টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাদের মাঝে মাংস ও ত্রাণ বিতরণ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৬ আগস্ট, ২০১২
  • ১৯০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফঃ উপকূলীয় ঝাউবাগানে বসবাসরত অবৈধভাবে অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাদের মধ্যে গত ২দিন ধরে ত্রাণ বিতরণ করেছে রোহিঙ্গা ভিত্তিক একটি এনজিও। অথচ স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশ এব্যাপারে রহস্যজনক বেখবর। জানা যায়- টেকনাফ উপজেলার উপকূলীয় ইউনিয়ন বাহারছড়ায় সাগর সৈকতের ঝাউবাগানে শত শত রোহিঙ্গা পরিবার ঝুপড়ি ঘর তৈরী করে বসবাস করে আসছে। গত ৮ জুন মিয়ানমারের আরকান রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিম-রাখাইনদের মধ্যে জাতিগত সংঘাতের পর রোহিঙ্গা মুসলিমরা দলে দলে টেকনাফ সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে অনুপ্রবেশ করে। তা বর্তমানেও অব্যাহত রয়েছে। বিজিবি প্রতিদিন এদের নাফ নদীর তীর থেকে আটক করে পুশব্যাক করছে বলে দাবী করলেও একস্থান দিয়ে পুশব্যাক করলে আরেক স্থান দিয়ে উঠে যায়। এসব রোহিঙ্গাদের অধিকাংশই আশ্রয় নিয়েছে বাহারছড়ার ঝাউবাগানে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে- সৈকতের ঝাউবাগানে এবং আশপাশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিদিনই বৃদ্ধি পাচ্ছে অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাদের সংখ্যা। ২৫ আগষ্ট বিকালে বাহারছড়া শামলাপুর ঝাউবাগানে ৭টি এবং নিকটস্থ নূরানী মাদ্রাসা মাঠে ১টি মোট ৮টি বড় বড় গরু জবাই করা হয়। মাংস তৈরী ও পলিথিনে ভরে প্যাকেট করে প্রায় দেড় হাজার পরিবারের মধ্যে বিলি বন্টন করতে সন্ধ্যা হয়ে যায়। ২৬ আগষ্ট সকালে আবার ভোজ্য তেল, চাল ও ডাল বিতরণ করা হয়। রমজান মাসেও এসব রোহিঙ্গা পরিবারের মধ্যে এক বস্তা করে চাল, সেমাই, চিনি, ডাল, তেল বিতরণ করা হয়েছিল। অনুপ্রবেশকারী এসব রোহিঙ্গা পরিবারের মধ্যে এভাবে ত্রাণ বিতরণ করায় স্থানীয় জনমনে বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। বাহারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাইফুল্লাহ কোম্পানী রোহিঙ্গাদের মধ্যে মাংস ও ত্রাণ বিতরণের সত্যতা স্বীকার করে জানান- সরকার দলীয় স্থানীয় কিছু যুবক এসব কাজে সর্বাতœক সহযোগিতা করেছে। মালামাল বিতরণের সময় আরবী ও ইংরেজী লেখা ব্যানার ধরে অজ্ঞাত পরিচিত কুর্তা ও জুব্বা পরিহিত ৪/৫ জনকে ভিডিও এবং ডিজিটাল ক্যামেরায় ছবি তুলতে দেখা গেছে। এব্যাপারে জানতে চাইলে বাহারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান মাওঃ হাবিবুল্লাহ বলেন- রোহিঙ্গাদের মধ্যে মাংস ও ত্রাণ বিতরণ বিষয়ে কেউ তাঁকে অবহিত করেনি। ৮টি বড় বড় গরু জবাই করে বিলি-বন্টন, তাও আবার রোহিঙ্গাদের মধ্যে, সর্বত্র জানাজানিসহ হুরুস্থুল ব্যাপার হলেও এবং ঘটনাস্থল হচ্ছে শামলাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সামান্য দূরত্বে। এপ্রসঙ্গে যোগাযোগ করা হলে শামলাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি এরশাদুল্লাহ বলেন- এব্যাপারে আমি কিছুই জানিনা। তবে ভিন্ন একটি সূত্র দাবী করেছে- মাংস ও ত্রাণ বিতরণের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছিল। কিন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। এদিকে অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাদের মধ্যে মাংস ও ত্রাণ বিতরণের খবর মোবাইল ফোনের বদৌলতে মিয়ানমারের আরকান রাজ্যে ছড়িয়ে পড়ায় দলে দলে রোহিঙ্গারা সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে ঢুকার চেষ্টা করছে। বিজিবি এদের ঠেকাতে হিমশিম খাচ্ছে।########

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

One response to “টেকনাফে অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাদের মাঝে মাংস ও ত্রাণ বিতরণ”

  1. jahangir says:

    hafez mohamamd aksim, ???
    ek musulman r ek musalman k ,, sha hajjo kora abong khuj khobor niya , eta hoilu SAHIH HADIS,judi na janle kono bhalo amoli muluvi k jizaggasha korle jana jabe, shudhu shorkar shorkar korle tumar kono kisu lav hobena r amader shorkarer kono guarantee nai, k ashe k jai, kintu qiyamoter guarantee 100% kono shok shoba nai, hijroter shomoi nabi S.A.W.S er shate ANSAR der ki obosta chilu eta o jana dorkar, na hole mone hoi shudhu DARI r topi diya kono kaj habena , karon dari YAHOODI RA O rakeh r sikh ra o rakhe,
    allah shobhai k HIDAYATER pot dakahr duaa
    ameeeen
    allah hafez

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT