টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :

টেকনাফে মাদক ইয়াবার দুর্নাম ঘোচানোর আহবান…নির্বাহী অফিসার

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১২
  • ২০৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

এটিএন ফায়সাল… টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামসুল ইসলাম মেহেদী বলেছেন, টেকনাফ শহর মাদক ইয়াবায় সয়লাব হয়ে গেছে। যার দুনার্ম সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এ দুনার্ম ঘোঁচাতে আমি টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে দায়িত্ব নিয়ে এসেছি। এ দুর্নাম ঘোচানোর জন্য আমি জনপ্রতিনিধিসহ জনগনের সাহায্য সহযোগিতা চাই
বুধবার দুপুর ১২টায় টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
এসময় বক্তব্য দেন টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) ইউনুছ বাঙ্গালী, মহিলা ভাইচ-চেয়ারম্যান মিজবাহার উছুফ ও সাত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তা কর্মচারিসহ স্থানীয় সাংবাদিকরা।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

২ responses to “টেকনাফে মাদক ইয়াবার দুর্নাম ঘোচানোর আহবান…নির্বাহী অফিসার”

  1. আকাশ says:

    টেকনাফ থানা পুলিশ ৫ হাজার ইয়াবা নিয়ে নাটক, ইয়াবার পরিমাণ নিয়ে গড়িমসি
    ০৭/০৯/২০১২

    টেকনাফ থানা পুলিশ সিএনজি চালকসহ বিপুল পরিমাণ ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ নিয়ে লুকোচুরি খেলছে। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা ইয়াবার পরিমাণ বেশি বললেও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ইয়াবার পরিমাণ নিয়ে গড়িমসি করছে। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল ৬ সেপ্টেম্বর বৃহষ্পতিবার বিকাল ৩ টায় টেকনাফ থানা পুলিশের এএসআই জাফর আলম তার সোর্সের গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কক্সবাজার মহাসড়কের নাইট্যংপাড়া এলাকায় কক্সবাজার থ১১-১৭১৪ নং সিএনজিতে অভিযান চালিয়ে সাবরাং ইউনিয়নের চান্দলী পাড়া এলাকার মোঃ হোছনের পুত্র চালক নুরুল আমিন (৩৫)কে চ্যালেঞ্জ করলে গাড়ীতে সুকৌশলে লুকিয়ে রাখা ৫ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করে। এসময় অভিযান পরিচালনাকারী পুলিশ কর্মকর্তা আটককৃত সিএনজি চালককে থানায় এনে হাজতে ঢুকিয়ে রাখে। সন্ধ্যা ৬ টায় টেকনাফে কর্মরত সংবাদকর্মীরা বিষয়টির ব্যাপারে থানা ডিউটি অফিসার এএসআই কাউসার আহমদের কাছে জানতে চাইলে সে জানায়, বিকেল প্রায় সাড়ে ৩টার সময় একটি লোককে এএসআই জাফর আলম হাজতে ঢুকিয়ে দিয়েছে স্বীকার করে বলেন, ইয়াবা ও সিএনজি জব্দের ঘটনা এবং থানায় কোন ধরনের অভিযোগ লিপিবদ্ধ করা হয়নি।
    প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সিএনজিটিকে পুলিশ দাড় করালে এক ব্যক্তি গাড়ী থেকে নেমে চলে যায় এবং ইয়াবার প্যাকেটের সাইজ দেখে প্রায় ৪/৫ হাজার হতে পারে বলে জানান।
    অভিযান পরিচালনাকারী কর্মকর্তা এএসআই জাফর আলমের সাথে ৫ হাজার ইয়াবাসহ সিএনজি চালক আটকের ব্যাপারে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ২ হাজার ইয়াবাসহ চালক আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেন তবে সংবাদ প্রকাশ না করার জন্য বিনীতভাবে অনুনয় বিননয় করেন ।
    টেকনাফ মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ মাহবুবুল হকের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, ১ হাজার ইয়াবাসহ ১ ব্যক্তিকে আটক ছাড়া অন্য কোন বিষয়ে তিনি জানেন না।

  2. Mohammad rana says:

    Hai yaba!…amader moto sadaron manosh ra koto osohai!..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT