টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

রোহিঙ্গা ভিক্ষুকের দখলে টেকনাফ-হয়রানীর শিকার পর্যটক

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩০ নভেম্বর, ২০১২
  • ১১৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

মমতাজুল ইসলাম মনু টেকনাফ (টেকনাফ নিউজ ডটকম)
নৈসর্গিক সৌন্দর্য্যরে লীলাভুমি টেকনাফ। বছর ঘুরে বাংলাদেশের সবুজ বিন্দু দেখার জন্য দেশী-বিদেশী হাজারো পর্যটক মৌসুমকে সামনে রেখে ভীড় করে এখানে। এ সুযোগে কিছু রোহিঙ্গা টোকাই ভিক্ষুক দখলে নেয় পর্যটন এলাকা টেকনাফ। এখানে আসা দেশি বিদেশি পর্যটকেরা প্রতিনিয়ত হয়রানির শিকার হয় তাদের হাতে। পাশাপাশি টেকনাফ বাস স্টেশনে অবাধ বিচরণ করা টোকাই কর্তৃক পর্যটকদের মূল্যবান মালামাল লোপাট হয়ে যাওয়ার একাধিক ঘটনা ঘটলেও পর্যটন শহর টেকনাফে কোন ট্যুরিস্ট পুলিশ না থাকায় পর্যটকরা অজানা ভয় ও উৎকন্ঠা নিয়ে সময় পার করছে। সরেজমিনে টেকনাফ সেন্টমার্টিন জাহাজ ঘাট টেকনাফ বাস স্টেশনসহ টেকনাফে অবস্থিত বিভিন্ন পর্যটন স্পট ঘুরে দেখা যায়-পর্যটন মৌসুমকে সামনে রেখে রোহিঙ্গাদের অনেকেই ভিক্ষাভৃত্তি করে অতিরিক্ত অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার মনসানসিকতা নিয়ে টেকনাফ পর্যটন স্পটের বিভিন্ন পয়েন্টে বসে ভিক্ষা করতে দেখা যায়। রোহিঙ্গাদের ছেলে মেয়েরা ভিক্ষার নামে পর্যটকদের শার্ট পেন্ট ধরে টানা হেচড়া করে থাকে বলে পর্যটকদের অভিযোগ। গতকাল শুক্রবার টেকনাফের দমদমিয়া এলাকা ঘুরে দেখা যায়, রোহিঙ্গা ভিক্ষুকেরা বিকেলে সেন্টমার্টিনে বেড়াতে যাওয়া পর্যটকরা জাহাজ থেকে নামার সাথে সাথে রাস্তায় ঘাটে বাসে ভিক্ষা বৃত্তি করে পর্যটকদের বিরক্ত করে। রোহিঙ্গাদের ছেলে মেয়েরা  অবাধ ভাবে বিচরণ করে পর্যটকদের মালামাল বহনের নামে হয়রানি করায় পর্যটকেরা চরম বিব্রতবোধের শিকার হচ্ছে। সিলেট থেকে বেড়াতে আসা দুই বন্ধু জসিম ও সজল  জানালেন, ছোট ছোট মেয়েরা ভিক্ষার জন্য মেয়েদের ওড়না ধরে টানা টানি করে। একজনকে দিলে ভিক্ষুকের পুরো দল অনৈতিক আবদার করে টাকা দাবী করে। টাকা না দিলে অশালীন ভাষায় কথা বার্তা বলে। পুলিশ ও জাহাজ কর্তৃপক্ষেরে অগোচরে এসব টোকাই ভিক্ষুকেরা পর্যটকদের হয়রানি করে থাকে। এভাবে অসংখ্য পর্যটক হয়রানির শিকার হচ্ছে প্রতিদিন। সকলের অজান্তে পর্যটকের মালামাল ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে এমন অভিযোগ ও পাওয়া গেছে পর্যটকের কাছ থেকে। দমদমিয়ার জাহাজ ঘাঁটে পুলিশ কোস্টগার্ড ও কখনো বিজিবিকে পর্যটকদের নিরাপত্তায় দেখা গেলেও টেকনাফ বাস স্টেশন বার্মিজ মার্কেট টেকনাফ বীচসহ অন্যান্য ট্যুরিস্ট জোনে প্রশাসন পর্যটকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করণের জন্য ট্যুরিস্ট পুলিশ কিংবা পর্যটকদের সার্বক্ষনিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা জরুরী বলে মনে করছে সংশ্লিষ্টরা। টেকনাফ এলাকার আইনশৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার জন্য জাহাজ ঘাঁটের পাশাপাশি প্রশাসনের উদ্যোগে টেকনাফ বাস ষ্টেশনসহ অন্যান্য ট্যুরিস্ট জোনে পর্যটকদের নিরাপত্তার জন্য বিশেষ পুলিশ সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালনের জন্য স্ট্যান্ডবাই রাখা দরকার। যাতে পর্যটকেরা ইচ্ছা করলে পুলিশের সহযোগীতা নিতে পারেন।  নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সামছুল ইসলাম বলেন, পর্যটন পরিবেশের উন্নতি ও সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বহুমুখী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, সেন্টমার্টিন তথা নৈসর্গিক সৌন্দর্য্যরে লীলাভুমি টেকনাফ পর্যটন এলাকার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন ও পর্যটকদের হয়রানির ব্যাপারে কোন সুনির্দ্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া গেলে তাৎক্ষনিক ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ===

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT