টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

হোয়াইক্যংয়ে বিট কর্তার ইন্দনে বাগান উজাড় করে জবর দখল চক্রান্তের অভিযোগ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৪ জুন, ২০১৩
  • ১০৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হেলাল উদ্দিন,টেকনাফ।
টেকনাফের হোয়াইক্যং মধ্যহ্নীলা বিট কর্মকর্তার ইন্দনে একটি প্রভাবশালী চক্র ব্যক্তি মালিকানা ও সামাজিক বাগান উজাড় করে জবর দখলের পায়তারা চালিয়ে আসছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বাগানের অংশীদারেরা প্রতিবাদ করায় প্রাণনাশ ও বন মামলার হুমকি দেওয়ায় আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়। এরপরও গাছচোর এবং জবরদখলে নেওয়ার পায়তারাকারী চক্রটি অব্যাহত হুমকি দেওয়ায় আদালতে অভিযোগকারী নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে বলে অভিযোগ করছেন।

অভিযোগে জানাযায়-টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের মধ্য হ্নীলা মৌজার রিজার্ভ ফরেস্টের ২নং খতিয়ানভূক্ত ১০৫১৪ ও ৯০৪০দাগের ৫হেক্টরের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি স্বাপেক্ষে সৃজিত আম-কাঠালসহ ফসলাদির বাগান উজাড় করতে স্থানীয় বিট কর্মকর্তা তৈয়মুর রহমানের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ইন্দনে ঝিমংখালী মিনাবাজার এলাকার মোঃ হারুন, নুরুল বশর,মোঃ ইসহাক,ইসমাঈল,ইদ্রিস,আনোয়ার ইসলাম,জাগের হোছন,নুরুল আলম,মোঃ আলম,রুহুল আমিন, আবুল হাকিম, নুরুল আমিন,মোহাম্মদ নুর,আব্দুল মালেক,আবুল কালাম,সাদ্দাম ও ফকির মোহাম্মদ অপতৎপরতা চালিয়ে আসছে। চলতি বছরের গত ৯এপ্রিল উপরোক্ত আসামীরা জোরপূর্বক বাগানে ঢুকিয়া গাছপালা ও বাঁশ কেটে নেওয়ার সময় বন পাহারাদার ও স্থানীয় দরবার শরীবের সদস্যরা বাঁধা দিলে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যায়। বাগান উজাড়রোধ ও জীবনের নিরাপত্তা চেযে স্থানীয় মৃত মকতুল হোছনের পুত্র মৌলানা আব্দুল শুক্কুর ফারুকী এরপর দিন জেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি মিচ মামলা নং-০৫/২০১৩ইং (টেকনাফ) দায়ের করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য কক্সবাজারে দক্ষিণ বনবিভাগ টেকনাফের সহকারী বন সংরক্ষককে দায়িত্ব দেওয়া হয়। যথারীতি তিনি ঘটনাস্থল সরেজমিন পরিদর্শন করে উপরোক্ত আসামীদের বাগান এলাকায় প্রবেশ না করার নির্দেশ দিয়ে যান। কিন্তু নাছোড় বান্দা গাছ চোরের দল এই নির্দেশ অমান্য করে গাছ চুরি করে বনভূমি উজাড় পূর্বক জবর দখল করে বসতি স্থাপনের চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছ্।ে বিট কর্মকর্তার ভূমিকা রহস্যজনক হওয়ায় লোকজনের মনে আরো সন্দেহ বেড়েছে। এ ব্যাপারে বিট কর্মকর্তা তৈয়মুর রহমান জানান-অভিযোগকারী আমাদের ভিলেজার। সে ভিলেজার স্বার্থের জন্য আমকেও ধমকায়। সরকারী সম্পদ রক্ষা করা আমরা সকলের দায়িত্ব। কিন্তু তাদের পারিবারিক দ্বন্দের কারনে তাদের মধ্যে ছোট-খাটো ঘটনা ঘটছে। পক্ষপাতমূলক আচরনের অভিযোগ ভিত্তিহীন। তবে আব্দুল শুক্কুরসহ অনেকে জানান-উক্ত চোরের দল পশ্চিমের ৫হেক্টর বাঁশ বাগান, ২০০৩-২০০৪সালে ১০হেক্টর সৃজিত সামাজিক বনায়ন উজাড় করলেও সংশ্লিষ্ট কারো মাথাব্যথা না হওয়ায় জনমনে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। এই ব্যাপারে বিভাগীয় বন কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভূক্তভোগীরা।

####################################

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT