টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

বিশ্বনবী (সঃ)র আহবান, গাছ লাগান পুণ্য বাড়ান

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৬
  • ১৩১৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

মুহাম্মদ কিফায়তুল্লাহ শফিক = রহমাতুল লিল আলামীন হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা (সাঃ) এর হাদীস শরীফ থেকে বুঝা যায়, ফলদায়ক গাছ রোপন করা এবং ফলদার বীজ বপন করা মুসলমানের জন্য অতীব গুরুত্ব পূর্ণ ইবাদত ৷রোজ কিয়ামত পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে এই আমলের প্রতিদান ৷ এমন কি যা চুরি হয়ে গেছে অথবা কোন প্রাণী ভক্ষণ করেছে তাতেও ছদকাহ’র ছাওয়াবের কথা উল্লেখ রয়েছে পবিত্র হাদীস শরীফে ৷ শারেহুল হাদীস ইমাম নববী (রহঃ) বলেন নির্ভরযোগ্য হাদীস শরীফ মতে একটি গাছের বদলে ক্বিয়ামত পর্যন্ত ছদক্বাহ’র ছাওয়াব অব্যাহত থাকবে, এটা ক্বিয়ামত পর্যন্ত উক্ত গাছের বংশ বাঁচিয়ে রাখার মাধ্যমেও হতে পারে ৷ উক্ত গাছ দ্বারা উপকৃত বস্তুর ধারাবাহিকতা টিকিয় রাখার মাধ্যমেও হতে পারে৷ যে ভাবেই হোক, পৃথিবীর যে কোন স্থানে একটি মাত্র গাছ রোপন কিংবা বীজ বপন করার কারণে ক্ববরে যাওয়ার পরেও রোপণকারী আর বপনকারী উভয়ের আমল নামায় ক্বিয়ামত পর্যন্ত অব্যাহত ছদক্বাহ’র ছাওয়াব লিপিবদ্ধ হতে থাকবে আল্লাহ তা’আলার হুকুমে ৷পক্ষান্তরে দুনিয়ার লোভ-লালসায় আসক্ত হয়ে মানবজাতি আর জিনজাতি মহাপ্রভু আল্লাহ তা’আলাকে ভূলে গেলেও সর্বপ্রকারের গাছ-গাছালি ওক্ষেত-ফসল সহ অন্যসব মাখলূক স্বীয় স্রষ্টা আল্লাহ তা’আলার স্মরণে মগ্ন থাকে সদা-সর্বক্ষণ ৷ সুবহানাল্লাহ! আল্লাহ তা’আলার কতো মেহেরবানী ! বান্দাহ’র লাগানো গাছপালা আল্লাহ তা’আলার স্মরণে নিয়মিত তাসবীহ করতে থাকে ৷ অপরদিকে ভারী হতে থাকে রোপণকারী বান্দাহ’র গর্বিত আমলনামা ৷ হায় মানব! মহা মূল্যবান কতো সময় ও সম্পদ আমরা অপচয় করে ফেলি ৷ আল্লাহ তা’আলার দেয়া জীবন থেকে সামান্য সময় ও অর্থ খরচ করে মাসিক একটা করে যদি গাছ লাগায় বছরে বারোটি ছদক্বায়ে জারিয়াহ’র রাস্তা খুলে যায় ৷ ‘তাহলে বিশ বছরে কতো হবে? ‘ ‘দুইশো চল্লিশটি ছদক্বায়ে জারিয়াহ ৷’কোন মুসলমান যদি তেষট্রি বছর বয়সে মৃত্যূ বরণ করে, আনুমানিক তের বছর বাদ দিলে পঞ্চাশ বছরের কর্মজীবনে ছয়শোটি ছদক্বায়ে জারিয়াহ’র লাইন চালু করে মরতে পারে একজন আল্লাহ প্রেমিক সচেতন মুসলমান ৷ আয় আল্লাহ! সমস্ত মুসলমান কে সর্বাধিক পূণ্যময় কাজ করে আপনার সন্তুষ্টি অর্জন করার তাওফীক দান করুন -আমীন ৷ ওলামা-ই-কিরাম লিখেছেন, বিভিন্ন হাদীস শরীফ দ্বারা পরিষ্কার হয়ে গেছে যে, কোন মুসলমান যদি নিজ প্রয়োজন কিংবা পরিবার-পরিজনের আয়-উন্নতির জন্য গাছ লাগায় আল্লাহ তা’আলা তাকেও এই ছদক্বাহ’র ছাওয়াব প্রদান করবেন ৷এতে অবাক হওয়ার কোন কারণ নেই ৷কেননা আল্লাহ পাক সুবহানাহু ওয়া তা’আলা অসীম -অফুরন্ত মেহেরবানী ও করুণার মালিক ৷ হদীস শরীফে বর্ণিত আছে যে, হযরত জাবির বিন আব্দুল্লাহ (রঃ) বলেন, হুযুরে পাক (সঃ) একদা উম্মে মা’বাদ এর বাগানে প্রবেশ করে জিজ্ঞেস করলেন, “হে উম্মে মা’বাদ !এই বৃক্ষ কে রোপণ করেছে? মুসলমান না কাফির ? সে বলল, মুসলমান ৷ তিনি বললেন কোন মুসলমান যদি কোন বৃক্ষ রোপণ করে আর তা থেকে মানুষ কিংবা চতু্ষ্পদ জীব অথবা পাখি কিছু ভক্ষণ করে তবে রোজ ক্বিয়ামত পর্যন্ত তা তার জন্য দান স্বরূপ গণ্য হতে থাকবে ৷” (মুসলিম শরীফ) অন্য হাদীসে আছে যে,হযরত জাবির (রঃ) থেকে বর্ণিত ৷ হুযুর (সঃ) বলেন, “যে কোন মুসলমান ফলদার বৃক্ষ রোপণ করবে তা থেকে যা কিছু খাওয়া হয় তাতে ছদক্বাহ’র ছাওয়াব হবে ৷ যা কিছু চুরি হয় তাতেও ছদকাহ’র ছাওয়াব হবে ৷ বন্য‌ জীব-জন্তু যা খেয়ে ফেলে তাতেও ছদক্বাহ’র ছাওয়াব হবে ৷ পাখিরা যা খায় তাতেও ছদক্বাকাহ’র ছাওয়াব হবে ৷ আর অন্য লোকেরা যা কিছু নিয়ে যায় তাতেও ঐ বৃক্ষ রোপণকারীর জন্য ছদক্বার সওয়াব হবে ৷ (মুসলিম শরীফ)” উল্লেখ্য যে,গাছ-গাছালির ছদক্বাহ ক্বিয়ামত পর্যন্ত জারী থাকবে এই কথা যে হাদীস শরীফে বর্ণিত হয়েছে উক্ত হাদীস শরীফে ফলদার গাছের কথাই বলা হয়েছে ৷ এই জন্য এখানেও ফলদার গাছের কথা উল্লেখ করা হলো ৷ অন্যথায় যে কোন গাছের বিনিময়েও ছদক্বাহ’র ছাওয়াব পাওয়া যাবে ৷

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT