টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে আওয়ামীলীগ- বিএনপির পৃথক পৃথক সংবাদ সম্মেলন

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১২
  • ১৫৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হুমায়ুন রশিদ…..হ্নীলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ-সংগঠন :আওয়ামীলীগের পূর্বঘোষিত কর্মসূচী পালনে প্রশাসনিক বাঁধার সম্মুখীন হলে সংবাদ সম্মেলন করে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন- হ্নীলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ আহবায়ক- আলহাজ্ব এইচ কে আনোয়ার, যুগ্ন-আহবায়ক- সিরাজুল ইসলাম সিকদার, উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক-নজরুল ইসলাম খোকন,আওয়ামীলীগ নেতা মোহাম্মদ আলম, শফিক আহমদ মেম্বার ,জাফর আলম সাদেক ও হ্নীলা ইউনিয়ন যুবলীগ- সভাপতি- মমতাজুল ইসলাম কালাম,ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক-ছাবের খাঁনসহ উপস্থিত নেতৃবৃন্দ লিখিত বক্তব্যে বলেন-টেকনাফ উপজেলার লেদা এলাকায় যুগ যুগ ধরে আদি বংশ থেকে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বক্কর মেম্বার গ্র“প ও কাশেম গ্র“পের সৃষ্টি হয় । বক্কর মেম্বারের মৃত্যুর পরবর্তীতে জাফর মেম্বার গ্র“পের সৃষ্টি হয়। উভয় গ্র“প এলাকায় নিজেদের আধিপত্য বিস্তারের জন্য সময় সুযোগে হত্যা, খুন, লুটপাট অব্যাহত রাখত। যার পরিণতি গত বিএনপিসহ চারদলীয় জোটে সরকারের আমলে লেদা বিজিবি ক্যাম্প ও জাফর মেম্বারের বাড়ির সামনে প্রকাশ্যে দিন-দুপুরে আওয়ামীলীগ নেতা আবুল কাশেমকে নৃশংসভাবে গাছে পেরেক ঠুকে হত্যা করে। একপক্ষ অপর পক্ষকে ঘায়েলের জন্য মিথ্যা মামলা দায়েরে প্রশাসনকে প্রলুদ্ধ করে স্বার্থ হাসিলে ব্যবহার করতো। এসব বিশৃংখল কর্মকান্ড পারিবারিক ও গোষ্ঠী কেন্দ্রিক হওয়াই কারো মাথাব্যথা হতো না। এরই ধারাবাহিকতায় ১সেপ্টেম্বর বিকালে একটি হামলার সুত্রপাত হলেও আবছার কামাল পালিয়ে যাওয়াই পরিস্থিতি শান্ত হয়। কিন্তু জাফর আলম মেম্বার প্রশাসনিক দাপট দেখাতে গিয়ে লেদা বিজিবি কোম্পানী কমান্ডারকে দিয়ে উদ্ধারের শক্তি প্রদর্শন করলে দুপক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এখানে কোন রাজনৈতিক ইন্দন ছিলনা । যা তাদের একান্ত পারিবারিক বলে জনশ্র“তি রয়েছে। এ ঘটনাকে স্বার্থ হাসিলে ব্যবহার করে বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠন সমুহের নেতা-কর্মীরা। আওয়ামীলীগ সভানেত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা , স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি , আওয়ামীলীগ,যুবলীগ ও ছাত্রলীগকে অম্লীল এবং কুরুচিপূর্ণ ভাষায় গালি-গালাজ করে এক নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি অবনতি করার পায়তারা চালায় যুবদল নেতা রফিকুল আলম চৌধুরী, মুরাদ হোসেন চৌধূরীসহ ৮/১০জন নেতা কর্মী। তারা অশালীন ভাষায় কটুক্তি করে হেয় প্রতিপন্ন করে এবং সাম্প্রদায়িক উস্কানিমুলক শ্লোগান দেয়। সাবেক এমপি অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী, সাবেক চেয়ারম্যান এইচ কে আনোয়ার ও সিরাজুল ইসলাম সিকদারকে ভাড়াটে গুন্ডা হিসেবে আখ্যায়িত করে। হ্নীলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গ সংগঠন এসব কুরুচিপূর্ণ আচরনের প্রতিবাদ জানানোর জন্য প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে ৪ঠা সেপ্টেম্বর প্রতিবাদ কর্মসূচীর প্রচারনা চালালে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন পাল্টা কর্মসূচী দিয়ে সংঘাতময় পরিস্থিতির চক্রান্ত করে। উপজেলা প্রশাসন আইন-শৃংখলা রক্ষার্থে ১৪৪ধারা জারি করায় আইনের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে আমরা আপনাদের মাধ্যমে দেশ ও জাতির কাছে কারো পারিবারিক বিষয় নিয়ে একটি দেশের প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ সদস্যকে কটুক্তি করার বিচার চাই এবং ক্ষমতাসীন একটি দলকে জনসম্মুখে হেয় প্রতিপন্ন করার দুঃসাহস কারা যোগায় তা বের করার জন্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করছি । ### টেকনাফ উপজেলা ও হ্নীলা ইউনিয়ন বিএনপি :
টেকনাফ উপজেলা বিএনপি ও নীলা উত্তর -দক্ষিণ শাখা বিএনপির যৌথ উদ্দ্যোগে বিকাল ৪টায় উপজেলা বিএনপির সভাপতির মৌলভীবাজারস্থ বাড়ী প্রাঙ্গনে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের ষড়যন্ত্র ও প্রশাসন কর্তৃক ১৪৪ ধারা জারীর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে উপজেলা বিএনপির সভাপতি সরওয়ার কামাল চৌধূরী বলেন সরকার, আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ যোগসাজশ করে বিরোধীদলের পূর্বঘোষিত ও শান্তিপূর্ণ কর্মসুচীতেপাল্টা কর্মসূচী দিয়ে নির্লজ্জভাবে হস্তক্ষেপ করে গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করেছে। আমরা টেকনাফ উপজেলা বিএনপির পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচিছ। আগামীতে গনতান্ত্রিক অধিকার যাতে আওয়ামীলীগ সরকার হরণ করতে না পারে সে ব্যাপারে দেশবাসীকে সজাগ থাকতে হবে। ওয়ান ইলেভেন না থাকলেও মনে হয় দেশে এর চেয়েও বেশী ভয়ংকর অবস্থা বিরাজ করছে। মানুষের জানমালের কোন নিরাপত্তা নেই। এ সময় উপস্থিত ছিলেন-উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক- মোঃ আব্দুল¬াহ এল এলবি, হ্নীলা উত্তর বিএনপির আহবায়ক- আবছার কামাল নোবেল, দক্ষিণের আহবায়ক-নুরুল আমিন চৌধুরী,যুগ্ন আহবায়ক-আমির হোসেন,জুহুর আলম,বিএনপি নেতা জামিল হোছাইন, পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক- মোঃ আব্দুল¬াহ,
পৌর ছাত্রদলের আহবায়ক- আব্দুস সালাম,যুবদলের আহবায়ক-রফিকুল আলম চৌধুরী, যুগ্ন আহবায়ক-মুরাদ হোসেন, হোছাইন মুহাম্মদ আনিম, ছাত্রনেতা- রিদুয়ান, হারুন, হেলাল, ইসমাঈল , হামিদ, ছৈয়দ আহমদ,আব্দুর রহিম ও আবুল মঞ্জুর প্রমুখ।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT