টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

প্রতিশোধের ম্যাচে মেক্সিকোর মুখোমুখি আজ ব্রাজিল …..

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৯ জুন, ২০১৩
  • ১৫২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

থিয়াগো সিলভার মতো মার্সেলোরও একই দাবি—‘প্রতিশোধ’ শব্দটা তাঁদের মাথায়ই নেই।
লন্ডন অলিম্পিকের ফাইনালে মেক্সিকোর কাছে সেই হারের স্মৃতি নাকি পেছনে ফেলে এসেছে ব্রাজিল!
ভুল কথা। সিলভা-মার্সেলো পেছনে ফেলে আসতে পারেন, কিন্তু ব্রাজিল নয়। তাঁরা প্রতিশোধ না চাইলেও ব্রাজিল চায়, সমর্থকেরা চান। আজ রাতে কনফেডারেশনস কাপের গ্রুপ পর্যায়ে মেক্সিকোর সঙ্গে ম্যাচটাতে বাড়তি মাত্রা যোগ হয়েছে এখানেই। ব্রাজিলের জন্য এই ম্যাচ যতটা না জিতে সেমিফাইনালে উঠে যাওয়ার সিঁড়ি, তার চেয়ে বেশি ওয়েম্বলিতে ওই পরাজয়ের প্রতিশোধ নেওয়ার।
ব্রাজিল জিতলেই সেমিফাইনালে। মেক্সিকোর জয় কিংবা ড্র ‘এ’ গ্রুপের সমীকরণটা একটু জটিল করে দেবে। কিন্তু মুখোমুখি লড়াইয়ের সাম্প্রতিক ইতিহাসটা একটু ঝাঁজালো বলেই সেসব নিয়ে এত বেশি কথা হচ্ছে না, যতটা হচ্ছে ‘প্রতিশোধ’, ‘বদলা’ এসব নিয়ে। তাহলে ফিফা ডটকমের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে মার্সেলো প্রসঙ্গটা এড়িয়ে যেতে চাইলেন কেন? কারণ হতে পারে একটাই, ঘোষণা দিয়ে প্রতিশোধ নিতে যাওয়াটা পুরো দলকে বাড়তি একটা চাপে ফেলে দিতে পারে। ওয়েম্বলির ওই অলিম্পিক ফুটবল ফাইনাল নিয়ে ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার তাই বলেছেন, ‘হ্যাঁ, আমার ম্যাচটার কথা মনে আছে। শুধু ফুটবলারদের জন্য নয়, পুরো ব্রাজিলের জন্যই সেটা ছিল দুঃখের দিন। কিন্তু সে হার এখনো কাঁটা হয়ে গলায় আটকে আছে, এমন নয়। এটাকে তাই প্রতিশোধের ম্যাচ বলার কোনো কারণ নেই।’ প্রায় একই রকম কথা থিয়াগোরও। পেশাদারিত্বের আড়ালে হয়তো ওয়েম্বলির সেই দুঃখময় বিকেলের অনুভূতি লুকিয়ে রাখছেন নেইমারও। তবে সে হারের ঘা যে এখনো শুকায়নি, সেটা টের পাওয়া যাচ্ছে ব্রাজিল কোচ লুই ফেলিপে স্কলারির কথাতেই, ‘মেক্সিকোকে নিয়ে আমাদের সতর্ক থাকতেই হবে এবং চেষ্টা করতে হবে এ বাধা পেরিয়ে যাওয়ার। কয়েক বছর ধরেই ওরা আমাদের খুব ভোগাচ্ছে।’ লন্ডন অলিম্পিক ফাইনালের পর গত বছর দুই দলের সর্বশেষ দেখায়ও যে ব্রাজিল ২-০ গোলে হেরেছিল, বোঝাই যাচ্ছে স্কলারি তা ভোলেননি।
মেক্সিকোর আত্মবিশ্বাসের জায়গা সেটাই। হতে পারে শক্তিতে পিছিয়ে, ফর্মটাও ভালো যাচ্ছে না। কিন্তু ব্রাজিলের বিপক্ষে মাঠে নামলেই মেক্সিকো কীভাবে যেন অন্য দল হয়ে যায়! ইতালির সঙ্গে ২-১ গোলে হার দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করলেও আজ তাই সেই অন্য মেক্সিকোকে দেখা যাওয়ার আগাম আভাস দিলেন কোচ হোসে ম্যানুয়েল দে লা তোরে, ‘আগের ম্যাচে আমরা ভালোই খেলেছি, তবে কিছু কিছু ভুল শোধরাতে হবে। আশা করছি, ব্রাজিলের বিপক্ষে সেগুলো আর হবে না।’ তথ্যসূত্র: এএফপি ও ফিফা ডটকম।

ব্রাজিল-মেক্সিকো
৩৭ বার মুখোমুখি হয়ে ব্রাজিল জিতেছে ২১ বার, মেক্সিকোর জয় ১০ ম্যাচে।
সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়ও ব্রাজিলের। ১৯৫৪ বিশ্বকাপ ও ১৯৯২ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রীতি ম্যাচে ৫-০ গোলে।
লন্ডন অলিম্পিকের ফাইনালে খেলেছেন, এমন ১৪ জন আছেন কনফেডারেশনস কাপের ব্রাজিল ও মেক্সিকো দলেও। এর মধ্যে আটজন মেক্সিকান, ছয়জন ব্রাজিলিয়ান।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT