টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সবচেয়ে বড় ভুল : ডা. জাফরুল্লাহ মাদক কারবারি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত সাংবাদিক আব্দুর রহমানের উদ্দেশ্যে কিছু কথা! ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, ভূমিধসের শঙ্কা মোট জনসংখ্যার চেয়েও ১ কোটি বেশি জন্ম নিবন্ধন! বাড়তি নিবন্ধনকারীরা কারা?  বাহারছড়া শামলাপুর নয়াপাড়া গ্রামের “হাইসাওয়া” প্রকল্পের মাধ্যমে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ ও বার্তা প্রদান প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর উদ্বোধন উপলক্ষে টেকনাফে ইউএনও’র প্রেস ব্রিফ্রিং টেকনাফের ফাহাদ অস্ট্রেলিয়ায় গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী সম্পন্ন করেছে নিখোঁজের ৮ দিন পর বাসায় ফিরলেন ত্ব-হা মিয়ানমারে পিডিএফ-সেনাবাহিনী ব্যাপক সংঘর্ষ ২শ’ বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস বিল গেটসের মেয়ের জামাই কে এই মুসলিম তরুণ নাসের

টেকনাফে বন্ধের পথে ১টি প্রাইমারী স্কুল, দেখার কেউ নেই

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ অক্টোবর, ২০১৫
  • ১৩১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
জসিম উদ্দিন টিপু …
টেকনাফে ১টি বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ হয়ে পড়ার উপক্রম হয়েছে অন্তত ২মাস ধরে। স্কুলটি বন্ধ হয়ে গেলে শতাধিক ছাত্র-ছাত্রীর লেখাপড়া অনিশ্চিত হয়ে পড়বে। উক্ত এলাকায় আর কোন স্কুল না থাকায় অভিভাবকরা পড়ুয়া ছেলে মেয়েদের ভবিষ্যৎ নিয়ে শংকার মধ্যে রয়েছে।
সরেজমিনে পরিদর্শন ও স্থানীয় সুত্র জানায়, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডে পড়া লেখার একমাত্র মাধ্যম কেরুনতলী বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় চলতি সনের ৩১জুলাই সৃষ্ট ঘুর্ণিঝড় কোমেনের আঘাতে স্কুলটির টিন উপড়ে ফেলে। ঘুর্ণিঝড়ের সপ্তাহ খানিক পরে সুমন নামের জনৈক সহকারী শিক্ষক কর্তৃক স্কুলটি নামে মাত্র খোলা হলেও ছালা না থাকায় শিক্ষার্থীরা স্কুলে তেমন আসছে না। বিদ্যালয়ে ছাউনি না থাকায় বৃষ্টি এবং গরমের কারণে ছেলে-মেয়েরা স্কুলে আসতে চাই না বলে সুত্রে প্রকাশ। ফলে শিক্ষার্থীরা ঝরে পড়তে পারে বলে অভিজ্ঞ মহলের ধারণা। খোঁজ নিয়ে জানাযায়, ২০০৪সালে কেরুনতলী এলাকার প্রয়াত ইসলাম মাষ্টার অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে ঐএলাকায় স্কুলটি প্রতিষ্টা করনে। স্কুল বিহীন গ্রাম হলেও কেরুনতলীতে অবস্থিত “হোটেল নেটং” ও “টেকনাফ স্থল বন্দর”র অবস্থান। বন্দর থেকে সরকারী কোষাগারে প্রতি বছর কোটি কোটি টাকা জমা হলেও বন্দরের অতি নিকটে অবস্থিত কেরুনতলী বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি অবহেলিত হয়ে পড়ে আছে। ঘুর্ণিঝড়ের পর থেকে ১টি কক্ষের উপরে একপাশে কোনমতে “থ্রিপল” দিয়ে গাদাগাদি করে সকাল ১০টার ভেতরেই ১ম-৫ম পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীদের পাঠদান করা হয় বলে স্থানীয়রা এপ্রতিবেদকে জানান। বিদ্যালয়টি স্কুল ফিডিং প্রোগ্রাম সহ বিভিন্ন কিছুর আওতায় রয়েছে। অথচ বন্দর এলাকার একমাত্র স্কুলটি ২মাস ধরে এভাবে পড়া থাকায় শিক্ষিত মহল ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সুত্র জানায়, সুমন নামীয় একজন সহকারী শিক্ষক সকালে ১ঘন্টার জন্য স্কুলটি খুলে বিস্কুট দিয়ে ছুটি দিয়ে দেন। ছাউনি এবং বসার বেঞ্চ না থাকায় স্কুলটি কালের গর্ভে হারিয়ে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। স্কুল এমন অবস্থা অনেকে কমিটি এবং প্রধান শিক্ষককে দায়ী করছেন। অভিভাবক ও সর্বস্তরের লোকজন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পড়া-লেখার পথ সুগম করতে জরুরী ভিত্তিতে ছাউনি এবং বেঞ্চে সরবরাহে সরকারের দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
স্কুল শিক্ষার্থী রোখসানা, নাছিমা, কোরবান আলী ও ইব্রাহীম জানান, ছাউনি ও বেঞ্চ না থাকায় আমরা লেখাপড়া করতে পারছিনা। এভাবে হলে সামনের পরীক্ষা আমরা কি করে দেব।
সহকারী শিক্ষক সুমন আহমদ জানান, বৃষ্টি ও গরম হওয়ায় ছাউনি না থাকায় এবং বেঞ্চ না থাকায় স্কুল খোলাই সম্ভব হচ্ছে না। সকালে ঘন্টা খানিক স্কুল খোলে রোল কল করে বিস্কুট দিয়ে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়।
প্রধান শিক্ষক জহির মাষ্টার বেতন বকেয়ায় দীর্ঘদিন ধরে নিজেই স্কুলে অনুপস্থিত থাকার কথা জানিয়ে বলেন, অফিসিয়ালি কাজ গুলো আমি সমাধান করে দিই। তবে আমি স্কুলে যায় না।
স্কুল সভাপতি আলী আজগর(আজগর মাঝি) জানান, বিদ্যালয়ের এতদ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে মৌখিকভাবে অবহিত করা হয়েছে।
জানতে চাইলে উপজেলা শিক্ষা অফিসার সুব্রত কুমার ধর বলেন-স্কুলটি আমাদের নিয়ন্ত্রণে নই, বিদ্যালয়টি বেসরকারী হওয়ায় দেখাশুনার এখতেয়ারও নেই বলে তিনি সাফ জানিয়ে দেন। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা রফিক উদ্দিন জানান, বিষয়টি আপনার মারফত শুনেছি। স্কুল কমিটিকে উপজেলা চেয়ারম্যান বরাবরে লিখিত আবেদন করার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, শ্রীঘ্রই পরিষদ বসে শিশুদের শিক্ষা নিশ্চিত করতে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT