টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিলেন ২ নারী,প্রথম হয়েছে ১৩ বছরের সাঁতারু রাব্বি ১০ দিনের মধ্যে রোহিঙ্গাদের প্রথম দল ভাসান চরে যাচ্ছে ‘ চকরিয়ায় সৌদিয়া বাসে ডাকাতির ঘটনায় ৬ ডাকাত আটক : বন্দুক ও লুল্টিত মালামাল উদ্ধার টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিল ৪৩ সাঁতারুঃ প্রথম পৌঁছেন ১৩ বছরের রাব্বি ওষুধ ছিটিয়ে রোদে শুকালেই টকটকে লাল হয়ে যাচ্ছে সবুজ টমেটো তিন মাস পর আবারও একদিনে শনাক্ত আড়াই হাজার ছাড়ালো আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়ল রোহিঙ্গা, ইসলামোফোবিয়া ও ফিলিস্তিন ইস্যুতে ওআইসি’র পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের উদ্বেগ নেটং পাহাড়ে ৮০ বছরের বাঙ্কার- দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের স্মারক মোঃ আমিন আর নেই:টেকনাফ সাংবাদিক ইউনিটি ও মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের শোক

নয় মাসে আফগানিস্তানে হতাহত ৬ হাজার বেসামরিক: জাতিসংঘ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ১২৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

চলতি বছরের প্রথম নয় মাসে আফগানিস্তানে প্রায় ৬ হাজার বেসামরিক নাগরিক হতাহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

মূলত তালেবান বিদ্রোহীদের সঙ্গে সরকারি বাহিনীগুলোর তীব্র লড়াইয়ে এসব হতাহতের ঘটনা ঘটেছে বলে মঙ্গলবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিশ্ব সংস্থাটি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, শান্তি প্রচেষ্টার উদ্যোগ সত্ত্বেও এ সময়টিতে বিদ্রোহীদের তৎপরতা বেড়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ইউএন অ্যাসিসট্যান্স মিশন ইন আফগানিস্তানের (ইউএনএএমএ) ওই প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত নয় মাসে দেশটিতে ৫ হাজার ৯৩৯ জন হতাহত হয়েছেন, এদের মধ্যে ২ হাজার ১১৭ জন নিহত ও ৩ হাজার ৮২২ জন আহত।

“বেসামরিকদের ওপর ধ্বংসাত্মক প্রভাব বিস্তারি উচ্চ মাত্রার সহিংসতা অব্যাহত আছে, আফগানিস্তান এখনও বেসামরিকদের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে প্রাণঘাতী স্থানগুলোর মধ্যে রয়েছে,” ত্রৈমাসিক প্রতিবেদনে বলেছে মিশনটি।

গত বছরের একই সময়ের তুলনায় এবার হতাহতের সংখ্যা ৩০ শতাংশ কম হলেও ইউএনএএমএ বলছে, গত মাসে কাতারের রাজধানী দোহায় সরকারি ও তালেবান মধ্যস্থতাকারীদের মধ্যে আলোচনা শুরু হওয়ার পরও সহিংসতা কমেনি।

বেসামরিক হতাহতের ৪৫ শতাংশ ঘটনার জন্য তালেবান, ২৩ শতাংশের জন্য সরকারি সেনারা এবং ২ শতাংশের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বাহিনী দায়ী বলে জানিয়েছে তারা।

অবশিষ্ট অধিকাংশ হতাহতের ঘটনা দুই পক্ষের গোলাগুলির মাঝে পড়ে যাওয়ার কারণে অথবা ইসলামিক স্টেটের (আইএস)জঙ্গিদের কারণে বা ‘অনির্ধারিত’ সরকারবিরোধী অথবা সরকারপন্থি বিভিন্ন উপদলের হামলার কারণে ঘটেছে, বলছে তারা।

হতাহতের অধিকাংশ ঘটনা ঘটেছে স্থলযুদ্ধে, এরপর আত্মঘাতী ও রাস্তার পাশে পেতে রাখা বোমা হামলায়, তারপর তালেবানের পূর্বপরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডে এবং আফগান বাহিনীর বিমান হামলায়, বলেছে জাতিসংঘ মিশন।

সম্প্রতি আফগানিস্তানের বিভিন্ন অংশে লড়াই তীব্র হয়ে উঠেছে যখন দোহায় সরকারি ও তালেবান মধ্যস্থতাকারীরা শান্তি আলোচনায় অগ্রগতি তৈরিতে ব্যর্থ হচ্ছে।

এসব লড়াইয়ে দুই পক্ষেই হতাহতের সংখ্যা বেশি হচ্ছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের টুইন টাওয়ারে হামলার কয়েক সপ্তাহের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বাহিনী আফগানিস্তানের ক্ষমতা থেকে তালেবানকে উচ্ছেদ করে। তারপর থেকে গত ১৯ বছর ধরে দেশটিতে লড়াই চলছে। এই লড়াই শেষ করার লক্ষেই দোহায় শান্তি আলোচনা শুরু করা হয়।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT