টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফের গ্রামীণ সড়কে শিক্ষার্থীদের সৃজিত গাছ কর্তন

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ১১ মে, ২০১৩
  • ১৮২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

রমজান উদ্দিন পটল, টেকনাফ (কক্সবাজার) সংবাদদাতা ॥      টেকনাফের হ্নীলা পুরাতন বাজার সড়কে শিক্ষার্থী ও স্থানীয় পথচারীদের সবুজ ছায়া ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগের স্বপ্ন নিয়ে  স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের সৃজনকৃত গাছ কর্তন করায় শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও সাধারণ জনগণের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। চার বছর আগে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে যৌথ চুক্তিমতে দীর্ঘ সড়কের দু’পাশে রোপনকৃত শতশত গাছ ক্রমে সবুজ সমারোহে ভরে উঠে। প্রভাবশালী মহল ও দুর্বৃত্তরা সড়কের দু’পাশে বড় হয়ে উঠা সৃজিত গাছ এক একটি করে নির্বিচারে উজাড় শুরু করে। এ কারণে সড়কের শ্রীহানি, দু’পাশের মাটি ধ্বসসহ পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি সাধিত হওয়ার পাশাপাশি সারিবদ্ধ সবুজ ছায়ায় ঘেরা গাছের সৌন্দর্য ও সুশীতল ছায়া উপভোগসহ মানব জীবনে বৃক্ষের উপকারিতা নিয়ে স্থানীয় স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের স্বপ্নে লক্ষ্যমাত্রা ভেঙ্গে চুরমার হতে যাচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (১০ মে) সকাল ১১টার দিকে ২০০৯ সালের ২৫ জুলাই উপজেলা পরিষদ, বনবিভাগ ও সড়ক-জনপথ বিভাগের অনুমোদিত পন্থায় স্থানীয় হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের সাথে চুক্তিবদ্ধ হ্নীলা স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন কর্তৃক বনায়নকৃত আকাশমনি গাছ কেটে ফেলেছে স্থানীয় প্রভাবশালী জনৈক জসিম উদ্দিন। ঘটনার সময় উপস্থিত ওই এসোসিয়েশনের অর্থ সম্পাদক মোঃ ফায়সাল ও স্থানীয় মৃত মোঃ আলীর পুত্র শাহ আলম জানান, সম্প্রতি নাফনদীর বেড়িবাঁধে স্থাপনের জন্য দিনাজপুরের কঠিন শিলা (বড় পাথর) রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার পুইক্কা সওদাগরের জমি ভাড়া নিলে তিনি পাথর রাখার জন্য কারো অনুমতির তোয়াক্কা না করে ওই গাছ কেটে ফেলেন। এসোসিয়েশন সভাপতি আবদুল্লাহ আল খালেদ জানান, চার বছর আগে ছয় চেইন সড়কে ১১৫টি আকাশমনি, কৃষ্ণচুড়া ও নিম গাছ রোপন পূর্বক নিবিড় পরিচর্যার মাধ্যমে ওই গাছগুলো বড় করে তুলে। গাছ কাটায় তারা আইনের আশ্রয় নেবে জানায়।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT