যুগেরও অধিক সময়কাল পরে তাঁর উদ্যোগে সম্প্রতি হাসপাতাল কম্পাউন্ডে গভীর নলক‚প স্থাপন করে দীর্ঘ বছরের পানির সমস্যা দূর হয়েছে । রোহিঙ্গাসহ ২লÿাধিক জনগোষ্টির একমাত্র এই হাসপাতালে রাত-দিন বিভিন্ন ধরণের রুগী ও আতœীয়-স্বজনের আনাগোনায় জনসমাগম থাকে । কিন্ত নামাজ পড়ার জন্য কোন এবাদতখানা ছিলনা । অতি গুরুত্বপূর্ণ ধর্মীয় এবিষয়টি তিনি অনুধাবন করে মহৎ উদ্যোগ নিয়ে  হাসপাতাল গেইটের দÿিণ পাশে পৃথক এবাদতখানা, অজুখানা ও লেট্রিন নির্মাণ করেছেন । এতে হাসপাতালে আগত রুগী এবং রুগীদের সাথে আগত আতœীয়- স্বজনদের সহ আশপাশের মুসলøীদের নামাজ পড়ার আর কোন সমস্যা নেই । ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়াতে একজন ইমামও রাখা হয়েছে । হাসপাতাল কম্পাউন্ডের বিশাল খালী জায়গা গো-চারন ভ‚মিতে পরিণত হয়েছিল । তিনি প্রথম দফায় দু’টি স্থানে শক্ত ঘেরার ব্যবস্থা করেছেন, আর তাঁর সুযোগ্য স্বামী অবসরপ্রাপ্ত সরকারী অফিসার মোতাহার  হোসেন বিলøাহ চৌধুরী বিভিন্ন হাইব্রিড জাতের ফলজ,বনজ ও ঔষধী গাছের চারা এনে রোপন করেছেন । বিষয়গুলো নিয়ে আলাপকালে  টেকনাফ ৫০ শয্যা হাসপাতালের উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা ডাঃ সামসুজ্জাহান রকিবুন্নেছা চৌধুরী বলেন-আসলে এই কৃতিত্ব আমার একার নয়, টেকনাফবাসী তথা হাসপাতালে কর্মরত ডাক্তার কর্মচারীসহ সংশিøষ্ট সকলের । সর্বমহল আমাকে উৎসাহ এবং সাহস না যোগালে হয়ত এসব কঠিন কাজ করা আমার পÿে সম্ভব হতনা । আমি মহান আলøাহর উপর ভরসা করে কাজ শুরু করেছি, আর সর্বমহল আমাকে সহযোগিতা দিয়েছেন । বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অর্থায়ণে গভীর নলক‚প, এলএলপির অর্থায়ণে বাগান এবং ব্যক্তি উদ্যোগের অর্থায়ণে এবাদতখানার কাজ করা হয়েছে । তবে এবাদতখানার বারান্দার কাজ এখনও বাকি রয়েছে । এসব মহৎ কাজে তাঁর উদ্যোগকে টেকনাফের সচেতন মহল আন্তরিক সাধুবাদ জানিয়েছেন । তিনি আরও বলেন, প্রত্যেকটা কাজের জন্য পৃথক কমিটি গঠন করে দেয়া হয়েছিল । গঠিত কমিটি আন্তরিকভাবে তাঁদের দায়িত্ব পালন করেছেন বিধায় সুন্দরভাবে কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব হয়েছে । প্রসঙ্গতঃ উলেøখযোগ্য, টেকনাফ উপজেলা ৫০ শয্যা হাসপাতালে বর্তমানে ২৯ জন ডাক্তারের মধ্যে মাত্র ৯ জন ডাক্তার, ৩য় শ্রেণীর কর্মচারীর ১০২ টি মঞ্জুরীপদে কর্মরত আছেন মাত্র ৫৭ জন, শুন্যপদের সংখ্যা ৪৫ টি, ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারীর মঞ্জুরী পদ ২৪ টি, কর্মরত আছেন মাত্র ৮ জন, ১৬ টিই শুন্য, তাছাড়া ১৬ জন নার্সের মধ্যে কর্মরত আছেন মাত্র ৫ জন । মোট ৮১ টি মন্জুরীকৃত পদ শুন্য থাকা সত্বেও একজন মহিলা অফিসার হয়েও দÿ পরিচালনায় তিনি সুনাম অর্জন করতে সÿম হয়েছেন । ##

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT