টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালিত

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৯ মার্চ, ২০১৩
  • ১৯৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফঃ  চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা ও আলোচনা সভার মাধ্যমে টেকনাফে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালিত হয়েছে। শেড-সৌহার্দ্য কর্মসূচীর আওতায় টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন এই কর্মসূচীর আয়োজন করে। ২৮ মার্চ টেকনাফ এজাহার গার্লস হাইস্কুলে এ উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা টেকনাফ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) জহিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন- সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন- মনির আলম আইবি, প্রকৌশলী এরশাদুর রহমান ও টিও (কৃষি) হারুন অর রশিদ। বক্তব্য রাখেন- উপজেলা কৃষি অফিসার আবদুল লতিফ, মহিলা বিষয়ক অফিসার আলমগীর কবির, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার শাইফুল আলম, রেড ক্রিসেন্টের আবদুল মতিন, এহাজার গার্লস হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষিকা শিউলী চৌধুরী। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল- “সকল দুর্যোগে প্রস্তুতি-হ্রাস করবে দুর্গতি”। চিত্রাংকন প্রতিযোগীতায় ফারমিতা সুলতানা (৯ম) প্রথম, নাসরিন সুলতানা (৬ষ্ট) দ্বিতীয় ও আসমা আক্তার আঁখি (৭ম) তৃতীয় স্থান লাভ করে। তাছাড়া একই ভাবে হ্নীলা ও বাহারছড়া ইউনিয়নে র‌্যালি ও আলোচনা সভার মাধ্যমে দিবসটি পালিত হয়েছে বলে জানা গেছে।
মৌলিক অধিকার বঞ্চিত দ্বীপবাসীর প্রতিবাদ সভা
সেন্টমার্টিনদ্বীপ কি বাংলাদেশ ভূ-খন্ডের বাইরে ?
হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফঃ         (ছবি আছে)
বিক্ষুদ্ধ দ্বীপবাসীর আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় বক্তাগণ বলেছেন- দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ পৃথিবী বিখ্যাত পর্যটন স্পট সেন্টমার্টিন দ্বীপের বাসিন্দাগণ বর্তমানে মৌলিক অধিকার থেকে চরমভাবে বঞ্চিত। দ্বীপের বাসিন্দাগণ মাথা গোঁজার ঠাঁয় তৈরী, ব্যবহারের লেট্রিন নির্মাণ করতে পারছেনা। এমনকি আহারের জন্য নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীও আনতে পারছেনা। অথচ বহিরাগত ধনাঢ্য ব্যক্তিরা বিনা বাধায় দ্বীপে বহুতল ভবন নির্মাণ করছে। তাঁরা আরও বলেন- টেকনাফ থেকে ১ বস্তা চাউল, যৎসামান্য বালি, ২/১ বস্তা সিমেন্ট, কয়েকখানা টিন, নিত্য প্রয়োজনীয় মালামাল সেন্টমার্টিনদ্বীপে আনতে প্রশাসনের অনুমতি নিতে হয়, আবেদন করতে হয়, বিভিন্ন পয়েন্টে চেক করা হয়। এতে প্রতিটি পদে পদে হয়রানীর সমূখীন হতে হচ্ছে। বক্তাগণ দাবী করেন- আইন প্রত্যেকের জন্য সমান। কিন্তু সেন্টমার্টিনদ্বীপে তার ব্যতিক্রম। দ্বীপের সাধারণ মানুষ কিছুই করতে পারেনা, আর বহিরাগতরা অবাধে সবই করে যাচ্ছে। তাছাড়া এখনও সুনিদ্দিষ্ট কোন নীতিমালা দ্বীপবাসীদের দেয়া হয়নি। পরিবেশ রক্ষার নামে দ্বীপের বাসিন্দাদের ঘন ঘন হয়রানীর বিরুদ্ধে দ্বীপের সর্বসাধারণের উদ্যোগে আয়োজিত গত ২৪ মার্চ বিকালে অনুষ্টিত বিশাল প্রতিবাদ সভায় বক্তাগণ এসব কথা বলেন। সেন্টমার্টিনদ্বীপ বাজার প্রাঙ্গণে আবদুর রব মেম্বারের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত এই প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন- সাবেক মেম্বার ও আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব নুর আহমদ। বক্তব্য রাখেন- নুরুল আলম, জুবাইর, আবু তাহের প্রমূখ। বক্তাগণ তাঁদের বক্তব্যে সাম্প্রতিক সময়ে পরিবেশ রক্ষার নামে পরিবেশ অধিদপ্তরের ঘন ঘন অভিযান, হোটেল ভাংচুরসহ মিথ্যা অপবাদের বর্ণণা তুলে ধরে প্রশাসনসহ প্রধান মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে প্রশ্ন রাখেন- সেন্টমার্টিনদ্বীপ কি বাংলাদেশ ভূ-খন্ডের অংশ নাকি মিয়ানমারের অংশ ? বাংলাদেশ ভূ-খন্ডের অংশ হলে দ্বীপবাসী এভাবে মৌলিক অধিকার বঞ্চিত বা অব্যাহত জুলুম-নির্যাতন, বিমাতামূলভ আচরণের ও হয়রাণীর শিকার হচ্ছে কেন?  বক্তাগণ আরও দাবী করেন- সেন্টমার্টিনদ্বীপে ছোটবড় শতাধিক হোটেল রয়েছে। কিন্তু পরিবেশ অধিদপ্তর গত ২৪ মার্চ স্বপ্ন বিলাস নামে মাত্র ১টি হোটেলে যেভাবে ভাংচুর চালিয়েছে তা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক ও আক্রোশমূলক। এদিকে গত ২৪ মার্চ টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্টিত আইন শৃংখলা বিষয়ক সভায়  এমপি আবদু রহমান বদি সেন্টমার্টিনদ্বীপের বাসিন্দাদের বিভিন্নভাবে হয়রানী করার তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। ###
টেকনাফে প্রাক্তণ ছাত্র পরিষদের উদ্যোগে ব্যতিক্রমধর্মী স্বাধীনতা দিবস পালিত
হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফঃ         (ছবি আছে)
৫টি স্কুলের সমন্বয়ে ও ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজনের মাধ্যমে টেকনাফের দরগাহছড়া হামিদিয়া প্রাইমারী স্কুলে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত হয়েছে। ব্যতিক্রমধর্মী এই অনুষ্টানের আয়োজন করে লম্বরী মলকাবানু হাইস্কুলের প্রাক্তণ ছাত্র পরিষদ। যৌথভাবে অনুষ্ঠিত ব্যতিক্রমধর্মী কর্মসূচীতে অংশগ্রহণকারী স্কুলগুলো হচ্ছেঃ দরগাছড়া হামিদিয়া, হাবিবছড়া, লেঙ্গুরবিল, লম্বরী, রাজারছড়া সরকারী প্রাইমারী স্কুল। ব্যতিক্রমধর্মী কর্মসূচীর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল- ১৫টি মেধা পুরস্কার, ৫১টি ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা পুরস্কার, ৫টি স্কুল পুরস্কর, ২০টি সম্মাননা পুরস্কার। সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পর ৫টি স্কুলের শিক্ষার্থী-শিক্ষক নিয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্বাধীনতা র‌্যালী।এরপর ক্রীড়া ও সাংস্কৃতি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল ৩ টায় মুফিজুল ইসলামের সঞ্চালনায় দেলোয়ার হোছাইনের কুরআন পাঠের মধ্যদিয়ে আলোচনা সভা নুরুল আফচারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে উদ্ভোধনী বক্তব্য রাখেন রহমতউল্লাহ। বক্তব্য রাখেন- প্রাক্তন ছাত্র পরিষদের আহবায়ক আবদুল গণি সাগর ও আমান উল্লাহ আমান, জয়মহাজন, শওকত হোছাইন, আলমগীর, ওসমানগণি, অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- নুরুল আমিন, কাজল কান্তি দাশ, হাবিবছড়া প্রাইমারী স্কুলের প্রধান শিক্ষক মমতাজ উদ্দিন মাহামুদ, হামিদিয়া প্রাইমারী স্কুলের প্রধান শিক্ষক মাওঃ নুরুল হোছেন। আলোচনা সভা শেষে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতি প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের, প্রধান শিক্ষকদের মাঝে স্বাধীনতা পুরস্কার, মেধাবী ছাত্র/ছাত্রীদের এবং প্রতিটি বিদ্যালয়ের জন্য একটি করে স্মৃতি পুরস্কার দেওয়া হয়।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT