টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
ক্রিস্টাল আইস মেথসহ সোনাইমুড়ির ফাহিম শাহরিয়ার গ্রেপ্তার শেখ হাসিনার বিশেষ উপহার চাল বিতরণে ব্যস্ত জনতার বদি মসজিদে নামাজে অংশ নিতে পারবেন সর্বোচ্চ ২০ জন টেকনাফে ইয়াবা নিয়ে তিন রোহিঙ্গাসহ ৫ কারবারী গ্রেপ্তার লকডাউনে বন্ধ থাকবে ব্যাংক: এটিএম খোলা বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারও অগ্নিকাণ্ড ভারতে পবিত্র কোরআন শরিফের ২৬ আয়াত অপসারণের রিট বাতিল: আবেদনকারীর জরিমানা সাংবাদিক ফরিদ বাবুলের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ  জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবীতে, প্রধানমন্ত্রী বরাবর টেকনাফ বিএমএসএফের স্মারকলিপি প্রদান মক্কা-মদিনায় তারাবি ১০ রাকাত পড়ার নির্দেশ

টেকনাফের ৩টি স্কুলে প্রধান শিক্ষক নেই

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল, ২০১৩
  • ১১৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম,টেকনাফ …শিক্ষা বছরের শুরুতেই টেকনাফে ৩৪টি সরকারী প্রাইমারী স্কুলে ৩৬ টি পদ শুন্য হয়ে পড়েছে। তার মধ্যে আবার ৩টি সরকারী প্রাইমারী স্কুলে প্রধান শিক্ষক নেই। এই ৩টি স্কুল হচ্ছে- কেরুনতলী ও কাটাখালী পাশাপাশি ২টি স্কুল এবং সেন্টমাটিনদ্বীপ (জিনজিরা)। তাছাড়া বদলী তদবিরে সফল হয়ে টেকনাফ থেকে চলে যাওয়ায় ৫টি স্কুল চলছে মাত্র ২জন শিক্ষক দিয়ে। অথচ প্রত্যেক স্কুলে ১ হাজারেরও অধিক শিক্ষার্থী রয়েছে। স্কুলগুলো হল- সেন্টমাটিনদ্বীপ (জিনজিরা), শাহপরীরদ্বীপ জালিয়াপাড়া, মুন্ডারডেইল, দক্ষিণবড়ডেইল, সাবরাং। সব মিলিয়ে শিক্ষক সংকট টেকনাফের প্রাইমারী শিক্ষাঙ্গণে চলছে চরম অচলাবস্থা। গত ২৪ এপ্রিল টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্টিত সভায় এনিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। টেকনাফ উপজেলা শিক্ষা অফিসার সুব্রত কুমার ধর নিজেই বিষয়টি সভায় উত্থাপন করেন। তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, বছরের শুরুতে টেকনাফ উপজেলার সরকারী প্রাইমারী স্কুল সমূহে কর্মরত বেশ কিছু শিক্ষক বদলীর তৎপরতা শুরু করেন। মার্চ মাস শেষ হওয়ার আগে টেকনাফ উপজেলার ৩৪টি সরকারী প্রাইমারী স্কুলে কর্মরত ২১৫টি মোট মঞ্জুরী পদের মধ্যে ৩৬টি শুন্য হয়ে যায়। আরও বেশ কয়েকজন শিক্ষক বদলীর তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। একই স্কুল থেকে একসাথে  ৪জন শিক্ষক-শিক্ষিকা বদলী হয়ে গিয়েছেন-  এমন রেকর্ডও রয়েছে। এনিয়ে অভিভাবক মহল চরম উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বদলী প্রতিযোগিতায় বিজয়ীরা হলেন-সাবরাং স্কুলের শাহিদা আক্তার, দিলুয়ারা আক্তার, শবনম পারভীন, দিলরুবা ইয়াছমিন। মুন্ডার ডেইল স্কুলের পান্না আক্তার, মুক্তিয়ারা খাতুন, শেলী দে, মুফিজুর আলম। সেন্টমাটিনদ্বীপ স্কুলের ইমরোজ ইসলাম ও রুবেল আহমদ। রঙ্গিখালী স্কুলের কামরুন নাহার ও সাবিনা ইয়াছমিন। ঝিমংখালী স্কুলের তসলিমা আক্তার, শারমিন নিগার ও লাভলী শর্ম্মা। দক্ষিণ বড় ডেইল স্কুলের আফরোজা সোলতানা ও শাফিয়া আক্তার । কাটাখালী স্কুলের প্রধান শিক্ষক জসীম উদ্দীন। নয়াপাড়া স্কুলের তাহমিনা আলমাছ। শাহপরীরদ্বীপ জালিয়াপাড়া রেবেকা সোলতানা, শারমিন আক্তার ও আমরিনা খাতুন। লেঙ্গুরবিল স্কুলের সীমা ভট্টাচার্য্য । রাজারছড়া স্কুলের দিদারুল আলম। মহেষখালীয়া পাড়া স্কুলের রোমানা আফাজ। কেরুনতলী স্কুলের জিসান শামশেদ ও সেলিনা আক্তার পিংকি। বড়ডেইল স্কুলের মিজানুর রহমান । হোয়াইক্যং স্কুলের তাসনিন  নাহার। বদলী তদবিরে সফলদের মধ্যে মাত্র ৬ জন শিক্ষক, অবশিষ্ট সকলেই শিক্ষিকা । সারা দেশের মধ্যে শিক্ষার হার সর্ব নিম্ম হচ্ছে টেকনাফ উপজেলা। এমনিতেই টেকনাফ প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ নানা সমস্যায় জজর্রিত । উপরন্তু শিক্ষা বছরের শুরুতেই উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষক বদলী হয়ে যাওয়াতে অভিভাবকেরা তাদের শিশুদের লেখাপাড়া নিয়ে শংকিত হয়ে পড়েছেন। তাছাড়া ৩টি স্কুলে প্রধান শিক্ষকও নেই। ওয়াকিবহাল মহলের  মতে, সবচেয়ে দুঃখজনক ব্যাপার হচ্ছে-মঞ্জুরীকৃত সৃজিত শুন্য পদের বিপরীতে পোস্টিং প্রাপ্তরা তববিরের জোরে বদলী হয়ে গিয়েছেন বিধায় শুন্য পদ গুলো পূরণ হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কেননা টেকনাফের বাইরের বাসিন্দাগণ কোন অবস্থাতেই স্বেচ্ছায় টেকনাফ উপজেলায় পোস্টিং নিয়ে আসেন না। নতুন নিয়োগ হলে তাঁরা সৃষ্ট পদে পদায়ণ হবেন।#######

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT