টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে বেড়েই চলেছে চালের দাম

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০১৩
  • ১৪১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

আল-মাসুদ,হ্নীলা…
হঠাৎ করেই প্রতি বস্তা চালের দাম বেড়ে গেছে ২০০ থেকে ২৫০ টাকা পর্যন্ত। আর প্রতি কেজিতে বেড়েছে ৩ টাকা থেকে ৬ টাকা পর্যন্ত। কয়েক দিনের ব্যবধানে দফায় দফায় চালের দাম বাড়তে থাকায় সাধারণ ক্রেতাদের পাশাপাশি বিক্রেতাদের মাঝেও অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। তবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, সরকার মাঠ পর্যায়ের কৃষকদের কাছ থেকে চাল সংগ্রহের কর্মসূচি নেয়া,ধান-চালের মোকাম দেশ জুড়ে শৈত্যপ্রবাহের কারণে পুরাতন চালের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় হঠাৎ করেই চালের দাম বেড়ে গেছে। বৃহ¯পতিবার উপজেলার টেকনাফের উপরের চালবাজার, হ্নীলা বাজার ঘুরে দেখা গেছে বাড়তি মূল্যে বিক্রি হচ্ছে চাল। হ্নীলার চাল ব্যবসায়ী জাবেদ জানান,সব ধরনের চালের দাম বেড়ে গেছে। বিশেষ করে পুরাতন চালের দাম প্রতি বস্তায় বেড়েছে ২০০ টাকা থেকে ২৫০ টাকা পর্যন্ত । তারা জানান, ৫০ কেজি ওজনের প্রতি বস্তা মিনিকেট ১৪ শ’ থেকে বেড়ে ১৬ শ’ টাকা। ব্লক ৯৯০ টাকা থেকে ১৩০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১১ শ’ ২০ টাকা। কাটবেটি ১৩৫০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১১০০ টাকা। নয়ামোটা ১০০০ থেকে ১৫০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১১৫০ টাকা। এভাবে পাকিস্তানি ও ভিয়েতনামের চাল বিক্রি হচ্ছে বেশী দামে। কান্তাহার ১ হাজার ৮শ ৫০ টাকা থেকে ১শ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৯শ ৫০ টাকা, পুরাতন মিনিকেট ১ হাজার ৬শ টাকা থেকে ১শ ৫০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৭শ ৫০ টাকা, মিনিকেট সিদ্ধ ১ হাজার ৫শ ৫০ টাকা থেকে বেড়ে ১ হাজার ৬শ টাকা, নতুন মিনিকেট ১ হাজার ৪শ টাকা থেকে ১শ ৫০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৫শ ৫০ টাকা, পাইজাম সিদ্ধ ১ হাজার ৬শ ৫০ টাকা থেকে ১শ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৭শ ৫০ টাকা, বাসমতি সিদ্ধ ১ হাজার ৮শ ২০ টাকা থেকে বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার ৭০ টাকা,জিরাসাইল ১ হাজার ৭শ ২০ টাকা থেকে ১শ ৮০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৯শ টাকা,নাজিরসাইল ১ হাজার ৮শ ২০ টাকা থেকে ২শ ৩০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার ৫০ টাকা,পুরাতন বেতি ১ হাজার ৪শ ৫০ টাকা থেকে ১শ ৫০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৬শ টাকা,মোটা চাল ১ হাজার ১শ ২০ টাকা থেকে ১শ ৩০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ২শ ৫০ টাকা,দিনাজপুরী পাইজাম ১ হাজার ৭শ টাকা থেকে ১শ ৫০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৮শ ৫০ টাকা এবং পারিজা সিদ্ধ ১ হাজার ৬শ ২০ টাকা থেকে ১ শ ৩০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৭শ ৫০ টাকায়। চাল ব্যবসায়িরা জানান, গত তিন মাস আগে ৫০ কেজি ওজনের প্রতি বস্তা চাল ১শ টাকা থেকে ৩শ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। এর পর কয়েকদিনের ব্যবধানে আবারো বস্তা প্রতি দাম বাড়লো ১শ টাকা থেকে ৩শ টাকা পর্যন্ত। টেকনাফের চাল ব্যবসায়ী রহিম উদ্দিন জানান, চালের দাম বেড়ে যাওয়ায় সাধারণ ক্রেতাদের পাশাপাশি আমরা বিক্রেতারাও অসুবিধায় আছি। চালের দাম বাড়লে ব্যবসা ভাল হয় না। এছাড়া খাবারের জন্য ব্যবসায়ীদেরও চাল কিনতে হয় বলে তিনি জানান। লেদা এলাকার এক খুচরা চাল ব্যবসায়ী জানান, চাউল বাজার থেকে পাইকারি দামে চাল কিনে খুচরা দোকানে ১/২ টাকা লাভে বিক্রি করি। কিন্তু দেখা গেছে প্রতি বস্তার পেছনে ২শ থেকে ৩শ টাকা পর্যন্ত দাম বেড়ে গেছে। এতে প্রতি কেজি চাল ৫/৬ টাকা হারে বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। ফলে খুচরা ক্রেতাদের সাথে প্রায় প্রতি দিনই ঘটছে বাক-বিতন্ডার ঘটনা। সাবরাং এলাকার বাসিন্দা চাকরীজীবী আবুল কাশেম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, গত মাসে ৫০ কেজি ওজনের যে চাল ১৭০০ টাকা দিয়ে কিনেছি তা গতকাল কিনতে হলো ১৮৭০ টাকায়। এভাবে দাম বাড়তে থাকলে সাধারণ মানুষ না খেয়ে মরবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। ==

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT