টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফ প্রকৃতিপ্রেমীদের রিকসা অভিযাত্রা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩
  • ২২৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

শাহীনশাহ…..teknaf pid(wild)-18.02সুন্দরবন ও বাঘ রক্ষায় টেকনাফ থেকে সুন্দরবন পর্যন্ত রিকসা চালিয়ে ৪০০ কিঃমিঃ পথ অতিক্রমের ব্যাতিক্রমী অভিযাত্রা শুরু করেছেন ৮দেশের ২০ প্রকৃতিপ্রেমী। ডেয়ার টু কেয়ার ফর টাইগার্স শিরোনামে বাংলাদেশী প্রকৃতি সংরক্ষণ সংস্থা ওয়াইল্ডটিম “ওয়াইল্ড রিকসা চ্যালেঞ্জ” নামে এ কর্মসূচীর আয়োজন করেছে। ১৮ ফেব্রুয়ারী সোমবার সকাল সাড়ে ৮টায় টেকনাফ সী-বীচের সেন্ট্রাল রিসোর্ট থেকে ৯টি রিকসাযোগে এ রিকসা যাত্রা শুরু হয়। ২০ অভিযাত্রীর মধ্যে বাংলাদেশে নিযুক্ত ডেনমার্কের রাস্ট্রদূত স্ফেন্ড অলিংও ও তার ছেলে ও রয়েছেন। এরা ১০ দিন রিক্সা চালিয়ে ৪শ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে আগামী ২৭ ফেব্র“য়ারী সুন্দরবন পৌছবেন। বাঘ ও সুন্দরবন সংরক্ষণ ও রক্ষায় সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ব্যাতিক্রম কর্মসূচী। প্রকৃতি ও জীববৈচির্ত্র্য সংরক্ষণের উদ্যোগ বাংলাদেশে এই প্রথম। দেশ-বিদেশে বাঘ ও সুন্দরবন রক্ষার পাশাপাশি দেশি প্রকৃতি সংরক্ষণ কাজে সহযোগিতা করবেন। দেশের সমৃদ্ধ প্রাকৃতিক ঐতিহ্যকে বাঁচিয়ে রাখতে বাঘ ও তার প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষায় প্রকৃতি প্রেমী প্রতিযোগীরা সবাই এক হয়েছেন এই চ্যালেঞ্জে।
এ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলন রবিবার বিকাল ৫টায় টেকনাফ সী-বীচের সেন্ট্রাল রিসোর্টে অনুষ্ঠিত হয়। এতে অভিযাত্রার লক্ষ উদ্দেশ্য নিয়ে বক্তব্য রাখেন ওয়াইল্ড রিকসা চ্যালেঞ্জ এর অন্যতম প্রতিযোগী ডেনিস রাষ্ট্রদূত স্ফেন্ড অলিংও, ওয়াইল্ড টীমের ডিরেক্টর লুসি বড্যাম, রিজেন্ট এয়ারওয়েজ এর সিইও ইমরান আসিফ ও ওয়াইল্ডটীম এর কো-অর্ডিনেটর তানভীর হোসাইন। এতে উপস্থিত ছিলেন অভিযাত্রায় অংশগ্রহনকারী দেশী বিদেশী ২০ প্রতিযোগী।
রিক্সা চ্যালেঞ্জের অন্যতম প্রতিযোগী বাংলাদেশে নিযুক্ত ডেনমার্ক রাষ্ট্রদূত স্ফেন্দ অলিং বলেন, “বিগত শতক জুড়ে পৃথিবী ব্যাপী প্রায় ৯৭% বাসস্থান ধ্বংসের ফলে বাঘের বিভিন্ন পণ্যের আন্তর্জাতিক চাহিদার জন্যই বাঘ এখন বিপন্ন। আমি বিশ্বাস করি বাঘের সুনিশ্চিত ভবিষ্যৎ রক্ষায় যথাযথ পদক্ষেপ নেয়ার এখনি উপযুক্ত সময়। তাই প্রকৃতির এই রাজকীয় সৌন্দর্যের অধিকারী প্রাণীটিকে রক্ষায় এখনই আমাদের ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে”।
ওয়াইল্ডটিমের ডিরেক্টর লুসি বড্যাম-উইথাম বলেন -“ওয়াইল্ড রিক্সা চ্যালেঞ্জ উচ্চাকাঙ্খী তীর্থযাত্রার মতন-এই উদ্যোগ প্রথম। সুন্দরবন ও তার গৌরব বাঘকে বাঁচানোর জন্য এটা একটি মহাকাব্যিক অভিযান। আমরা চাই সবাই আমাদের সাথে যোগ দিক যার যার মত করে এই উদ্যোগকে সমর্থন করুক”। এ চ্যালেঞ্জ পুরো পৃথিবীর মানুষকে প্রকৃতির জন্য ভালবাসার এক সুতোয় বাঁধতে সক্ষম হবে এবং বাঘ সংরক্ষণের সাথে জড়িত হতে চায় এমন মানুষদের জন্য পাথেয় হবে বলে মনে করেন অভিযাত্রীরা।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT