টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

হ্নীলা স্কুলের বিবাদমান দু’পক্ষের সমঝোতা বৈঠক ব্যর্থ …১৩ শিক্ষকের বেতন বিল অনিশ্চয়তা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২১ জুন, ২০১৩
  • ১১৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সাদ্দাম হোসাইন, হ্নীলা ***
টেকনাফের হ্নীলা হাই স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক কর্তৃক উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিদের্শ অমান্য করে ১৩ শিক্ষক-কর্মচারীর বেতন-বিলে জাল-জালিয়াতির ঘটনা তদন্তে গঠিত ৩ সদস্যের উপ-কমিটির মধ্যস্থতায় অনুষ্ঠিত ওই স্কুলের বিবাদমান দু’পক্ষের দু’দফা সমঝোতা বৈঠক ব্যর্থ হয়েছে। এতে ১৩ শিক্ষক-কর্মচারীর বেতন-বিল উত্তোলণে আবারো অনিশ্চিয়তা দেখা দিয়েছে।
জানা যায়, শুক্রবার (২১ জুন) বিকাল ৩টায় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে তদন্ত উপ-কমিটি ওই স্কুলের বিবাদমান দু’পক্ষের সাথে সর্বশেষ সমঝোতা বৈঠকে বসে। বৈঠকে দীর্ঘ আলোচনার পর উভয় পক্ষ স্ব-স্ব মামলা-মোকদ্দমা ও অভিযোগ প্রত্যাহার করে সহকারী প্রধান শিক্ষক আবদুস সালামকে ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক হিসেবে মেনে নেয়ার প্রস্তাব আসলে বৈঠক ভন্ডুল হয়ে যায়। বৈঠকে প্রধান শিক্ষক পক্ষের সাধারণ শিক্ষকরা বৃহস্পতিবারে অনুষ্ঠিত প্রথম দফা সমঝোতা বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইউএনও শাহ মোজাহিদ উদ্দিনের নির্দেশনা অনুযায়ী সভাপতি, প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকের যৌথ স্বাক্ষরে বেতন উত্তোলনের দাবী জানায়। কিন্তু তদন্ত উপ-কমিটি বিরোধ নিষ্পত্তির লক্ষ্যে সভাপতি ও সহকারী প্রধান শিক্ষকের যৌথ স্বাক্ষরে বেতন উত্তোলণের প্রস্তাব জানালে আলোচনা ব্যর্থ হয়। বৈঠকে তদন্ত উপ-কমিটির সদস্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ শাইফুল ইসলাম, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা একেএম হুমায়ূন কবির, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আলমগীর কবির, হোয়াইক্যং আলী-আছিয়া স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামাল চৌধুরী মুসা, হ্নীলা হাই স্কুল সভাপতি সিরাজুল ইসলাম সিকদার, প্রধান শিক্ষক মোক্তার আহমদ, সহকারী প্রধান শিক্ষক আবদুস সালাম, শিক্ষক কাউন্সিল সচিব মোস্তফা কামালসহ সাধারণ শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত: সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির গত সভায় হ্নীলা হাই স্কুলের বিদ্যমান সমস্যা নিরসনে উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস-চেয়ারম্যান, নির্বাহী কর্মকর্তা ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার সমন্বয়ে গঠিত কমিটির পক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওই স্কুলের ১৩ শিক্ষক কর্মচারীর ৮ মাসের বকেয়া বেতন সভাপতি, প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকের যৌথ স্বাক্ষরে উত্তোলণের নির্দেশ দিলে সহকারী প্রধান শিক্ষক তা অমান্য করে জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে ব্যাংকে বিল পাঠায়।
##################

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT