টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

হোয়াইক্যংয়ে প্রভাবশালীর পিটুনিতে কাঠমিস্ত্রির মৃত্যু ধামা চাপার চেষ্টা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১২
  • ১৬৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যংয়ে এক অসহায় কাঠমিস্ত্রি এলাকার প্রভাবশালীর পিটুনিতে মারা যাওয়ার পর পুলিশ প্রভাবশালীর পক্ষ নিয়ে ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে ধামা চাপার চেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।এ মৃত্যুর ঘটনায় নানা রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।সরেজমিন অনুসন্ধানে জানা যায়-হোয়াইক্যং ইউনিয়নের আমতলী এলাকার মৃত মকতুল হোছনের পুত্র মনসুর আলী(৪৮)র এক বিবাহিতা মেয়ে পার্শবতী সাইফুল ইসলাম চৌধুরীর বাড়ীতে কাজের মেয়ে হিসেবে কাজ করত। সম্প্রতি উক্ত মেয়ে সাইফুল ইসলাম চৌধুরী ও তার স্ত্রীর নানান দূর্ব্যবহারে অতীষ্ট হয়ে তার বাড়ী থেকে চলে আসে।অভাবের তাড়নায় তার অপর মেয়ে আমিনা বেগম স্থানিয় পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী ইন্চার্জ এ.এস.আই মাহফুজ এর বাসায় কাজের মেয়ে হিসেবে কাজ করে। বড় মেয়ে কাজ না করে সাইফুল ইসলাম চৌধুরীর বাসা থেকে চলে আসায় ৯ সেপ্টেম্বর তার অসুস্থ পিতা কে নিয়ে ডাক্তারের কাছে যেতে সাইফুল চৌধুরীর বাড়ীর নিকট দিয়ে যাওয়ার সময় মেয়ে কাজে না আসার ক্ষোভে পিতা কে মারধর করে ধাক্কা দিলে সে মাঠিতে পড়ে যায় এবং মৃর্ত্যুর কুলে ঢুলে পড়ে।ঘটনার পর তখন মেয়ে ও স্ত্রী নিহত মনসুর আলী কে নিয়ে বাড়ীতে চলে যায়।এর পরপরই মনসুর আলী মারা যায়। এতে মৃত মনসুর আলীর কন্যা আমেনা সাইফুল ইসলাম চৌধুরীর স্ত্রী সলিমা খাতুন ও এক শিশুসহ ৪ জন আহত হয় । এরপর ক্ষুব্দ পরিবারের লোকজন মৃত্যুর বিষয়টি নিয়ে হত্যা সহ নানান অভিযোগ তুলে। এমনকি দুদিন পুর্বে অসুস্থ ব্যাক্তিকে মারধরের অভিযোগ আনা হয়। উল্লে­খ্য হোয়াইক্যং ইউনিয়নের আমতলী এলাকার মৃত মকতুল হোছনের পুত্র মনসুর আলীর পরিবারের সাথে পার্শবতী সাইফুল ইসলাম চৌধুরীর ভিটার চলাচলের রাস্তা নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিল। এ অবস্থায় গত ৯ সেপ্টেম্বর বিকালে গৃহকর্তা মনসুর আলী নিজ বাড়ীতে মারা যায় রহস্যজনক কারনে! কিন্তু মৃত্যুর বিষয়টি পরিবারের লোকজন পিটুনীর আঘাতে মারা যায় বলে স্পষ্ট অভিযোগ তুলে। মনসুর আলীর সন্তানেরা অভিযোগ করেন যে,ঘটনার দু দিন পুর্বে ভিটার রাস্তার বিরোধের জের ধরে সাইফুল চৌধুরীর পরিবারের লোকজনের সাথে মারামারির ঘটনা ঘটে । ঐ দিন সাইফুল চৌধুরী তাকে মারধর করে। পিটুনির আঘাতে সে মারা যায়।স্থানিয় হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ির অতী নিকটে ঘটে যাওয়া ঘটনা টি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করছে।এ ব্যাপারে হোয়াইক্যং ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী কাছে জানতে চাইলে,তিনি বলেন,পিটুনির বিষয় আমরাও শুনেছি।তবে তার মৃত্যুর রহস্য এখন স্পষ্ট বলা যাচ্ছেনা। ময়না তদন্তে রিপোর্ট এলে বলা যাবে । অভিযুক্ত সাইফুল চৌধুরী জানান, মনসুর আলী দীর্ঘদিন ক্যানসার রোগে ভোগছিল। অসুস্থজনিত কারণে তার স্বভাবিক মৃত্যুকে ভিটার রাস্তা নিয়ে পুর্ব শত্র“তার জের ধরে আমাকে হয়রানীর জন্য মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি চড়াচ্ছে মাত্র।এদিকে মনসুর আলীর মৃত্যু নিয়ে এলাকার সর্বত্র তুমুল সমালোচনার ঝড় সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে অনেকে অবাক হয়ে বলছেন -অসহায় এ গরীবের বিচার কি এ জগতে হবেনা । এদিকে পিটুনিতে আহত ব্যাক্তির মৃত্যুর পর অবশেষে পোস্টমর্টেম এর মাধমে দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। গত ১১ সেপ্টেম্বর মঙ্গল বার বিকাল সাড়ে পাঁচ টায় হোয়াইক্যং আমতলীস্থ কবরস্থানে লাশের দাফন করা হয়েছে। ##############

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT