টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফের খুরশিদার বিশ্ব রেকর্ড

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১২
  • ১৪৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ ……..শুধু বাংলাদেশে নয়, জাতিসংঘের পুরস্কার পেয়ে বিশ্বসেরা হয়েছেন টেকনাফের খুরশিদা বেগম। তিনি টেকনাফ সদর ইউনিয়নের কেরুনতলী গ্রামের প্রয়াত মাষ্টার নুরুল ইসলামের ২য় স্ত্রী ও ২ সন্তানের জননী। সদর ইউনিয়নে ৯নং ওয়ার্ডে পুরুষ নম্বর পদে প্রতিদ্বন্দিতায় নেমে একাধিক পুরুষ প্রার্থীকে পরজিত করে বিজয়ী হয়ে সারা দেশে তোলপাড় সৃষ্টি করেছিলেন। আর এবারে বিশ্বের ৫ শতাধিক প্রতিযোদিকে পিছনে পেলে সারা দুনিয়ায় তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। বন ও প্রকৃতি রক্ষায় অবদানের জন্য বিশ্বসেরা মহিলা হিসেবে ‘ওয়াংগারি মাথাই’ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন টেকনাফের মহিলা মেম্বার খুরশিদা বেগম। ২৭ সেপ্টেম্বর ইটালীর রাজধানী রোমে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি পুরস্কার গ্রহণ করবেন। পুরস্কার বাবদ তাকে ২০ হাজার ডলার, সার্টিফিকেট, ক্রেস্ট, যাতায়াতসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা প্রদান করা হবে। কক্সবাজার বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (দক্ষিণ) বিপুল কৃষ্ণ দাশ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ অর্জন শুধু কক্সবাজার জেলার জন্য নয়, এ পুরস্কার সমগ্র বাংলাদেশের অনন্য অর্জন। জানা যায়- বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রতিযোগীদের সাথে লড়াই করে বাংলাদেশ এ পুরস্কার অর্জন করেছে। যা দেশের জীববৈচিত্র্য ও পরিবেশ সংরক্ষণে বাংলাদেশ যে এগিয়ে আছে তা বিশ্বের কাছে প্রমাণ করেছে। সারা বিশ্বে যেসব মহিলা বন, প্রকৃতি ও পরিবেশ রক্ষায় অবদান রাখছে তাদের এবং তাদের দেশকে উৎসাহিত করার জন্য ২০১২ সাল থেকে ‘ওয়াংগারি মাথাই’ পুরস্কার চালু করা হয়। যার আয়োজক হিসাবে রয়েছে জাতিসংঘের কয়েকটি অঙ্গ সংস্থাসহ আন্তর্জাতিক ১০টি সংগঠন। বিশ্বের ৫ শতাধিক মহিলা এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। আয়োজক কমিটি যাচাই বাছাই এবং সরেজমিনে তথ্য সংগ্রহ করে বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণের টেকনাফ উপজেলার কেরুনতলী গ্রামের মৃত লোকমান হাকিমের কন্যা খুরশিদা বেগমকে মনোনীত করেন। বন পরিবেশ এবং মৎস্য প্রানীসম্পদ মন্ত্রণালয় এবং বন অধিদপ্তরের নিসর্গ আইপ্যাক প্রকল্পের টেকনাফ সহব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য, মহিলা বন পাহারা দল কমিটির সভাপতি খুরশিদা বেগম ২০০৬ সাল থেকে বন, প্রকৃতি ও পরিবেশ রক্ষায় কাজ শুরু করেন। ২৮ জন সদস্য নিয়ে তিনি বাংলাদেশে প্রথম মহিলা বন পাহারা দলের দলনেতা হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। ছাত্র ছাত্রী, জনপ্রতিনিধি, উঠান বৈঠকসহ স্থানীয় সাধারণ মানুষের মধ্যে জনসচেতনতা সৃষ্টি, নিয়মিত বন পাহারা এবং জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ করে প্রকৃতি উন্নয়নের ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন এনে সাড়া জাগিয়েছেন খুরশিদা, যা বিশ্বের কাছে বিশেষভাবে অনুপ্রেরণা হয়ে আছে। কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের তত্ত্বাবধানে নিসর্গ আইপ্যাক প্রকল্পের ৫টি সহব্যবস্থাপনা কমিটির একটি হচ্ছে টেকনাফ সহব্যবস্থাপনা কমিটি। সহব্যবস্থাপনা কমিটির অন্যতম একটি অংশ হচ্ছে মহিলা বন পাহারাদার দল। এই দলের সভাপতি খুরশিদা বেগম অক্লান্ত পরিশ্রম ও আন্তরিক কর্মকান্ডের ফসল হচ্ছে এ পুরস্কার। ওয়াংগারি মাথাই পুরস্কার পাওয়াতে বাংলাদেশের জলবায়ু পরিবর্তন এবং দুর্যোগ প্রমশনের জন্য বাংলাদেশের নাম সারা বিশ্বে দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছেন। পুরস্কারে প্রাপ্য টাকা দলীয় সদস্যাদের মাঝে বন্টনসহ পরিবেশ উন্নয়নে ব্যয় করবেন বলে খুরশিদা বেগম জানিয়েছেন। মোবাইল ঃ ০১৮১৯০৩৩৯০৯/০১৭১৫৬৮১৮৩২।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT