টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে সাগরপথে মালয়েশিয়া যাওয়া পন্ড করলেন ইউপি সদস্য..আটক-১৭

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৬ নভেম্বর, ২০১২
  • ১৩৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

জেড করিম জিয়া, টেকনাফ…প্রশাসনের সহযোগিতা না পেয়ে নিজ উদ্যোগে অবৈধভাবে সাগরপথে মালয়েশিয়া যাত্রী আটক করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন এক ইউপি সদস্য।টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ ইউনুছ সিকদার জানান, বেশ কয়েকবছর যাবত সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের নাফনদী ও বঙ্গোপসাগরের বিভিন্ন পয়েন্টকে দালালচক্ররা অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার অঘোষিত আর্ন্তজাতিক বন্দর হিসেবে ব্যবহার করছে। প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার কবলে পড়ে প্রাণহানী সহ সলিল সমাধীর ঘটনা কারও অজানা নয়। এতে করে দেশে এবং বহিঃবিশ্বে টেকনাফের সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে। স্থানীয় দালালচক্ররা সহজ-সরল মানুষকে মিথ্যা আশ্বাস ও প্রলোভন দিয়ে মধ্য সাগরে অবস্থানরত বড় জাহাজে করে মালয়েশিয়া পাঠানোর কথা বলে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়ে প্রতারণা করে আসছিল। এবিষয়টি উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা মাসিক সমম্বয় সভায় উত্তাপিত হলে আমিই প্রথম এলাকার সাহসী ও সচেতন ২০ জন তরুনকে সাথে নিয়ে মানবপাচার রোধ কমিটি গঠন করি। যাতে আমার এলাকা দিয়ে কোন মানবপাচার সংঘঠিত না হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল ৫ নভেম্বর রাতে গোপন সূত্রে জানতে পারি কাটাবনিয়া ও চান্দলিপাড়া ঘাট দিয়ে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া পাড়ি দিতে লোকজন জড়ো হচ্ছে। সাথে সাথে টেকনাফ ৪২ ব্যাটলিয়ন বিজিবির সুবেদার মুজিবুর রহমানের সাথে মুঠোফোনে বিষয়টি অবহিত করলে প্রতিউত্তরে তিনি জানান, গাড়ীর অভাবে সেখানে বিজিবির সদস্যরা ঘটনাস্থলে যেতে যারছেনা। তখনি তিনি কমিটির সদস্যদের নিয়ে ঘটনাস্থলে হানা দিয়ে মালয়েশিয়াগামী ১১ জনকে ধৃত করলেও ২ জন পালিয়ে যায়। বাকী ৯ জনকে পুলিশের হাতে তুলে দিই। আটক ব্যক্তিরা জানান, টেকনাফে অলিয়াবাদের দালালচক্রের সদস্য মো. সেলিম, চান্ডলিপাড়ার মো জাফর, ধলু হোসেন, ছৈয়দ হোসেন ও শরীফ হোসেনের মাধ্যমে তাঁরা মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য চুক্তিবদ্ধ

তারা হচ্ছে, মিয়ানমারের বুচিদং এলাকার মোঃ সোয়াইব (২৫), সানাউল্লাহ (২০), কক্সবাজার ফদনার ডেইল আবদু শুক্কুর (৪৪), জসিম উদ্দিন (২৭), আবদুর রহমান (৪৭), ঈদগড়ের নুর রহিম (২৮), আলতাজ (২২), মৌছনি রোহিঙ্গা রেজিষ্ট্রার্ড শিবিরের গোলাম আজম (২১), মির আহমদ (৩০)।

অন্যদিকে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের কাটাবনিয়া এলাকায় মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য অটোরিক্সা যোগে পৌছলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের সোনারার এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে বাদশা মিয়া (২৬) ও বগুড়া গাবতলি এলাকার রইস উদ্দিনের ছেলে মিনহাজুল (২২) কে আটক করে। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অটোরিক্সা চালক পালিয়ে গেলেও অটোরিক্সাটি জব্দ করা হয়। যাহার নাম্বার থ- ১১-১২৫২। শরীফ হোসেন, ধলু হোসেন, মাধ্যমে তাঁরা মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য তারা চুক্তিবদ্ধ হন।

অপরদিকে একইদিন ভোররাতে টেকনাফ ৪২ ব্যাটলিয়ন বিজিবি জওয়ানরা সাবরাং কাটাবনিয়া এলাকায়  অভিযান চালিয়ে মালয়েশিয়া যাওয়া কালে ৬ ব্যক্তিকে আটক করে। আটককৃতরা হচ্ছে, হবিগঞ্জের মৃত আবদুস সোবহানের পুত্র তাজুল ইসলাম (৩০), নবাব আলীর পুত্র মোঃ জসিম (৩০), কিশোরগঞ্জ কাদেরপুরের হিরন মিয়ার পুত্র মোঃ ইসমাইল (২৮), বদি আলমের পুত্র মনজুর আলম (৩০), কক্সবাজার রামুর মৃত ফজল কবিরের পুত্র মোঃ আনোয়ার হোসেন (২৬), আজিজুর রহমানের ফজল আহমদ (৩০)।
আটককৃতদের কক্সবাজার কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।

আটক ব্যক্তিরা আরও জানান, জনপ্রতি এক লাখ ২০হাজার টাকার বিনিময়ে তাঁদের মালয়েশিয়া পৌঁছে দেওয়ার কথা ছিল। এ জন্য তাঁরা দালালচক্রকে জনপ্রতি ২০-৩০হাজার টাকা করে অগ্রিম দিয়েছেন। বাকি টাকা মালয়েশিয়ায় পৌঁছানোর পর দালালচক্রের লোকদের হাতে দেওয়ার কথা ছিল।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফরহাদ বলেন, এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট ধারায় পৃথক পৃথক মামলা রুজু করে তাঁদের কক্সবাজার আদালতে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, দেশে মানবপাচারের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের বিধান থাকলেও টেকনাফে এই আইনের প্রভাব পড়তে তেমন দেখা যায়নি। কিংবা মানব পাচারকারীদের মনে এই আইনের সামান্যতম ভীতিও জন্ম নিতে দেখা যায়। প্রতিনিয়ত মালয়েশিয়া পাড়ি দিতে গিয়ে পুলিশ-বিজিবির হাতে অসংখ্য মানুষ আটক হলেও সে অনুপাতে মানবপাচারকারীদের উপর প্রভাব তেমন পড়েনি। হাতেগোনা কয়েকজন পাচারকারী আটক হলেও উচ্চ আদালত থেকে জামিনে বের হয়ে এসে পুনরায় একাজে ঝাপিয়ে পড়েছে। এলাকার সচেতন মহল মনে করেন একাজে প্রশাসনের একটি অংশ মানবপাচারকারীদের সহযোগিতা দিয়ে আসছে। সরকার যদি এব্যাপারে কঠোর নজরধারী না দেয় এর আকার ভয়াবহ ধারণ করবে। গত বছর ১৪ ডিসেম্বর ১৩০ জন যাত্রী নিয়ে অবৈধভাবে সাগরপথে মালয়েশিয়া পাড়ি দিতে গিয়ে ট্রলারে ফাটল  ধরে বঙ্গোপসাগরে ২৫ যাত্রীর সলিল সমাধী হয়। এর রেষ কাটতে না কাটতে আবারো এবছর শীতের শুরুতে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যেতে গিয়ে ট্রলার ডুবির ঘটনা।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

One response to “টেকনাফে সাগরপথে মালয়েশিয়া যাওয়া পন্ড করলেন ইউপি সদস্য..আটক-১৭”

  1. jahed uk says:

    jekane manob pasare junoprotinitir nam ote asse,se mohtte emon ekti balo kaj ke sagoto janay.good job.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT