টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে সরকারী বনের হাজার হাজার গাছ নিধন-বনপ্রহরী-উপকারভোগী ও কাঠ চোর সদস্যরা পাচার বাণিজ্যে জড়িত!

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ৪ মে, ২০১৩
  • ২৩৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

রমজান উদ্দিন পটল,টেকনাফ ককসবাজার সংবাদদাতা
–  কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের টেকনাফ সরকারী বনভুমিতে সৃজিত অংশীদার বিত্তিক সমাজিক বনায়নের মুল্যবান কাঠ পাচারের মহোৎসব চলছে। বনের বিপুল গাছ সাবাড় করে বাণিজ্যে মেতে উঠেছে সিন্ডিকেট চক্র। বিগত সময়ে বনের প্রায় অর্ধলক্ষাধিক গাছ নিধন করায় সরকার ও গরীব উপকারভোগীরা ব্যাপক কাষতিগ্রস্থ হয়। বর্তমানে নির্বিচারে বনের কাঠ উজার অব্যাহত রয়েছে। চলছে বনে সৃজিত শত শত কোটি টাকা মুল্যের কাঠ হরিলুট। টেককনাফে দায়িত্বরত অসাধু বনপ্রহরী, উপকারভোগী, কাঠ ব্যবসায়ী ও কাঠ চোর সিন্ডিকেট সদস্যরা বনের এ মুল্যবান কাঠ পাচারে জড়িত বলে জানাগেছে।

অনুসন্ধানে জানাযায়- বিগত বিভিন্ন সময়ে টেকনাফের বিস্তীর্ণ সরাকারী বন ভুমিতে সৃজন করা হয় ১০ বছর মেয়াদী অংশীদার বিত্তিক সমাজিক বনায়ন। গত ২০০১ সাল হতে হতে বনে পৃথক বন সৃজন প্রকল্প শুরু হয়। বিভিন্ন স্থানে সৃজিত বনে মেয়াদপুর্ণ হতে চলছে। আবার বিভিন্ন স্থানে ৩, ৪, ৫, ৬, ৭ বছর পূর্ণ হওয়া বন সবুজ সমারোহে ভরে উঠে। এসব  বনের বিপুল গাছ নিধন করায় সরকার ও গরীব উপকারভোগীরা সুফল বঞিত হচ্ছে। উপজেলার হোয়াইক্যং, নীলা, বাহারছরা ও টেকনাফ সদর ইউনিয়নে তৎপর অসাধু সিন্ডিকেট সদস্যরা বনের মুল্যবান কাঠ উজাড় করে পাচার করছে। বনের গাছ উজাড় চিত্র একই হলেও চিন্ডিকে চক্রের মধ্যে আলাদা আলাদা ভাগ রয়েছে।  ঃ

হাত করাত, ছিও করাত লম্বা করাত গদু দা আর রশি হাতে প্রতদিন ভোরে কাঠ চোররা বনে প্রবেশ করে বড় বড় আকারের গাছ কেটে তা ছাটায় করে সন্ধায় কাধে বহন করে নিয়ে আসে নিজেদের গন্তব্যে। তাছাড়া সন্ধ্যার পর পালাবদল করে উজারকারী দলের সদস্যরা প্রতিনিয়ত বন উজাড় করে থাকে।  ৩০-৪০জনের সদস্যদের দল একাজে হার হামেশা লিপ্ত। বনের গাছ উজারকারীরা অসাধু কাঠ ব্যবসায়ীদের নিয়ন্তনে কাজ করে থাকে।উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনছিপ্রাং রইক্যং বিটসহ বিভিন্ন এলাকার সরেজমিনে গিয়ে জানাযায়- বনের দিবারাত্রি বনে প্রবশ করে কাঠ চোরের দল মুল্যবান কাঠ উজাড় করছে। এছাড়া রইক্যং বিটের অধীনে ৬০ ও ৪০ হেক্টরের সামাজিক বনায়নে ট্রেনিংএর নামে হাজার হাজার গাছ কেটে পাচার করা হয়। বন কাটার অনুমতি পত্রের নিয়মের বাইরে মুল্যবান গাছ উজাড় করে ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে কাঠ পাচার করে লাখ লাখ টাকা কামাই করছে অসাধু সিন্ডিকেট সদস্যরা। এবার বনের ২য় দফা গাছ কাঠার প্রক্রিয়া শুরু হয় বলে জানাগেছে। এ গাছ কাঠার আড়ালে উনছিপ্রাং এলাকার একশ্রেনীর অসাধু সিন্ডিকেট বন কাঠার দায়িত্ব নিয়ে বিপুল চোরাই কাঠ পাচারের প্রস্তুতি নেয়। এ সিন্ডিকেটের মধ্যে রয়েছে কাঠচোর, অসাধু উপকারভোগী সদস্য, ও দালাল প্রকৃতির ব্যাক্তিরা। এছাড়া স্থানীয় কতিপয় বন প্রহরীরা উক্ত সিন্ডিকেটে জড়িত বলে জানাগেছে। এদিকে সিন্ডিকেট চক্রের এসব পাচারে সহায়তা দিতে অমত প্রকাশ করায় ্স্থানীয় বিট কর্মীদের হাত পা ভেঙ্গে দেয়ার হুমকি দেয় বলে অভিযোগে জানাগেছে। বিষয়টি হোয়াইক্যং পুলিশে অভিযোগ করা হয়। এভাবে উপজেলার অপরাপর এলাকায় কাঠ চুরিতে মেতে উঠে কাঠ চোর সিন্ডিকেট।###########

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT