টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবীতে, প্রধানমন্ত্রী বরাবর টেকনাফ বিএমএসএফের স্মারকলিপি প্রদান

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ১২ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৩৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবীতে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন টেকনাফ উপজেলা শাখার(বিএমএসএফ)নেতৃবৃন্দরা।সোমবার দুপুরে উপজেলা কার্যলয়ে নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)পারভেজ চৌধুরীর মাধ্যমে এই স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।এ সময় উপস্থিতি ছিলেন,বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম টেকনাফ উপজেলা শাখার সভাপতি ফরহাদ আমিন,সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আমিন,অর্থ সম্পাদক মোঃআলমগীর আজিজ,নির্বাহী সদস্য নুরুল হোসাইন প্রমুখ।
স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়,বিএমএসএফ প্রতিষ্ঠার পর থেকে দেশের সাংবাদিকদের মাঝে জাতীয় এঁক্য প্রতিষ্ঠা, মর্যাদা,দাবী ও অধিকার আদায়ে কাজ করছে।২০১৩ সালে সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে দেশের অরক্ষিত গণমাধ্যম অঙ্গনকে ঢেলে সাজাতে সরকারের কাছে বিভিন্ন সময়
বিভিন্ন দাবি বাস্তবায়নে সহযোগিতা চাওয়া হচ্ছে।আপনি জানেন যে,দেশে সকল পেশাজীবিদের নিয়ন্ত্রনের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় কিংবা অধিদপ্তর রয়েছে।দেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল হিসাবে বিশ্বে খ্যাতি অর্জন করেছে। স্বাধীনতার ৫০বছরে দীড়িয়ে আজও সাংবাদিকরা পায়নি নিজন্ব কোন অধিদপ্তর কিংবা মন্ত্রণালয়।তথ্য অধিদপ্তর কিংবা তথ্য মন্ত্রণালয় আসলে সাংবাদিকদের নিজস্ব কোন প্রতিষ্ঠান কিনা তা সাংবাদিকদের কাছে অস্পস্ট।যদি তথ্য মন্ত্রণালয় সাংবাদিকদের মন্ত্রণালয় হয়েই থাকে তবে বিশ্বের
সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও ৩ মে বিশ্বমুক্ত গণমাধ্যম দিবস পালিত হতো।কিন্তু অত্যন্ত দু:খ ও পরিতাপের বিষয় তথ্য মন্ত্রণালয় কিংবা তথ্য অধিদপ্তর বিশ্বমুক্ত গণমাধ্যম দিবসের কোন কর্মসূচি পালন করে না।পাশ্ববর্তী দেশ ভারত সহ বিশ্বের সব রাষ্ট্রে সাংবাদিকদের এই আন্তর্জাতিক দিবসটি তথ্য অধিদপ্তর যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে পালন করে থাকে।বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম
২০১৭ সাল থেকে জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহ ১-৭ মে নিজস্ব গণ্ডিতে উদ্যাপন করে আসছে।তাই গণমাধ্যম সপ্তাহটি আজ সারা দেশের সাংবাদিকদের কাছে বিশেষ গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে।এই মুহুর্তে জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহটি রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবি রাখে।সাংবাদিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী; আপনার নেতৃতে পরিচালিত বর্তমান মহাজোট সরকার আমলে এদেশে সাংবাদিকনির্যাতন-নিপিড়ন,হামলা-মামলা,হয়রানি এবং হত্যার শিকারের সংখ্যা আগের তুলনায় অনেকাংশে কমলেও সাংবাদিকরা নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন।পেশাদার সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়ন এবং সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালাটি প্রণয়ন আজ সময়ের দাবি।সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়ন করা হলে এদেশ থেকে চিরতরে হলুদ, ভুয়া ও অপসাংবাদিকতার মতো কালো অধ্যায়ের যবনিকাপাত ঘটবে।অরক্ষিত গণমাধ্যম অঙ্গনে প্রনীত হয়নি সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধে একটি যুগোপযোগি আইন।বিএমএসএফ সাংবাদিকদের রূটি রুজি ও কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা নিশ্চয়তার প্রশ্নে ১৪ দফা দাবী নিয়ে কথা বলছে।বঙ্গকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী;আপনি জানেন- গণমাধ্যম একটি রাষ্ট্রের ৪র্থস্তস্ত কিন্ত তা আমরা মানিনা।আর এই স্তন্তটি আজ বিধবংসী।প্রয়োজন রাষ্ট্রের আশু হস্তক্ষেপ এবং নিয়ন্ত্রন। যেভাবে বার কাউন্সিলের মাধ্যমে আইনজীবীদের তেমনি প্রেস কাউন্সিলের মাধ্যমে সাংবাদিকদের নিয়ন্ত্রন করা সময়ের দাবী।বিএমএসএফ সারাদেশের সাংবাদিকদের ন্যায্য অধিকার, ন্যায়সঙ্গত দাবি এবং সুষম সুবিধা প্রাপ্তির লক্ষ্যে ১৪ দফা দাবি নিয়ে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে কাজ করছে।প্রিয় নেত্রী;বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ) এর আয়োজনে ২০১৭ সাল থেকে দেশে প্রথম জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহ ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে উদযাপিত হয়ে আসছে।এ বছর ৫ম বারের মতো দেশব্যাপি সপ্তাহটি উদ্যাপিত হবে ইনশাল্লাহ।ইতিপূর্বেও ৩বার আপনার নিকট জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছিল;কিন্তু আজো সাড়া মেলেনি।মাননীয় নেত্রী,জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহ ২০২১ সমাগত।তাই আপনার কণ্ঠে অবিলম্বে জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহের (১- ৭ মে)রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির আশা করছি।কেননা; এদেশে মৎস্য সপ্তাহ, কৃষি সপ্তাহ, প্রাণি সপ্তাহ, পুলিশ সপ্তাহ, আনসার সপ্তাহ,প্রতিরক্ষা সপ্তাহ, স্বাস্থ্য সপ্তাহ, নারী সপ্তাহ, ফায়ার সপ্তাহ,পানি সপ্তাহ সহ নানা নামে নানা সপ্তাহ রয়েছে।এদেশের সাংবাদিক ও গণমাধ্যম অঙ্গনের প্রাণের দাবী জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহটি রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পাওয়া।আজ তাই দেশে সকল জেলা উপজেলা থেকে এক যোগে আপনার নিকট এ দাবীটি তুলে ধরছি।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT