টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

নৌবাহীনি কর্তক আটক ৩৬ জনকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ!

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ২ জানুয়ারি, ২০১৩
  • ১০৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

জেড করিম জিয়া, টেকনাফ …
সাগরপথে অবৈধ ভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে সেন্টমার্টিনের অদূর থেকে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর হাতে ট্রলারসহ আটক হওয়া ৪৬ জন যাত্রীর মধ্যে ৩৬ জনকে গভীররাতে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। বাকী ১০ জনকে ২৮ ডিসেম্বর কক্সবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে ।
গত ২৭ ডিসেম্বর বৃহষ্পতিবার বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে সেন্টমার্টিনে অদূরে নৌবাহিনীর হাতে আটক ৪৬ মালয়েশিয়াগামী যাত্রীকে কোস্টগার্ডের হাতে তুলে দেয়। পরে টেকনাফ কোস্টগার্ড ষ্টেশনের সাদেকুল ইসলাম বাদী হয়ে আটককৃতদের টেকনাফ থানায় সোপর্দ করে মামলা রুজু করে। যার নং ২৮ তারিখ ২৭/১২/১২। তখন থেকে সাবরাং এলাকার কয়েক জন চিহ্নিত দালাল আটক কৃতদের আত্বীয় স্বজনদের কাছ থেকে ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা হারে নিয়ে পৃথক পৃথক ভাবে পুলিশ এজাহার নামীয় ১ থেকে ৩৬ নং পর্যন্ত আসামীকে ছাড়িয়ে দিয়েছে। ৩৭ থেকে ৪৬ পর্যন্ত মিয়ানমারের নাগরিকসহ মোট ১০ জনকে কক্সবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে নানান আলোচনা ও সমালোচনা চলছে । স্থানীয় সচেতন মহল মনে করেন, যারা অবৈধভাবে মালয়েশিয়া পাড়ি দিতে গিয়ে প্রশাসন কর্তৃক আটক হচ্ছে, তাদেরকে থানা পুলিশ দেনদরবারের মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়ার নতুন কৌশল হিসেবে বেছে নিয়েছে সরকার কর্তৃক ২০১২ সালে মানব পাচারের আইনে বলা হয়েছে দালালের খপ্পরে পড়ে প্রতারিতদের ভিকটিম হিসেবে চিহ্নিত করে আইনের সহায়তা দানের কথাটি উল্লেখ রয়েছে। আইনটি প্রনয়ন করা হয়েছে, যারা বৈধ উপায়ে পাসপোর্ট নিয়ে বিদেশ যাত্রা করে।  কিন্তু টেকনাফ হয়ে সাগরপথে যারা অবৈধভাবে মালয়েশিয়া পাড়ি দিতে গিয়ে বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থা কর্তৃক আ্টক হয়ে থানা পুলিশের হেফাজতে যাচ্ছে, তারা কোনভাবেই ঐ আইনের আওতায় পড়তে পারে না। কেননা, এসব যাত্রীরা জেনে শুনে আইনকে ফাঁিক দিয়ে অবৈধ উপায় অবলম্বন করছে। এরা কোনভাবেই ভিকটিম হতে পারে না। থানা পুলিশ এসব আটককৃতদের ভিকটিম সাজিয়ে চিহ্নিত দালালদের সাথে দেনাদরবার করে ছেড়ে দেওয়ায় পাচার কার্যক্রম কোনক্রমেই থামবে না বলে মত প্রকাশ করেন। অথচ এর মধ্যে যারা পুলিশকে টাকা দিতে ব্যর্থ হচ্ছে অথবা যাদের ব্যাপারে তদবির করার কেউ নেই তাদের দালালের অপবাদ নিয়ে কারাভোগ করতে হচ্ছে।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা টেকনাফ মডেল থানার এসআই মোঃ আনোয়ারের (০১৮১৫৩৪৯৫২৮) কাছে ৩৬ জনকে ছেড়ে দেওয়ার বিষয়ে কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আটককৃতদের ভিকটিম করে আতœীয় স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT