টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

বিদেশী লবণ আমদানীর পায়তারা বন্ধ করার দাবী জানিয়েছেন জেলার চাষীরা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ৮ জুলাই, ২০১৩
  • ১১৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

Moheshkhali Pic- 08-07-2013মোহাম্মদ সিরাজুল হক সিরাজ,মহেশখালী::: বর্তমানে ককসবাজার জেলা থেকে লবণ রপ্তানী সম্ভব। লবণ দেশের চাহিদা পূরণে সম্পূর্ণ বাস্তব সত্য। বিদেশী লবণ আমদানীর পায়তারা চিরতরে বন্ধ করার দাবী জানিয়েছে জেলার লবণ চাষীরাই। এই বৎসর কক্সবাজার জেলার আবহাওয়া অনুকূল থাকার কারণে নজির বিহীন লবণ বাস্তবেই উৎপাদন হয়েছে। যাহা বিগত দিনে পত্র পত্রিকাতে প্রকাশিত হয়েছে। কক্সবাজারের মহেশখালী, কুতুবদিয়া, টেকনাফ, কক্সবাজার, চকরিয়া, পেকুয়াতে ৫০ বৎসরের ইতিহাসে নজির বিহীন লবণ উৎপাদন হয়েছে। এখন বর্ষা আসার সাথে সাথে হাজারে হাজার মণ লবণ, লবণ মাঠের গর্তে ভর্তি আছে। তাছাড়া লবণের সওদাগরেরা কোটি কোটি টাকার লবণ ক্রয় করে গুদামজাত করে রেখেছে। এর পরেও প্রতিটি লবণের আরতে হাজার হাজার মণ লবণ মজুদ আছে। এই লবণ বাংলাদেশের প্রায় অনুমান ৫ বৎসর লবণ উৎপাদন না করলেও কোন ধরনের দেশে লবণের ঘাটতি হবে না। কিন্তু মহেশখালীর, পেকুয়ার, কুতুবদিয়ার, কক্সবাজারের, টেকনাফের হাজার হাজার লবণ চাষীদের সহিত যোগাযোগ আলোচনা কথাবার্তা বলে জানা যায়, বিদেশ থেকে নাকি লবণ আমদানী করিতেছে। কক্সবাজার জেলার প্রকৃত ৮৭ হাজার লবণ চাষী আছে। তাদের ভাগ্যে কি ঘটবে, দেশের অর্থনীতি ধ্বংসপ্রাপ্ত হবে। কক্সবাজার জেলার প্রথম কাতারের জাতীয় সম্পদ লবণ চাষ এবং উৎপাদন এ জেলায় শতকরা ৪৭ জন লবণ চাষের সহিত জড়িত। কি উদ্দেশ্যের উপরে বিদেশ থেকে লবণ আমদানী  করবে এদেশের মানুষ জানতে চায়। এদেশীয় কোটি কোটি মণ লবণ মজুদ থাকার পরও বিদেশের লবণ আমদানী কক্সবাজার জেলার সাথে অর্থনৈতিকভাবে পঙ্গু করার ষড়যন্ত্র বলে মনে করছেন এদেশের সচেতন মহল, বুদ্ধিজীবিরা। তাই হাজার হাজার লবণ চাষীরা বিদেশ থেকে চিরতরে লবণ আমদানী বন্ধ করার জোর দাবী জানিয়েছে। এসব লবণ চাসীরা হলেন, ১। মহেশখালীর লবণ চাষীরাই, ২। কুতুবদিয়ার লবণ চাষীরাই, ৩। পেকুয়ার লবণ চাষীরাই, ৪। টেকনাফের লবণ চাষীরাই, ৫। কক্সবাজারের লবণ চাষীরাই, ৬।

 

চকরিয়ার লবণ চাষীরাই।শিবির সভাপতির পিতার মৃত্যুতে মহেশখালী শিবিরের শোক প্রকাশ
আব্দুর রহিম:::বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির মহেশখালী উপজেলা দক্ষিণ শিবির সভাপতি এম. ওমর আলীর পিতা কাশেম আলী (৮৫) মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন মহেশখালী উপজেলা দক্ষিণ ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারী আব্দু রহিম, অর্থ সম্পাদক আলিম উদ্দিন সহ উপজেলা ও উপশাখার নেতৃবৃন্দ। তিনি চকরিয়া উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের মজিদিয়া পাড়ার অধিবাসী। মৃত্যুকালে তিনি ৪ ছেলে ও ৪ মেয়ে সহ অসংখ্যা গুণগ্রাহী  রেখে গেছেন। বিবৃতিতে তারা বলেন ছাত্রশিবিরের ক্রান্তিকাল মূহুর্তে আদর্শবান পিতাকে হারিয়েছে। তারা শোক সন্তক্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।
এদিকে বিবৃতি দিয়েছেন মহেশখালী উপজেলা জামায়াতের নায়েবে আমির মৌলানা বদিউল আলম, ডাঃ আব্দুল আজিজ, সেক্রেটারী মাষ্টার শামীম ইকবাল, মৌলানা সিরাজুল হক, শ্রমিক নেতা মৌলানা আমির খসরু সহ উপজেলা ও ইউনিয়নের অন্যান্য জামায়াত নেতৃবৃন্দ।

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT