টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে ইয়াবার চালান নিয়ে বিএনপি নেতার যড়যন্ত্রের তথ্য ফাঁস

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৬ জুলাই, ২০১২
  • ২১৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

২হাজার ইয়াবার লোভ দিয়ে বিএনপি নেতা জাফর মেম্বার আসামী করেছে ৪ যুবলীগ কর্মীকে  (স্বীকারোক্তির ভিডিও ফুটেজ আছে)
মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম,টেকনাফ ।   টেকনাফের লেদায় সম্প্রতি নাফনদী হতে বিজিবি বিরাট ইয়াবার চালান আটকের ঘটনায় ষড়যন্ত্র করে নৃশংসভাবে খুন হওয়া আওয়ামীলীগ নেতা আবুল কাশেম হত্যা মামলার আসামী ও ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জাফর আলম গং  ইনফর্মারকে ২হাজার পিস ইয়াবার লোভ দিয়ে বাদী পক্ষের ৩সহোদরকে আসামী করার চাঞ্চল্যকর তথ্য অবশেষে ফাঁস হয়ে পড়েছে। স্থানীয় বিজিবি জওয়ানেরা কোন প্রলোভনে এ ফাঁদে পা দিয়েছিল তা নিয়ে সচেতন মহলে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

গত ১৫জুলাই বিকালে উক্ত ইনফর্মারকে সংবাদকর্মীদের সামনে হাজির করা হলে স্বীকারোক্তিতে বেরিয়ে আসে কাশেম হত্যা মামলার বাদীদের হয়রানি করতে নানা চক্রান্তের অজানা কাহিনী । ইয়াবার চালান আটকের দিন পূর্ব লেদার জাফর আলমের দু,পুত্র তৈয়ব ও বেলাল এবং আবুল কাশেমের পুত্র তাহের আটককৃত ইয়াবার চালানটি আনতে যায় । তারা কিনারায় পৌছঁলে হ্নীলা বিজিবি সংবাদ পেয়ে স্পীডবোট নিয়ে অভিযান চালায় । উক্ত চক্র ইয়াবার চালানটি ঝোঁপের মধ্যে ফেলে দেয় । এরপর বিজিবি জওয়ানেরা নিরাশ হয়ে ফিরে যায় এবং উক্ত ৩সদস্য বাড়িতে ফিরে আসে। এরপর ইনফর্মার জয়নাল ও লেদা বিওপির টহল কমান্ডার হাবিলদার দেলোয়ার ঝোপঁ হতে ইয়াবার চালানটি জব্দ করে নিয়ে যায় । এসময় কোন লোকজন সেখানে ছিলনা এবং ইনফর্মারকে ২হাজার পিস ইয়াবা দেওয়ার কথা দিয়েছিল কাশেম হত্যা মামলার ১নং আসামী ও ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জাফর আলম মেম্বার । এরপর আমি ঘরে চলে যাই কিন্তু পরদিন জানি মেম্বারের সাথে গ্র“পিংয়ের কারণে বিপক্ষের লোকজনকে আসামী করা হয়েছে। কিন্তু আমাকে দেওয়ার ২হাজার ইয়াবার জন্য মেম্বারের কাছে ফোন করলে মোবাইল রিসিভ করছেনা বলেই অভিযোগ করে।

উল্লেখ্য ইয়াবার চালান আটক করিয়ে দেওয়া ইনফর্মার আরো জানান-দীর্ঘদিন যাবত স্থানীয় মেম্বার জাফর আলম পূর্ব লেদা গ্রামের রশিদ আহমদের পুত্র জয়নাল উদ্দিন (২৫) কে বলেন ইয়াবার চালান আসলে আমাকে খবর দিও। চালান বড় হলে তোমাকে ২ হাজার পিস ইয়াবা বিজিবি হতে নিয়ে দেব। কিন্তু আমি যাদের নাম দিব তাদের মাল বলে তোমাকে স্বীকার করতে হবে। কথামত ঘটনার ঐদিন শেষ বিকেলের দিকে একটি নৌকা আসতে দেখে উক্ত ইনফর্মার জাফর মেম্বারকে ফোন করে চালান আসার কথা জানায়। মেম্বার বিজিবিকে তথ্য দেওয়ার পর উক্ত ইনফর্মারকে নিয়ে শুরু হয় অভিযান। বিজিবি পরিত্যক্ত ইয়াবা জব্দ করে নিয়ে যায়। সংবাদকর্মীরা রাত ১০টা – সাড়ে ১০টা পর্যন্ত অভিযানকারী হাবিলদারের নিকট জানতে চাইলে তিনি পরিত্যক্ত চালান পাওয়ার কথা স্বীকার করেন। কিন্তু গভীর রাতে রহস্যজনক কারণে কাশেম হত্যা মামলার বাদী নুরুল হুদাসহ ৩সহোদর এবং অপর এক নিকটাতœীয়সহ ৪জনকে পলাতক আসামী করে মামলা দায়ের করে এবং কাশেম হত্যা মামলার ১নং আসামী ও ৫নং আসামীর ভাইকে স্বাক্ষী করা হলে ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে স্থানীয় রাজনৈতিক অঙ্গন। ইউনিয়ন যুবলীগ সংবাদ সম্মেলন করে সড়ক অবরোধের কর্মসূচী ঘোষণা করলে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠে । পরে স্থানীয় এমপি ও টেকনাফের আইন প্রয়োগকারী সংস্থার উধর্বতন কর্তৃপক্ষ ও জনপ্রতিনিধিদের হস্তক্ষেপে অবরোধ স্থগিত ঘোষণা করা হয়। ষড়যন্ত্রমুলক ইয়াবা মামলার আসামীরা ষড়যন্ত্রের মুখোঁশ উম্মোচন করতে তৎপর হওয়ায় আস্তে আস্তে তাদের ষড়যন্ত্রের তথ্য ফাঁস হয়ে পড়ায় বিজিবির ভাবমূর্তিও ক্ষুন্ন হচেছ। বিএনপি নেতার প্রশাসন ম্যানেজ করে যুবলীগ নেতাদের হয়রানির ঘটনায় আওয়ামী লীগ পরিবার ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠছে । ############################################

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT