টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :

শাহাজাহান চৌধুরীর সঙ্গ ছাড়ছে টেকনাফ বিএনপি

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১ আগস্ট, ২০১৩
  • ২০৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

01 (76)বিশেষ প্রতিবেদক …উখিয়া টেকনাফের সাবেক সংসদ সদস্য এবং কক্সবাজার জেলা বিএনপি’র সভাপতি শাহাজাহান চৌধূরীর দীর্ঘ দিনের আপন জনেরা একে একে এখন তাঁর সংগ ত্যাগ করছে। বিশেষ করে টেকনাফ উপজেলা জাতীয়তবাদী দল বিএনপি শাহাজাহান চৌধুরীর সাথে ইতিমধ্যে তাদের দূরত্ব বাড়িয়ে সাংগঠনিক কর্মকান্ড পরিচালনা করছে। উখিয়া টেকনাফের চার চারবার নির্বাচিত এই সাংসদকে বাদ দিয়ে টেকনাফ বিএনপি নেতৃবৃন্দ সংগঠনের নীতিনিধারকদের পরামর্শ মতো আন্দোলন, সংগ্রামসহ নানা কর্মসূচী পালন করছে। কিন্তু এসব কর্মসূচীতে সাবেক এই সাংসদকে তারা অনুপস্থিত রাখতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছেন। শাহাজাহান চৌধুরী কক্সবাজার জেলা বিএনপি’র সভাপতি হওয়ার পর থেকে সংসদ সদস্য লুৎফুর রহমান কাজলের সাথে বিরোধের পরবর্তীতে এই বিশাল পক্ষের অসমর্থনসহ জেলা শহরে তার অবস্থান নড়বড় হয়ে যায়। আর এই ধারাবাহিকতায় এবার তাঁর সব চেয়ে আস্থাভাজন টেকনাফ উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি সরওয়ার কামাল চৌধূরী এবং সাধারণ সম্পাদক এম আব্দুল্লাহ বিএ এর সাথে সাংগঠনিক দন্ধের কারণে দূরত্ব বেড়েছে বেশ কয়েক মাস ধরে। শুধূ তাই নয় টেকনাফ উপজেলা বিএনপি’র সাথে শাহাজাহান চৌধুরী দন্ধ এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে তারা এবার জাতীয় নির্বাচনে তাঁর বিকল্প প্রার্থী হিসেবে দলের একনিষ্ট এক নেতাকে দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুখোমুখি করতে প্রস্তুতি নিচ্ছে। আগামী ঈদের পরপরই টেকনাফ উপজেলা বিএনপি আনুষ্টানিকভাবে উখিয়া টেকনাফের আগামীর প্রতিনিধির দ্বার উন্মোচন করা হবে বলেও স্থানীয় বিএনপি’র কয়েকটি বিশ্বস্থ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে।  গত সাড়ে চার বছর ধরে সারাদেশে বিএনপি যখন রাজনৈতিকভাবে বিপর্যস্ত ঠিক তখনই উখিয়া টেকনাফের বিএনপি’র ঘরে এমন আভাস বিশেষজ্ঞ মহলের মধ্যে নানা কানাঘোষা চলছে।   নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক টেকনাফ উপজেলা বিএনপি’র এক প্রভাশালী নেতা জানিয়েছেন, উখিয়া টেকনাফের সাবেক সংসদ সদস্য এবং জেলা বিএনপি’র সভাপতি শাহাজাহান চৌধুরী অনেকদিন সাংগঠনিকভাবে নিষ্ক্রিয় থাকার পর এখন আবার নির্বাচন মূখী হচ্ছেন। আর এই সুবাদে তিনি টেকনাফ উপজেলা বিএনপিকে নিজের মতো করে গড়বার চেষ্টা করছেন। যেটি সংগঠনের নিয়ম নীতির পরিপন্থি। এই নেতা বলেন, উখিয়া টেকনাফের মানুষ থেকে অনেক দুরে থাকার পর শাহাজাহান চৌধুরী এখন সংগঠনকে পরিপূর্ণ এবং নেতা-কর্মীদের সংগঠিত করার পরিবর্তে নির্বাচনী ধ্যান ধারনা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। এতে করে দীর্ঘ সাড়ে চার বছরে আওয়ামীলীগ শাসনে যারা নিজেদের শ্রম ত্যাগ এবং আন্দোলন করে স্থানীয়ভাবে বিএনপিকে সজিব রেখেছেন তাদের অবমূল্যায়ন শুরু করে দিয়েছেন। ত্যাগী নেতা-কর্মীদের সরিয়ে তিনি যারা দলের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে দলকে দূর্বল করতে ভূমিকা রেখেছেন তাদের দলে ভিড়িয়ে এখন আবারো সাংসদ সদস্য হওয়ার স্বপ্নে বিভোর হয়ে পড়েছেন শাহাজাহান চৌধুরী। এটি কখনো জাতীয়তবাদী জিয়ার আদর্শের সৈনিকারা মানতে নারাজ বলেছেন ওই নেতা।   অপর একটি সমর্থিত সূত্র জানিয়েছে, শাহাজাহান চৌধুরী টেকনাফ উপজেলা বিএনপি’র কোন পরামর্শ মানতে রাজি নয়। তিনি এই দলকে নিজের মনে করে যেনতেন ভাবে ব্যবহার করতে চেষ্টা করছেন। এতে করে টেকনাফের তৃণমুলের সংগঠকরা বেজায় অখুশি তাঁর এমন আচরণে। শাহাজাহান চৌধুরী নির্বাচনকে গ্রহনযোগ্য করে তুলার অজুহাত দিয়ে মুল সংগঠনের লোকদের দুরে ঠেলে নতুন অযোগ্য এবং বর্জিত, বিতর্কিত ব্যাক্তিদের দলে ভিড়াবার অপপ্রয়াস চালাচ্ছেন। আর এসব নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্থানীয় বিএনপি’র কোন নেতা-কর্মীদের পরামর্শ নিতে শাহাজাহান চৌধুরী প্রয়োজনতার কথা ভাবছেন না। ্এতে করে স্থানীয় নেতা কর্মীরা তার প্রতি বিষণভাবে ক্ষোভে রয়েছেন। এ ক্ষোভের বয়স বেশ কয়েক মাস হচ্ছে। ফলে কক্সবাজার শহর বিএনপি’র পাশাপাশি শাহাজাহান চৌধুরী এখন নিজের অন্যতম ভরসা টেকনাফ বিএনপির সাথেও দূরত্বে আছেন।   টেকনাফ বিএনপি’র দলের একজন দায়িত্বশীল নেতা জানিয়েছেন, শাহাজাহান চৌধুরী উখিয়া টেকনাফের মানুষের কাছ থেকে অনেক দুরে আছেন। দীর্ঘদিন পর্যন্ত তিনি জেলা শহর সামাল দিতে গিয়ে নিজ এলাকার মানুষদের সুখে দুঃখে থাকার সুযোগ হয়নি মোটেও। টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপের মানুষ জলে ভাসলেও এখানকার চার চার বার নির্বাচিত শাহাজাহান চৌধুরী তাদের দুখের ভাগিদার হওয়ার সময় বের করে নিতে পারেনি একবারও। এছাড়া টেকনাফবাসীর সাথে গেল সাড়ে চার বছরে তাঁর অভিভাকত্বের বহিঃপ্রকাশ ঘটাননি। যার কারণে ওনি এখন অনেকটা অপ্রিয় এবং জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন।   টেকনাফ বিএনপি’র আরেক নেতা জানান, শাহাজাহান চৌধুরী নিজেই ক্ষমতার লোভে উখিয়া টেকনাফ থেকে নেতা হয়ে কেউ উঠে আসুক তা তিনি কখনো চাননি। যে উঠে আসতে চাইবার চেষ্টা করতেন তাঁকে তিনি বসিয়ে রেখেছেন নানা কৌশলে। যার কারণে উখিয়া টেকনাফ আসনে শাহাজাহান চৌধুরী ছাড়া বিএনপিতে বিকল্প কোন প্রার্থী উঠে আসেনি। আর তার সুবিধা ভোগ করেছেন জাতীয় নির্বাচনে বার বার প্রাাথীর মনোনয়ন নিয়ে। ওই নেতা আরো অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি’র বিশাল ব্যানার নিয়ে শাহাজাহান চৌধুরী বার বার নির্বাচিত হলেও এখানকার জনগণ তার আচরণে খুশি হয়ে ভোট দিয়েছেন তা নয়। শহীদ জিয়া এবং খালেদা জিয়ার আদর্শকে উখিয়া টেকনাফের মানুষ সমর্থন দিয়েছে। তাই এবার বিএনপিতে শাহাজাহান চৌধূরীর বিকল্প চিন্তা করছে উখিয়া টেকনাফের মানুষ।   একটি অসমর্থিত সুত্র জানিয়েছে, শাহাজাহান চৌধুরী সংগঠন পরিপন্থি কার্যকলাপে টেকনাফ উপজেলা বিএনপিএতই হতাশ যে তারা আগামী নির্বাচনের জন্য বিকল্প প্রার্থী হিসেবে একজনকে মানসিকভাবে প্রস্তুত করে তুলছে। কারণ ব্যাক্তির চেয়ে দল বড় মন্ত্রে তারা এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে। আগামী ঈদের পরপরই শাহাজাহান চৌধূরীর সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপ এবং সংগঠনকে নিজের ঘর বানিয়ে রাখার পরিকল্পনার বিরুদ্ধে অবস্থান নেবেন টেকনাফ উপজেলা বিএনপি। সূত্রটি আরো বলছে, শাহাজাহান চৌধূরীর সাথে ব্যাক্তি বিরোধ নয় এই বিরোধ দলের পরিপন্থি কার্যকলাপের বিরুদ্ধে বলে তাই। এব্যাপারে টেকনাফ উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি সরওয়ার কামাল চৌধুরী বলেন, শাহাজাহান চৌধুরীর সাথে টেকনাফ বিএনপি’র কোন বিরোধ নেই, তবে যিনি সংগঠনকে অবজ্ঞা করে নিজ সিদ্ধান্তকে প্রাধান্য দেবেন তার বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে জিয়ার সৈনিকরা বদ্ধ পরিকর। ব্যাক্তির সিদ্ধান্তে একটি বৃহৎ দল চলতে পারেনা। নেত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক দল পরিচালিত হবে। সংগঠনের নিয়মনীতির বাইরে যিনি কথা বলবেন তিনি দলের  ভালো চান না। দলের বৃহত্তর সিদ্ধান্তের কাছে নিজের স্বার্থের কোন মূল্য থাকতে পারেনা।   এ ব্যাপারে কক্সবাজার জেলা বিএনপি’র সভাপতি শাহাজাহান চৌধুরী বলেন, টেকনাফ উপজেলা বিএনপি তার হাতে গড়া। তাঁকে সব নেতা-কর্মীরা অনেক ভালোবাসেন। এ সমস্ত বিরোধের কথা শুধু মাত্র অপপ্রচার বা প্রোগাগান্ড ছাড়া কিছু নয় বলে জানান তিনি।   গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে উখিয়া টেকনাফ আসনে ২৩ হাজার কিছুটা ভোট বেশির ব্যাবধানে বর্তমান মহজোট সমর্থিত এমপি আলহাজ্ব আব্দুর রহমান বদির কাছে পরাজিত হন শাহাজাহান চৌধূরী। বাংলাদেশ অনলাইন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন কক্সবাজার শাখা’র সভাপতির পদ থেকে মোহাম্মদ সেলিমের পদত্যাগ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি-০১ আগষ্ট ২০১৩ ইং ॥

বাংলাদেশ অনলাইন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন এর সম্প্রতি কেন্দ্র ঘোষিত কক্সবাজার জেলা কমিটির সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন প্রাইম নিউজ বিডি ডট কমের কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি ও জিটিভি’র কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি মোহাম্মদ সেলিম। বৃহষ্পতিবার (০১ আগষ্ট) মোহাম্মদ সেলিম সাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে  এ সংবাদ জানানো হয়।

 

ব্যাক্তিগত কারনে এবং বিওজেএ এর নীতিমালা সম্পর্কে বিশেষ কোন ধারনা না থাকায় তিনি বিওজেএ এর কক্সবাজার শা

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT