টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :

টেকনাফে ১৪৪ ধারা অব্যাহত.. পৃথক মামলায় আসামী-৬৫৩.. আরো ৮ জন আটক

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২ অক্টোবর, ২০১২
  • ১১৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

রমজান উদ্দিন পটল, ….টেকনাফ হোয়াইক্যং এর ঘটনায় জামায়াত নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান নূর আহাম্মদ আনোয়ারীকে প্রধান আসামী করে মামলা করা হয়েছে। পুলিশ দুইদিনে ৩১ আসামী আটক করে। অজ্ঞাতসহ ৬৫৩ জনের বিরুদ্ধে থানায় পৃথক মামলা করে পুলিশ ও ক্ষতিগ্রস্থ বাড়ীর মালিক।
ফেইসবুকে ইসলাম ধর্মকে অবমাননা ও ইসলাম বিদ্বেষী ছবি পোস্ট করায় হোয়াইক্যংয়ে রবিবার সন্ধ্যায় বড়–য়া ও হিন্দু পল¬ীতে হামলা ও অগ্নিসংযোগ ঘটায়। এ ঘটনায় হোয়াইক্যং পুলিশের এএসআই মাহফুজ বাদী হয়ে ৭০ জন এজাহার নামীয় আসামীসহ অজ্ঞাত ২/৩ শত লোককে আসামী করে। এ মামলায় পুলিশ সোমবার গভীর রাতে ৮ আসামী আটক করে। এরা হচেছ, হোয়াইক্যং এলাকার আমির হোসন, শামিম, উমর ফারুক, সোহেল, মোঃ ইউসুফ, আবুল হাশেম, আব্দুল গফুর ও মোঃ শাহেদ। আটককৃতদের মঙ্গলবার সকালে পুলিশ হেফাজতে কক্সবাজার আদালতে প্রেরন করা হয়। এ মামলায় রবিবার গভীর রাত ও সোমবার সকালে পুলিশ ২৩ জনকে আটক করে আদালতে প্রেরন করে। এ দুইদিনে ৩১ আসামী আটক করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। এছাড়া জোয়ারী খোলার ক্ষতিগ্রস্থ বাড়ীর মালিক সাধন মল¬ীক বাদী হয়ে হোয়াইক্যং ইউপি চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা নূর আহাম্মদ আনোয়ারীকে প্রধান আসামী করে ৩৩ জন এজাহার নামীয় আসামী ও অজ্ঞাত ২ থেকে আড়াই শত লোককে আসামী করে মামলা করেছে। এ মামলার আসামী ধরতে পুলিশ এলাকায় অভিযান অব্যাহত রাখে।
এদিকে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন মঙ্গলবার বিকাল ৩ টায় এক জরুরী আইন শৃংখলা সভা আহবান করেছে। তবে এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত এলাকায় ১৪৪ ধারা বলবৎ রয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ আদেশ অব্যাহত থাকবে। সহিংস ঘটনা এড়াতে, আইন শৃংখলা অবনতি না ঘটতে ও লোকজন যাতে সংঘবদ্ধ হতে না পারে সে জন্য ১লা অক্টোবর সোমবার দুপুর ১২ টা থেকে ১৪৪ ধারা জারী করে। তাছাড়া টেকনাফের ১২টি ক্যং ও মন্দিরেও বিশেষ নজরদারীও বৃদ্ধি করা হয়েছে বলে জানায় উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা মোঃ শামসুল ইসলাম। এখনো এলাকায় থমথম অবস্থা বিরাজ করছে। অতিরিক্ত পুলিশ-বিজিবি মোতায়েন ও টহল অব্যাহত আসে।
ক্ষতিগ্রস্থ সাধন মলি¬ক জানায়, ক্ষুব্ধ জনতা আমাদের বাড়ী-ঘরে হামলা চালায়। এ সময় চেয়ারম্যান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে তার ইন্ধনে উত্তেজিত জনতা ৭/৮টি বাড়ীতে আগুন লাগিয়ে দেয়। এতে আমার ও যতীন চর্মার বাড়ী দুইটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এখন আমাদের কি উপায় হবে তা ভেবে কূল কিনারা পাচিছনা।
টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মোহাম্মদ ফরহাদ জানায়, এ ঘটনার সাথে জড়িতদের আটক অভিযান অব্যাহত। থানায় পৃথক মামলায় এ পর্যন্ত ৩১ জনকে আটক। সহিংস ঘটনা এড়াতে সর্বত্র পুলিশি টহল জোরদার রয়েছে। #############################
###

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT