টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

মসজিদে সিঁরনি দিমু

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০১৩
  • ১৪৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

36_imageমো. কামাল হোসেন, ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল): অফিস (রানাপ্লাজা) ফাটল ধরেছে। শ্রমিকরা ভয়ের মধ্যে আছে। মালিক পক্ষের নির্দেশ তবুও অফিসে যেতে হবে। নয় এ মাসের বেতন দিবেনা। আমি অফিসের পিএম। আমি না গেলে শ্রমিকরা কাজে যোগ দিবেনা। আগামী মাসে বেতন উত্তোলন করে বাড়ি ফিরবো। এ পাশ থেকে স্ত্রী আবদার করে তুমি আজ ছুটি নিয়ে বাসায়ই থাকো অফিসে যেয়োনা আমার ভয় করতাছে- সকাল সাড়ে ৮টায় স্ত্রী ময়নার সাথে মোবাইল ফোনে এভাবেই শেষ কথা হয় রানা প্লাজার চতুর্থ তলার নিউ ওয়েভ বটম কোম্পানীতে পিএম হিসেবে কর্মরত মো. কামাল হোসেন (৪০)। দুর্ঘটনার পর থেকে তার মোবাইল বন্ধ। স্বজনরা ঘটনটস্থলে গিয়েও তার কোন সন্ধান পাচ্ছেনা। টাঙ্গাইল জেলার ভূঞাপুর উপজেলার রাউৎবাড়ি গ্রামের ময়েন উদ্দিন সরকার মাধু ও লালভানু বেগমের কনিষ্ঠ পুত্র কামাল। চার ভাই দুই বোনের মধ্যে সে চতুর্থ। কামাল ২০০৬ সালের ২রা জুন ডিইপিজেড-এ সুপারভাইজার হিসেবে যোগদান করেন। মাস ছয়েক আগে তিনি সাভার রানা প্লাজায় নিউ ওয়েভ বটম কোম্পানীতে পিএম হিসেবে যোগ দেন। বুধবার রানা প্লাজা ধসের ঘটনার পর থেকে তার কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছেনা। এর আগে তিনি সকাল সাড়ে ৮টায় স্ত্রীর সাথে শেষ কথা বলেন। এঘটনায় কামালের বাড়িতে নেমে এসেছে শোকের কালো ছায়া। স্ত্রী ময়না বেগম দুই কন্যা সন্তান ৯ বছরের কাজল ও ১ বছরের সুমাইয়াকে জড়িয়ে ধরে বারবার মুর্ছা যাচ্ছেন। বড় মেয়ে কাজল বাবার ছবি বুকে নিয়ে তিন দিন ধরে শুধু কেঁদেই যাচ্ছে। তার কান্না যেন কিছুতেই শেষ হচ্ছেনা। অসুস্থ্য মা লালবানু ছেলের শোকে পাথর হয়ে গেছে। করছেন নানা ধরনের মানত । বার বার প্রলাপ করছেন আল্লাহ আমার পোলাডারে জিন্দা অবস্থায় আমার কোলে ফেরত দেও। ফিরা আইলে মসজিদে সিঁরনি দিমু।  মা, মেয়ে, স্ত্রী ও আত্মীয়স্বজনদের কান্নায় ভারি হয়ে উঠছে এলাকার বাতাস।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT