টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

সাঈদীর বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধকালে গণহত্যা-ধর্ষণ সহ ২০টি ঘটনায় পাল্টা যুক্তি উপস্থাপন শুরু

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১২
  • ১৮৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আটক জামায়াতের নায়েবে আমীর মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর পক্ষের যুক্তিতর্কের জবাবে প্রসিকিউশন তাদের যুক্তি উপস্থাপন শুরু করেছে।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১- এর চেয়ারম্যান বিচারপতি নিজামুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনালে সাঈদীর পক্ষে কোন আইনজীবী উপস্থিত না থকায় তাদের যুক্তি উপস্থাপন বন্ধ ঘোষণা করে প্রসিকিউশনের যুক্তি উপস্থাপনের নির্দেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল।

তবে ট্রাইব্যুনাল তার আদেশে বলেন, আসামিপক্ষের আইনজীবীরা যদি যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য আবেদন প্রার্থনা করে, সেক্ষেত্রে বিবেচনা করা হবে।

এরআগে সকালে ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম শুরু হলে ট্রাইব্যুনাল সাঈদীর কাছে জানতে চান- আপনার পক্ষে কোন আইনজীবী উপস্থিত নেই। এখন আমরা কি করতে পারি।

এ সময় সাঈদী আদালতকে বলেন, ‘আমি তো আদালতকে আদেশ দিতে পারি না। তবে অনুরোধ করতে পারি।’

তিনি বলেন, ‘আজ হরতালের কারণে হয়তো তারা আসতে পারেন নি। সুতারাং আগামীকাল বুধবার পর্যন্ত সময় দিলে ভাল হয়।’

এ সময় আদালত বলেন, ‘আমাদের তো বিচারকার্য পরিচালনা করতে হবে। সুতরাং আইনে আদালত মূলতবি করার কোন সুযোগ নেই।’

এরপর সাঈদী বলেন, ‘মাননীয় আদালত আমাকে ছুটি দিয়ে কারাগারে পাঠালে ভালো হয়। আমি তো আইন বুঝি না।’

আদালত তার এ আবেদন নাকচ করে দিয়ে বলেন, ‘আপনাকে নিয়েই সবকিছু। সুতারাং আপনি বসে বসে কুরআন পড়ুন, শুনুন। সময় হলেই আপনাকে কারাগারে পাঠানো হবে।’

পরে প্রসিকিউটর সৈয়দ হায়দার আলীকে তার জবাব দেয়ার নির্দেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল।

পরে প্রসিকিউটর সৈয়দ হায়দার আলী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজ ট্রাইব্যুনালে সাঈদীর মামলার দিন ধার্য ছিল। কিন্তু তাদের কোন আইনজীবী না আসায় ট্রাইব্যুনাল আমাদের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরুর নির্দেশ দিলে আমরা আমাদের পাল্টাযুক্তি উপস্থাপন শুরু করি।’

তাদের যুক্তি উপস্থাপন শেষ হলে মামলার রায়ের দিন ধার্য হবে কিনা সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সৈয়দ হায়দার বলেন, ‘আইন তো তাই বলে।’

তিনি বলেন, ‘আশা করছি, আগামীকাল বুধবার আমাদের যুক্তি উপস্থাপন শেষ হলে রায়ের দিন ধার্য হবে।’

এরআগে গতকাল সোমবার সাঈদীর পক্ষের প্রধান আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক আইনগত বিষয়ে যুক্তি উপস্থাপন শেষ করেন। এরপর মিজানুল ইসলাম তথ্যগত বিষয়ে যুক্তি উপস্থাপন শুরু করেন।

সাঈদীর বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের পক্ষে সৈয়দ হায়দার আলী গত ১৫ নভেম্বর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করেন। তিনি গত ৫ নভেম্বর থেকে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু করেছিলেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আটককৃতদের মধ্যে একমাত্র দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর বিরুদ্ধে প্রসিকিউশন, আসামিপক্ষের সাক্ষী ও তদন্ত কর্মকর্তাসহ সবার জবানবন্দি গ্রহণ এবং জেরা শেষ হয়েছে। মামলাটির চূড়ান্ত নিষ্পত্তির জন্য যুক্তিতর্ক উপস্থাপনও শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

সাঈদীকে একটি মামলায় ২০১০ সালের ২৯ জুন গ্রেপ্তার করা হয়। মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ২০১০ সালের ২ নভেম্বর তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

মুক্তিযুদ্ধকালে হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ এবং এ ধরনের অপরাধে সাহায্য করা ও জড়িত থাকার সুনির্দিস্ট ২০টি ঘটনায় অভিযোগ আনা হয়েছে জামায়াতের এই শীর্ষ নেতার বিরুদ্ধে।

Facebook

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT