টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

হ্নীলার বিএনপি নেতা জুহুর আলম কারাভোগের পর জামিনে মুক্তঃ বিশাল সম্বর্ধনা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই, ২০১৩
  • ৯১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

Teknaf pic-11-07-2013ছৈয়দুল আমিন চৌধুরী,টেকনাফ ::::হ্নীলা ইউনিয়ন দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক বিএনপি নেতা জুহুর আলম আওয়ামী সরকারের ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলায় দীর্ঘদিন কারাভোগের পর জামিনে মুক্ত হয়েছে। গতকাল ১১ জুন বিকেলে জামিনে মুক্ত বিএনপি নেতাকে নিজ এলাকায় ব্যাপক সম্বর্ধনা দেওয়া হয়েছে। জানাযায়, ইউনিয়ন দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক জুহুর আলম আওয়ামী সরকারের প্রতিহিংসায় একের পর এক মিথ্যা মামলা শিকারে পরিণত হন। বিগত ৫ মার্চ ১৮ দলীয় জোটের হরতাল চলাকালে রঙ্গিখালীতে ব্যবসায়ীক কাজে ব্যস্ত থাকা অবস্থায় কতিপয় আওয়ামী নেতার নেতৃত্বে সকাল ১০টার দিকে জুহুর আলমকে নিজ এলাকা থেকে থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পর টেকনাফ থানার মোচনী এলাকার একটি ডাকাতি মামলায় সন্দেহ জনক আসামী দেখিয়ে পুলিশ তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে। পরে ৬ মার্চ টেকনাফের আলোচিত রাজনৈতিক হয়রানী মূলক ১৯৭৪ সনের বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলা ও ষড়যন্ত্রমুলক অস্ত্র মামলায় আসামী করা হয়। তৃণমুল পর্যায়ের জনপ্রিয় এ নেতা আওয়ামী সরকারের টার্গেটে পরিণত হয়। সরকারের পট পরিবর্তনের পর পরই এ পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক হয়রানী মূলক ২৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে তার পরিবার সুত্রে জানাগেছে। এসব মিথ্যা মামলা থেকে জামিনের জন্য নি¤œ আদালতে প্রার্থনা করলে না পেয়ে অবশেষে উচ্চ আদালত থেকে জামিন পান। দীর্ঘ ৪ মাস ১০ দিন কারাভোগের পর ১০ জুলাই তিনি কক্সবাজার জেলা কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হন। জনপ্রিয় কারামুক্ত এ নেতাকে বিএনপি ও এলাকাবাসীর যৌথ উদ্যোগে ১১ জুলাই বিকেলে নিজ এলাকা রঙ্গিখালী, ইউনিয়নের মৌলভী বাজার ও হ্নীলা ষ্টেশনে পৃথক ৩টি স্থানে সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। পুরো ইউনিয়নে কারামুক্ত বিএনপি নেতাকে মোটর শোভযাত্রার মাধ্যমে সম্বর্ধিত করা হয়। মোটর শোভাযাত্রা শেষে তাঁর নিজ এলাকায় বিএনপির ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে ব্যাপক সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি নুরুল আমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও  দক্ষিণ যুবদলের আহবায়ক জামাল সাদেকের পরিচালনয় অনুষ্টিত সম্বর্ধনা সভায় বক্তব্য রাখেন- উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক ও হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-২  মো: আলী মেম্বার, দক্ষিণ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আবছার কামাল ছিদ্দিকী, যুগ্ম আহবায়ক আমির হোছাইন বাহাদুর, বদিউর রহমান, ওসমান গণি, নুর বশর, জেলা জিয়া পরিষদের সদস্য এ্যাডভোকেট মীর জাহাঙ্গীর আলম, উত্তর যুবদলের আহবায়ক রফিকুল আলম চৌধুরী, যুগ্ম আহবায়ক আশরাফ আলী মিয়া, হারুন অর রশিদ, দক্ষিণ যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক ছৈয়দুল আমিন চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক নুরুল হুদা, মোক্তার হোসেন বাপ্পী, নাছির উদ্দিন চৌধুরী, হোসাইন মো: আনিম, হেলাল উদ্দিন, মুবিনুল হক, উত্তর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক মুরাদ হোসেন, আল মাসুদ, হাসান মুরাদ, যুবদলের সদস্য সরওয়ার কামাল শাহীন, ছাত্রদলের উপজেলা সদস্য হারুন অর রশিদ, উত্তর ছাত্রদলের আহবায়ক হারুন অর রশিদ, সদস্য হীরু, বিএনপি নেতা আবুল মঞ্জুর, কালু সওদাগর, নুরুল আলম, হেলাল উদ্দিন, জামাল হোসেন, হাবিবুর রহমান জং, সেতার আলম, মোহাম্মদ সলিম, মোহাম্মদ ইলিয়াছ, বশির আহমদ, মো: সলিম শাহেদ, মাঈন উদ্দিন, নুরুল আমিন, আলী আহমদ, আব্দুল খালেক, নুরুল ইসলাম, আখতার হোসাইন, আবু হুরাইরা শামীম, শহিদুল ইসলাম প্রমুখ। ####

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT