টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

মিয়ানমারে সাজা ভোগ করা ৭৫ বাংলাদেশী ফেরত : পরিবারের নিকট হস্তান্তর

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই, ২০১৩
  • ২১২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

 

নুর হাকিম আনোয়ার,টেকনাফ::: বাংলাদেশ -মিয়ানমার পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে  ৭৫ জন বাংলাদেশী নাগরিক মিয়ানমারে সাজা ভোগ করার পর দেশে ফেরত  আনা হয়েছে। বিজিবি সূত্রে জানা যায়- ১১ জুলাই মিয়ানমার সময় ১১টায়  মিয়ানমারের অভ্যন্তরে ১নং পয়েন্ট অব এন্ট্রি এন্ড এক্সিট এলাকায় ৪২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এবং উপ-পরিচালক, ইমিগ্রেশন এবং ন্যাশনাল রেজিষ্ট্রেশন ডিপার্টমেন্ট মংডু, মিয়ানমার এর সাথে অনুষ্ঠিত পতাকা বৈঠকে ৮ সদস্যের বিশিষ্ট বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের পাশাপাশি পদস্থ নাসাকা কর্মকর্তাগণের উপস্থিতিতে বিভিন্ন মেয়াদে মিয়ানমারের কারাগারে সাজা প্রাপ্ত ৭৫ জন বাংলাদেশী নাগরিককে ফেরত আনা হয়। অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ এবং আন্তরিক পরিবেশে অনুষ্ঠিত পতাকা বৈঠকে বাংলাদেশের দলের পে নেতৃত্ব দেন ৪২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ জাহিদ হাসান, জি+ এবং মিয়ানমারের ৮সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন ইমিগ্রেশন কর্তৃপরে উপ-পরিচালক উইন সেইন। ফেরত আনা ৭৫জন বাংলাদেশীকে তাদের পরিবার ও কর্তৃপরে কাছে হস্তান্তর করার নিমিত্তে টেকনাফ মডেল থানায় সোর্পদ করা হয়েছে। সাজা ভোগকৃত বাংলাদেশী নাগরিকেরা হচ্ছে- চট্টগ্রাম জেলার  চন্দাগাঁও থানার মৌলভী পুকুর পাড় গ্রামের হাবিবুল্লাহর পুত্র মো ইয়াহিয়া, কক্সবাজা জেলার উখিয়া থানার কুতুবপালং গ্রামের কবির আহমদের পুত্র নূর মোহাম্মদ, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার হ্নীলা ইউনিয়নের ছায়েদ আলমের পুত্র শাহ আলম, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার মৃত নাদির হোসেনের পুত্র নুরুল আলম, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার হ্নীলা ফুলের ডেইল গ্রামের আশরাফ আলীর পুত্র মোঃ ইলিয়াছ, নরসিংদী জেলার রায়পুরা থানার বীর চরমদূয়া গাজীপুর গ্রামের মোঃ বাবুলের পুত্র মোঃ বেলাল, বীর চর মদুয়া গ্রামের মোঃ ইছমাইলের পুত্র ইসহাক, বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ থানার আব্দুল বাহাপুর গ্রামের মোঃ সিকান্দারের পুত্র মোঃ এজাজুল হক, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার গোদারবিল গ্রামের সুলতান আহমদের পুত্র সাদ্দাম হোসেন, নরসিংদী জেলার রায়পুরা থানার বাশগাড়ী গ্রামের হিরণ মিয়ার পুত্র হালিম, ফরিদপুর জেলার আলফাডাংগা থানার চরখোলা বাড়িয়া গ্রামের শুকুর মোল্লার পুত্র পাসু মোল্লা, বিলমান্দিলা গ্রামের রায়হান উদ্দিন শেখের পুত্র মোঃ মিজানুর রহমান, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার দমদমিয়া গ্রামের মোহাম্মদ সায়েদ পুত্র ওসমান গনি ও মাহমুদ সায়েদ পুত্র মোঃ তাহের, নরসিংদী জেলার রায়পুরা থানার বাশগাড়ী গ্রামের মোঃ ওমসান গনি পুত্র মোঃ জাহাংগীর আলম, পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়াথানার মহিপুর গ্রামের মৃত কালু শরিফ পুত্র শহিদুল মিস্ত্রী, কক্সবাজার জেলার রামু থানার পশ্চিম বড়ধলির ছড়া গ্রামের কালা মিয়ার পুত্র দেলোয়ার হোসেন লালু, বড়ধলিরছড়া গ্রামের আমির হামজার পুত্র নুরুল ইসলাম, বড়ধলিরছড়া গ্রামের নুরুল আজিম পুত্র আব্দুল হোসেন, আবু সামার পুত্র কামাল, বালুবাসা গ্রামের মোস্তাক আহম্মেদর পুত্র আবুল মনছুর, কক্সবাজার জেলার ঈদগাঁও মেহেরগুনা গ্রামের  ইয়াকুব আলী মোঃ ইসলাম। কক্সবাজার ঘোনাপাড়া বাড়–য়াখালী গ্রামের কালা মিয়ার পুত্র নুরুল আফসার, পানিরছড়া গ্রামের মোঃ হোসনের পুত্র আমির হোসেন, পানিরছড়া আব্দুল গনির পুত্র নুরুল কবির, জোয়ারীনালার মোঃ শফির পুত্র শাহজাহান, টেকনাফ থানার মৃত আবুল হোসেনর পুত্র কেফায়েত উল্লাহ, সাবরাং ইউনিয়নের নোয়াপাড়ার মৃত নূর হাকিমের পুত্র মোঃ হোসেন, শাহপরীরর দ্বীপের আব্দুল করিমের পুত্র ইহসান, মোঃ হোসেনর পুত্র সালামত উল্লাহ, বেদা আলীর পুত্র বিতির আহম্মেদ, দঃ শীলখালীর মোঃ শফির পুত্র মাহফুজুর রহমান, মৃত আবুল কাশেমের পুত্র মোঃ হোসেন,  শাহপরীরর দ্বীপ হোসেন আহম্মেদর পুত্র শাহ আলম, সাবরাংর শাহাব মিয়ার পুত্র মোঃ আয়ুব, উখিয়া পল্লীপাড়ার নূর আলমের পুত্র ছৈয়দ আলম, সাবরাং, মৃত নুরুল হকের পুত্র মোহাম্মদ হাসান, মৃত অসির রহমানের  পুত্র আবু তৈয়ব, বড়ইতলী আব্দুল কাদেরের পুত্র মুসা আলী, জিম্বংখালী আব্দুল গফুরের পুত্র  ইব্রাহিম, রামু থানার  মরিচা মোহাম্মদ ইলিয়াছের পুত্র সায়েদুর রহমান, আবুল হাশেম পুত্র মোহাম্মদ তৈয়বুল্লাহ, রামু থানার রাবেতা কেচুয়াবুনিয়া মেহার আলীর পুত্র  বাবুল উদ্দিন, কেচুয়াবুনিয়া বাচা মিয়া  পুত্র নুরুল ইসলাম, দিল মোহামদের  পুত্র আব্দুর রহমান, হোয়াইক্যং চানু অং চাকমা মং পুত্র চাং উং চাকমা, হোয়াইক্যং মনিরঘোনা আবুল হোছনের পুত্র আব্দুর রশিদ, আব্দুল গণির পুত্র আব্দুল মাহবুব, ঘিলাতলী ইউসুফের পুত্র মোঃ ইলিয়াছ, নাইক্ষ্যংছড়ি বালুখালী কোনারপাড়া গ্রামের  মোহাম্মদ মিয়ার পুত্র  খায়রুল ইসলাম,উলুচামরি মোঃ হানিফ পুত্র মোঃ ইব্রাহিম,  বান্দরবান জেলার ফাশিয়াখালী লামার সিবির পাড়া আবুল হোসনের পুত্র  নুরুল হক, চট্টগ্রাম চান্দনাইশ খালিয়াদেবা গ্রামের সাবের আহমদের পুত্র মোঃ বাবুল প্রমূখ। উল্লেখ্য, এরা অনেকে জেলে বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে জোরপূর্বক নাসাকা বাহানী ধরে নিয়ে যায়। অনার্থক দীর্ঘদিন মিয়ানমারের কারাগারে থাকতে হয়েছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT