টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

রোমাঞ্চকর এল ক্লাসিকোয় সমতা…

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৩১ জানুয়ারি, ২০১৩
  • ১৮৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

দ্বিতীয়ার্ধের ৫ মিনিটে বার্সার অমূল্য ‘অ্যাওয়ে’ গোলটির স্থপতি দলের সবচেয়ে বড় তারকা লিওনেল মেসি। টানা চারবারের বিশ্বসেরা ফুটবলারের নিঁখুত পাস ফাঁকায় দাঁড়ানো ফ্যাব্রেগাস কাজে লাগাতে কোনো ভুল করেন নি।

৮৩ মিনিটে মেসুত ওজিলের পাস থেকে রাফায়েল সমতা ফেরানোর আগে রিয়াল গোলরক্ষক দিয়েগো লোপেজ বেশ কয়েকবার হতাশ করেছেন মেসি-ফ্যাব্রেগাসদের।

রিয়ালের মাঠে খেলা হলেও চোটের কারণে নিয়মিত গোলরক্ষক ইকর ক্যাসিয়াস ও ডিফেন্ডার পেপে এবং নিষেধাজ্ঞার কারণে দুই ডিফেন্ডার সার্জিও র‌্যামোস ও ফ্যাবিও কোয়েন্ত্রা এবং মিডফিল্ডার অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার অনুপস্থিতি বাড়তি সুবিধা পেয়েছিল অতিথিরা। বার্সার জন্য বাড়তি সুবিধা দ্বিতীয় লেগের খেলা নিজেদের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে, আগামী মাসের শেষ দিকে।

ম্যাচ শেষে ফ্যাবেগ্রাস বলেন, “রিয়ালের বিপক্ষে খেলা সব সময়ই কঠিন। এই ম্যাচে আমরা যেমন খেলেছি তাতে খেলার ফলাফল আমাদের পক্ষেই যেতে পারতো।”

“পরের লেগ আমরা খেলবো নিজেদের মাঠে, আমাদের ভক্তদের সামনে। আমরা দারুণ ছন্দে আছি এবং অসাধারণ একটি বছর কাটছে,” যোগ করেন আর্সেনালের সাবেক অধিনায়ক।

বিশ্ব ও ইউরোপ সেরা স্পেনের সেরা খেলোয়াড়রা এই ম্যাচে নিজেদের বিপক্ষে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন। তবে তারপরও সবার নজর ছিল সময়ের সেরা দুই খেলোয়াড় মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর দিকে। তারা কয়েকটি সুযোগ তৈরি করলেও প্রথমার্ধ ছিল গোলশূন্য।

স্পেন ফুটবলের সবচেয়ে সফল দুটি ক্লাবের মধ্যে এটি ছিল ২২৩ ও কিংস কাপে ৩১তম লড়াই।

গত মৌসুমে রেকর্ড ২৬তম শিরোপা জেতার পথে বার্সা কোয়ার্টার ফাইনালে হারিয়েছিল রিয়ালকে। অন্যদিকে ২০১১ সালের ফাইনালে বার্সাকে হারিয়ে ১৮তম শিরোপা ঘরে তুলেছিল রিয়াল।

২১ মিনিটেই জাভি এগিয়ে দিতে পারতেন বার্সাকে। তার জোরালো শট লোপেজকে পরাস্ত করলেও ক্রসবারে লেগে সেই চেষ্টা ব্যর্থ হয়। মিনিট তিনেক পরে তাকে হতাশ করেন লোপেজ।

নিজের ছয়শতম ‘অফিসিয়াল’ ম্যাচে রিয়ালকে নেতৃত্ব দেয়া রোনালদোর দ্বিতীয় মিনিটের ফ্রি কিক বার্সা গোলরক্ষক জোসে ম্যানুয়েল পিন্টোকে পরীক্ষায় ফেললেও উৎরে গেছেন অতিথি দলের দ্বিতীয় গোলরক্ষক। ৩০ মিনিটের মাথায় করিম বেনজামার ভলি অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রস্ট না হলেও এগিয়ে যেতে পারতো স্বাগতিকরা।

চোটের কারণে তিনমাসের জন্য মাঠর বাইরে চলে যাওয়া রিয়াল অধিনায়ক ক্যাসিয়াস এক দশকের মধ্যে প্রথম কোনো এল ক্লাসিকোয় দর্শক হয়ে থাকলেন। তার অনুপস্থিতি নয়, সবচেয়ে বড় চমক ছিল মেসি ও রোনালদোর নাম স্কোরশিটে না থাকা।

এল ক্লাসিকোয় আর্জেন্টিনা ও রিয়ালের কিংবদন্তী ফুটবলার আলফ্রেড ডি স্টেফানোর রেকর্ড ১৮ গোল থেকে মাত্র ১ গোল দূরে আছেন মেসি। অন্য দিকে বার্সার বিপক্ষে টানা ছয় খেলায় গোলকরার পর থামলেন রোনালদো।

রিয়ালের সহকারী কোচ আইতর কারাঙ্কা ম্যাচ শেষে প্রশংসা করেছেন ১৯ বছর বয়সী রাফায়েল ও লোপেজের।

তিনি বলেন, “রাফায়েল অসাধারণ খেলেছেন। আর লোপেজ অভিজ্ঞ একজন গোলরক্ষক। সর্বোচ্চ পর‌্যায়ের ফুটবলে অনেক দিন ধরেই খেলছেন তিনি।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT