টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফের হাসান ফকিরের দুঃখের কাহিনী

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩
  • ১২২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

vvvvনিজস্ব প্রতিবেদক : শৈশবে বাবাকে হারানোর ব্যথায় কিশোর বয়সে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানের পাহাড় জঙ্গলে ঘুরে বেড়িয়েছে হাসান ফকির।  মানসিক ভারসাম্যহীন অবস্থায় তার জীবন থেকে কেটে গেল প্রায় ৩০টি বছর। ইতিমধ্যে জনমদুঃখী মা, নানা, নানী, দাদা ও দাদীসহ বহু আত্মিয় স্বজন হারিয়ে যায় তার জীবন থেকে। বিগত ১০/১২ বছর হচ্ছে সে একজন গাড়ী চালকের সহায়তায় ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠেন। সেই তার আত্মীয় স্বজন, গ্রাম ঠিকানা খোঁজতে থাকে এক পর্যায়ে সে তার ভাইব্রাদর সবাইকে পেয়ে যান। স্থানীয় কিছু হৃদয়বান ব্যক্তিবর্গ  ও সরকারী কর্মকর্তাদের সার্বিক সহযোগিতায় তার দাদার বাড়ী বাহার ছড়া ইউনিয়নের বড় ডেইল গ্রামে যান এবং জমি জমার সন্ধান পান। বড় ডেইল মৌজার মৃত নুর বানু বিবির নামে আর.এস ২৩১, ১৮৭ ও ৭১ নং খতিয়ানে চুড়ান্ত প্রচার আছে। কিন্তু বি.এস জরিপের সময় বাহার ছড়া ইউনিয়নের বাইন্যাপাড়া গ্রামে হাফেজ মিয়ার পুত্র মুন্তাজ মিয়া, পাঁচকড়ির পুত্র মাষ্টার আব্দুস শুকুর ও মৃত নাসির মুহাম্মদের স্ত্রী গোল মেহের নামে প্রভাবশালীমহলের সহযোগিতায় সু-কৌশলে জমির বি.এস রেকর্ড করিয়ে নেয়। এলাকার সচেতন মহল আক্ষেপ করে বলেন হাসান ফকিরের বাব-দাদার জমি জমা থাকার পরও ঠিকানাবীহিন অবস্থায় টেকনাফ পৌরসভা সংলগ্ন ফকিরা মোড়ায় অবস্থান করেন। কিন্তু ভাগ্যের নিমর্ম পরিহাস সেখানেও হাসান ফকিরের ঠাই হচ্ছে না কারণ অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গা যারা বর্তমানে ফকিরা মোড়া কেটে ঘরবাড়ী নিমার্ণ করেছে এবং দখল বিক্রি করে মোটা অংকের টাকা আয় করেছে।  সেই  দখলদার রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশী কিছু অসাধূ লোক মিলিত হয়ে বিভিন্ন সময়ে বাহার ছড়া ইউনিয়ন ও সাবরাং ইউনিয়নের বিভিন্ন ঘাট থেকে মালেশিয়াগামী দালালদের সহযোগিতা বোটে লোক দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। সেই টাকায় মদ,গাজা, নারী ও শিশু  প্রচার এবং বার্মা থেকে মেয়ে এনে দেহ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এই অপকর্ম বাধা দেওয়ায় নিম্মোক্ত ব্যক্তিগন জুট বেধে ফকিরা মোড়া থেকে হাসান ফকিরকে বিড়াড়িত করে দেয়  ও তাদের আমোদ পুর্তি চালে যাচ্ছে।  আর মাঝে মধ্যে হুকার দিয়ে গর্ব করে বলে আমরা হলাম নিহত ডাকাত সর্দার মালেক বাহিনীর সক্রিয় সদস্য।  যথাক্রমে- টেকনাফ পৌরসভা এলাকার ফকিরা মোড়ার পদাদেশে অবস্থানকারী ১. মৃত মোঃ হোসেনের পুত্র ওসমান (৪৮),  ২। ওসমানের স্ত্রী হামিদা বেগম(৩৯), ৩। মৃত বদিউর রহমানের পুত্র মোঃ ইউনুছ(৩৮), ৪। মৃত বদিউর রহমানের পুত্র  মোঃ সোলেমান (৩৫), ৫। লাল মিয়ার স্ত্রী হাসিনা বেগম(৩৮), ৬। ওসমানের পুত্র আব্দুল গণি প্রকাশ বাবুল, বাহার ছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালীয়া পাড়া গ্রামের আহমদের বিদেশ ফেরত পুত্র আব্দুল হাকিম (৩৮), মালেশিয়া বোট থেকে ফেরত কলাম ফকিরের পুত্র নুরুল আলম(২৮) প্রকাশ বেলাল এবং সাবরাং মুন্ডার ডেইল এলাকার মনছুর প্রকাশ মঞ্জুর ফকিরা মোড়ায় ভিটা ক্রয়কারী ও দেহব্যবসায়ী এবং আদম প্রচারকারী গডফাদার হিসাবে খ্যাত  মনছুর প্রকাশ মঞ্জুর(৪৯) ফকিরা মোড়ায় মদ, গাজা ও নারা নিয়ে পুর্তি করে যাচ্ছে। এই বিষয়টি আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী ও বন বিভাগ সরেজমিন তদন্ত করলে আসল রহস্য স্বচোক্ষে দেখতে পাবেন। এ ছাড়া অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গা নির্বাচন অফিসের ফারুক সাহেবকে টাকা ও নারীর বিনিময়ে ম্যানেজ করে ভোটার ও ন্যাশনাল আইডি কার্ডও সংগ্রহ করে (হালিমা খাতুন, স্বামী-আব্দুস সলাম ও উবায়দুর রহমান, পিতা-মোৗঃ কুদ্দুস)  এবং নিজেরা বাংলাদেশী হিসাবে দাবী করেন। জরুরী ভিত্তিতে সামাজিক পরিবেশ ও পাহাড়ী পরিবেশ ধবংসকারীদের বিরোদ্ধে পদেক্ষপ নেয়ার জন্য এলাকাবাসী জোর দাবী যাচ্ছে। #

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT