টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে পশু মারা যাওয়ায় কুরবানি দাতাগণ শংকিত

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ২১২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ = টেকনাফে ব্যাপক হারে কুরবানির পশু মারা যাওয়ায় কুরবানি দাতাগণ শংকিত হয়ে পড়েছেন। টেকনাফ উপজেলার প্রায় প্রতিটি গ্রামে ইতিমধ্যে একাধিক গবাদি পশু মারা গেছে। চড়া দামে পছন্দের কুরবানির পশু কিনে ঈদের আগেই মারা যাওয়ায় কুরবানি দাতাগণ চরম আতংকে দিন কাটাচ্ছেন বলে জানা গেছে। কুরবানি দাতাগণের পাশাপাশি গবাদি পশু ব্যবসায়ীরাও এনিয়ে আর্থিক ক্ষতির আশংকায় উদ্বিগ্ন। এদিকে এই আপদকালীন সময়ে টেকনাফ উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ এএম খালেকুজ্জামান দীর্ঘ দিন ধরে কর্মস্থলে অনুপস্থিত রয়েছেন। এমনকি তাঁর মোবাইল ফোনটিও (০১৭১৭৭৩৫৯১০) বন্ধ রেখেছেন। এতে জরুরী প্রয়োজনে কুরবানি দাতাগণ পরামর্শও নিতে পারছেননা। টেকনাফ উপজেলা প্রাণীসম্পদ কার্যালয়ের ডাঃ আবদুর রহিম ২৩ সেপ্টেম্বর দুপুরে টেকনাফে ব্যাপক হারে কুরবানির পশু মারা যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন- উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ এএম খালেকুজ্জামান ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ঢাকায় প্রশিক্ষণে রয়েছেন। তিনি আরও জানান, শাহপরীরদ্বীপ ক্যাডল করিডোরের মাধ্যমে বৈধ ভাবে এবং চোরাইপথে অবৈধ ভাবে মিয়ানমার থেকে প্রচুর পরিমাণ গবাদিপশু আসছে। শাহপরীরদ্বীপে সংগনিরোধ কীটতত্ববিদ কোয়ারেন্টাইন অফিস চালু না থাকায় যথাযথভাবে এসব গবাদিপশুর পরিক্ষা-নিরীক্ষা করা সম্ভব হচ্ছেনা। শুধুমাত্র বাহ্যিক দেখে সার্টিফিকেট দেয়া হচ্ছে। মিয়ানমার থেকে এসব গবাদিপশুর বেশীর ভাগই রোগাক্রান্ত বিশেষতঃ খুরা রোগে আক্রান্ত। এক সময় ডেক্সা মেথাসন ইত্যাদি জাতীয় হরমুন বৃদ্ধির ঔষুধ খাওয়ানোর প্রচলন ছিল। এ ঔষুধ সেবনের ফলে গরুর মাংস দ্রুত বৃদ্ধি হলেও জীবন বিপন্ন হত। প্রাণী সম্পদ বিভাগ থেকে উৎসাহী উদ্যোগী খামারীদের এ ব্যাপারে প্রশিক্ষন দেওয়ার সময় খামারীদের বিপদজনক পথ থেকে সরে আসার আহবান জানানো হয়। গবাদিপশু মোটা তাজা করণে ক্ষতিকর ঔষধ খাওয়ানো এবং ব্যাপক হারে খুরা রোগের কারণে গবাদিপশু বেশী মারা যাচ্ছে বলে তিনি দাবি করেন।
এদিকে তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, টেকনাফে সরকারী ভাবে বড় ধরনের কোন খামার বা গরু মোটা তাজা করণ প্রকল্প না থাকলেও গ্রাম-গঞ্জে স্বল্প আয়ের মানুষগুলো বাড়তি লাভের আশায় কোরবানীর ঈদের ৬/৭ মাস পূর্ব থেকে গরু মোটা তাজা করতে মোটা অংকের টাকা বিনিয়োগ করেন। দানাদার খাদ্য যেমন খৈল, ভুষি, ও খুদ কুঁড়ার দাম বৃদ্ধির কারনে ব্যবসায়ীর সংখ্যা কমে যাচ্ছে। তারপরও দাম ভাল পাওয়ার আশায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা গরু মোটা তাজা করণের ক্ষতিকর ইনজেকশন ব্যবহার ও ক্ষতিকর ঔষধ খাওয়ানো হয়। এব্যাপারে টেকনাফ উপজেলা প্রাণীসম্পদ কার্যালয়ের যথাযথ তদারকি ও নজরদারী না থাকার কারণে ক্ষতির মাত্রা ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। সেই সাথে ব্যবসায়ীরাও সচেতন হওয়ার পরিবর্তে অবনতি পরিস্থিতির দিকে ধাবিত হচ্ছে। গরু মোটা তাজা করতে নিষিদ্ধ মিয়ানমারের ডেক্সামেথাসোন ওষুধ খাওয়ানো হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। সাধারতনতঃ এসব ওষুধকে স্থানীয় ভায়ায় “পাম বড়ি” বলা হয়। এসব ওষুধ খাওয়ানোর ফলে গরু দ্রুত মোটাতাজা হয় ঠিকই, কিন্ত তা পশুর পাশাপাশি মানব দেহের জন্যও ভয়ানক ক্ষতিকর। বিশেষজ্ঞদের মতে, এসব গরুর মাংস মানুষের শরীরের জন্য সুদুর প্রসারী ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। মোটা তাজাকরণ নিষিদ্ধ বড়ি খাওয়ানোর ফলে পশুর যকৃত ও কিডনিতে পানি জমে। ওই পানি শরীর থেকে বের হতে না পেরে মাংসে সঞ্চারিত হয়। ফলে গরু মাত্রাতিরিক্ত ফুলে যায়। এমনকি এসব বড়ি খাওয়ানো গরু পশুর হাটে, পথিমধ্যে এবং কিনে নিয়ে যাওয়ার পর কুরবানী করার আগেই হঠাৎ মারা যাওয়ার অনেক ঘটনা ঘটছে। ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে গ্রামাঞ্চল থেকে দুর্বল গরু কিনে কিছুদিন লালন-পালন করার পর গরুকে নিষিদ্ধ মিয়ানমারের ডেক্সামেথাসোন ওষুধ খাওয়ানো হয়। এতে অল্প কিছুদিনের মধ্যেই বেশ গরু মোটাতাজা হয়। এর ফলে গরু দেখতে আর্কষনীয় হয়ে উঠায় কুরবানির হাটে ভালো দাম পাওয়া যায়। এক ব্যবসায়ী বলেন, এ ব্যবসায় দেড় থেকে দুই মাস পরিশ্রম করলে বেশ ভালো টাকা রোজগার করা যায়। আমি কয়েক বছর হলো এভাবে গরু মোটাতাজা করে বিক্রি করি। এসব ঔষুধ খাওয়ানো গবাদিপশুর মাংস খেলে ক্ষতি হয় তা কেউ তো কোনো দিন বলেনি। টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ টিটু চন্দ্র শীল ২৩ সেপ্টেম্বর বিকালে বলেন- এ ওষুধ গরু মোটা তাজা করার জন্য নয়। তারপরও এ ধরনের ওষুধ অতিরিক্ত খাওয়ালে তা যেমন ক্ষতিকর, তেমনি এসব গবাদিপশুর মাংস মানব দেহের জন্যও ক্ষতিকর। ##

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT