টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

দূরপাল্লার বাস বন্ধ বিভিন্ন জেলায়

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ৪ মে, ২০১৩
  • ১৫৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

কয়েকটি জেলায় মালিক-শ্রমিক সংগঠন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। তবে বিএনপি ও হেফাজতের অভিযোগ, তাদের কর্মসূচি ‘বানচালে’ সরকারের মদদে বাস বন্ধ করা হয়েছে।

শনিবার বিকালে ঢাকায় বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮Bus-Strike-tm দলের সমাবেশ রয়েছে। পরদিন ঢাকা অবরোধের কর্মসূচি রয়েছে হেফাজতের।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের বাগেরহাট প্রতিনিধি জানান, নসিমন, করিমনসহ অবৈধ সব যান বন্ধের দাবিতে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের আটটি সংগঠনের ডাকে জেলায় বাস ধর্মঘট দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে।

শুক্রবার ভোর থেকে শুরু হওয়া এই ধর্মঘটের কারণে দূরপাল্লার সব বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।এতে দুর্ভোগে পড়েছে যাত্রীরা।

বাগেরহাট আন্তঃজেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খান মনির হোসেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, দাবি পূরণের আশ্বাস বার বার দেয়া হলেও তার বাস্তবায়ন না হওয়ায় ধর্মঘট ডেকেছেন তারা।

বাগেরহাটের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় বলেন, ধর্মঘটীদের সঙ্গে আলোচনার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি জানান,টাঙ্গাইলের বাস মালিকদের সঙ্গে দ্বন্দ্বের কারণে সিরাজগঞ্জে মালিক-শ্রমিক সংগঠনের ডাকে ধর্মঘট দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে।

সমস্যার সমাধানে দুপুরে সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয়ে দুই জেলার বাস মালিক ও শ্রমিক নেতাদের বৈঠকের কথা রয়েছে।

সিরাজগঞ্জ-রাজশাহী ও টাঙ্গাইল-রাজশাহী এই দুই রুটের বাস চলাচল নিয়ে দুই জেলার মালিক-শ্রমিকদের দ্বন্দ্ব রয়েছে। বুধবার রাজশাহীতে ওই দুটি বাসের শ্রমিকদের মধ্যে মারামারি হয়।

এরপর ঢাকাগামী সিরাজগঞ্জের বাসগুলোকে টাঙ্গাইলে আটকে দেয় ওই জেলার মালিক-শ্রমিকরা। এর পর শুক্রবার ধর্মঘট শুরু করে সিরাজগঞ্জের মালিক-শ্রমিকরা।

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানান, নসিমন, করিমনসহ অবৈধ যান চলাচল বন্ধের দাবিতে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ডেকেছে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক ঐক্য পরিষদ।

সাতক্ষীরা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি সাইফুল করিম সাবু বলেন, এর আগে কয়েকবার একই দাবিতে বাস মালিক সমিতি ও শ্রমিকরা ধর্মঘট ও বিভিন্ন কর্মসূচি দিলেও প্রশাসন কার্যত কোনো পদক্ষেপ নেয়নি বলেই এই কর্মসূচি।

সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মো.আসাদুজ্জামান জানান, বিষয়টির সমাধানে পরিবহন মালিক সমিতির সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন তারা।

ধর্মঘটের কারণে সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার কোন বাস ছেড়ে যাচ্ছে না। সাধারণ যাত্রীরা পড়েছে চরম বিপাকে।

বেনাপোল প্রতিনিধি জানান,শনিবার সকাল থেকে বেনাপোল থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ থাকলেও দুপুর থেকে চালু হয়েছে।

ঈগল পরিবহনের বেনাপোল কার্যালয়ের প্রধান এম আর রহমান রাশু বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন,মালিক পক্ষের নির্দেশে বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়।

বাস বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েন ভারত থেকে আসা শত শত যাত্রী। সকালে অনেকে মাইক্রোবাস ভাড়া করে গন্তব্যে রওনা হন।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT