টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

মহেশখালীতে দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে মাদক স্পট

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ১ জুলাই, ২০১৩
  • ১৮৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি,
মহেশখালী উপজেলায় দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে মাদক স্পট, ফলে যুব সমাজ হচ্ছে বিপদগামী চলে যাচ্ছে অবৈধ পথে। মাদকের কারণে স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসা পড়–য়া ছাত্রছাত্রীদের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয় বলে জানিয়েছেন একাধিক ছাত্রছাত্রী। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আগের চেয়ে একাধিক জায়গায় হিরোইন, গাজা ও মাদক বিক্রয় হচ্ছে প্রতিনিয়ত। এ বিষয়ে ওসির নিষেধ থাকা সত্বেও তা অমান্য করে মাদক ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা চালিয়ে যাচ্ছে ক্যাশিয়ার সাইফুল ইসলাম।  স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ক্যাশিয়ার সাইফুলের সহযোগিতায় মহেশখালীর মাদক ব্যবসায়ীরা আগের চেয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। গোরকঘাটা বাজার জামে মসজিদের পিছনে বীর দর্পে গাজা, হিরোইন বিক্রি করে যাচ্ছে মৃত আবুল বশরের পুত্র নুর হোসেন প্রঃ লেইট্যা, দেশীয় ছোলাই মদ বিক্রি করে মৃত সুরেশের স্ত্রী প্রদীপ জলদাশ, ঝন্টু, মহন্ত, গোপাল মহন্ত, বিধুরাম দে, কাজল দে, ধনবালা দে, সন্তি রানী দে ও বাদল দে। দক্ষিণ হিন্দুপাড়া এলাকায় মদ বিক্রয় করে ক্ষেত্র মোহন দে, অনিতা বালা দে, লিটন দে ও টিটন দে। ঘোনাপাড়া এলাকায় মাদক স¤্রাক ফজলুল হক ও শামসুল আলম। দাসীমাঝিরপাড়া এলাকায় বুড়ি বেগম, আদুরী বেগম, বাবুল, শুক্কুনী, সোহর, সিরাজ ও রেজাউল করিম। থানা পরিষদ এলাকায় মাদক স¤্রাজ্ঞী জোহরা বেগম, সন্তি রাণী দে, শোভা রাণী দে ও শান্তি বালা দে। পুটিবিলা পালপাড়া এলাকায় বাদল পাল, সজল পাল ও কাজল পাল। ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের ঠাকুরতলার অনিতা বালা, খঞ্জনি বালা দে, রন দে, প্রাণ কৃষ্ণ দে, রুপন দে, দীপালী রাণী দে। সিপাহীরপাড়া আনচার, গফুর ও ড়ঢ়। এ সমস্ত এলাকায় প্রতিনিয়ত মাদক দ্রব্য বিক্রয় হচ্ছে। মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাবিবুর রহমান মাদক বন্ধ করার নির্দেশ দিলেও ক্যাশিয়ার সাইফুলের ইশারায় এ সমস্ত মাদকস্পটগুলো অব্যাহত রয়েছে। এ ব্যাপারে পৌরসভাস্থ গোরকঘাটা বাজার কমিটির সভাপতি আবু ছালেহ জানান প্রায় সময় মাদক সেবনকারীরা বাজারে এসে মাতলামি করার কারণে ব্যবসায়ীরা নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে। বাজারে আসা বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের ব্যঘাত হচ্ছে। দুই শতাধিক মুসল্লি গতকাল জোহরের নামাজের পর সাংবাদিকদের জানান পবিত্র রমজানকে সামনে রেখে মাদক ব্যবসায়ীরা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। আপনারা যদি একটু চেষ্টা করেন মুসলমানেরা পবিত্র রমজান মাসে শান্তিপূর্ণভাবে যাতায়াত করা যাবে। এ ব্যাপারে মহেশখালী পৌরসভার সনামধন্য মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া বলেন, আমি নিজেই প্রশাসনের মাধ্যমে মাদক বন্ধ করার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছি। কিন্তু কিছু স্বার্থন্বেষী মহলের কারণে মাদক বন্ধ করা যাচ্ছে না। দক্ষিণ হিন্দুপাড়ার ব্রাহ্মণ দুলাল কান্তি ভট্টাচার্য্যরে সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন কোন ধর্ম মাদক সেবন করার নিয়ম নেয়। কিন্তু কিছু স্বার্থপর লোকের কারণে ওপেন মাদকদ্রব্য বিক্রি হচ্ছে। আমি প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানায় এসমস্থ মাদকস্পটগুলি অচিরেই বন্ধ করার। নাম প্রকাশ অনিচ্ছুক মহেশখালী ডিগ্রী কলেজের এক প্রফেসার জানান, মাদক দ্রব্যের কারণে যুব সমাজ বিপদগামী হচ্ছে এবং কলেজে আসা যাওয়া ছাত্রছাত্রীদের ব্যঘাত সৃষ্টি হচ্ছে। এব্যাপারে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাবিবুর রহমান এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মাদক স্পটগুলো বন্ধ করার জন্য সকল অফিসারকে নির্দেশ দিয়েছি এবং মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ করার জন্য সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।
সংবাদ প্রেরক ঃ
মহেশখালীর সচেতন মহল

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT