টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

চার ঘণ্টায় কক্সবাজার যাওয়া না গেলে আমি পদত্যাগ করব : সংসদে যোগাযোগমন্ত্রীর চ্যালেঞ্জ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০১৩
  • ১৪৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

টেকনাফ নিউজ ডটকম,:::বিরোধী দলের বিরোধিতার মুখে গতকাল জাতীয় সংসদে সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ তহবিল বোর্ড বিল- ২০১৩ পাস হয়েছে। বিলটি নিয়ে বিরোধী দলের সমালোচনার জবাবে যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিরোধী দলের কথা শুনে মনে হচ্ছে পাঁচ সিটিতে বিজয়ী হয়ে তাদের মরা গাংয়ে জোয়ার এসেছে। কিন্তু তারা ভুলে গেছে জোয়ারের পরে কিন্তু ভাটা আসে। অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস ভালো নয়।
সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের আওতাধীন সড়কগুলোর সুষ্ঠু রক্ষণাবেক্ষণ, মেরামত ও সংস্কারের জন্য একটি সড়ক তহবিল গঠনের লক্ষ্যে এ বিলটি পাস হয়েছে। বিলটির বিরোধিতা করে বিরোধী দলের ১৬ সংসদ সদস্য জনমত যাচাই-বাছাই ও সংশোধনী প্রস্তাব দিলে সবক’টি কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়। পরে কণ্ঠভোটে বিলটি পাস হয়। তবে বিলের ওপর বক্তব্য রাখার যথেষ্ট সময় না পাওয়ার প্রতিবাদে সংসদে একমাত্র স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মোহাম্মদ ফজলুল আজিম ওয়াকআউট করেন। অবশ্য ৫ মিনিট পর তিনি আবার ফিরে আসেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিরোধী দলের সমালোচনার জবাব দিতে গিয়ে বলেন, বিরোধী দল ‘ধান ভানতে গিয়ে শীবের গীত’ গেয়েছেন। দায়িত্ব পাওয়ার পর গত দেড় বছরে একটি দিনও ছুটি নেইনি, বিদেশ ভ্রমণ করিনি। পিকনিক আমি কখন করব? বিএনপির এক মহিলা সদস্য আমার সঙ্গে পিকনিকে যেতে চেয়েছেন। আমার ঘরের হোম মিনিস্টার (স্ত্রী) অনুমতি দিলে অবশ্যই আপনাকে আমি পিকনিকে নিয়ে যাব। অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে আমার দ্বন্দ্ব বাঁধানোর চেষ্টা করছে বিরোধী দল। বাস্তবে অর্থমন্ত্রীসহ আমাদের কারও সঙ্গে কোনো দ্বন্দ্ব নেই, অর্থে ছাড়েরও কোনো অভাব নেই।
সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ তহবিল বিলের ওপর বিরোধী দলের সংসদ সদস্যদের সমালোচনার জবাবে যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, সম্প্রতি পাঁচ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিরোধীদলীয় প্রার্থী বিজয়ী হওয়ায় পর তাদের বক্তব্য শুনে মনে হচ্ছে তাদের মরা গাংয়ে জোয়ার এসেছে। কিন্তু তারা ভুলে গেছেন, জোয়ারের পরে ভাটা আসে। তাদের দেখে মনে হচ্ছে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসের ট্র্যাপে পড়েছে। অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস ভালো নয়। সেটি ভুললে চলবে না। সিটি নির্বাচনী বিজয়ী হয়ে তারা আত্মতুষ্টি ও আত্মপ্রেমের বিশ্বাসে হাবুডুবু খাচ্ছে। এতটা আত্মহারা হওয়া ভালো নয়।
তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে যোগাযোগ মন্ত্রণালয় স্বচ্ছতা ও সততায় ইতিহাসের সবচেয়ে ভালো সময় পার করছে। এখন আর বাংলাদেশের কোনো মহাসড়কে সংস্কারের জন্য ধর্মঘট বা মানববন্ধন করতে হয় না। চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে অব্যবস্থা নিয়ে বিরোধী দলের একজন সংসদ সদস্যর অভিযোগের জবাব দিতে গিয়ে তিনি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন, এই সড়কে চার ঘণ্টার বেশি সময় লাগলে আমি পদ ছেড়ে দেবো। অযথা জনগণকে বিভ্রান্ত করে কোনো লাভ নেই। তিনি বলেন, নাজমুল হুদার সময়ে সিএনজিসহ নানা কেলেঙ্কারির কথা সবাই জানেন। তাদের আমলে দুর্নীতির কারণে জ্বালানি ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে বিশ্বব্যাংক অর্থায়ন বন্ধ করে দিয়েছিল। তিনি জানান, আগামী সেপ্টেম্বরে যাত্রাবাড়ির মূল ফ্লাইওভার খুলে দেয়া হবে।
পদ্মা সেতু সম্পর্কে যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতুর আপডেট তথ্য হচ্ছে সরকার নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করছে। এরই মধ্যে ১৪০০ কোটি টাকার কাজ শেষ হয়েছে। ১৪শ’ কোটি টাকার কাজ চলছে। ১০ হাজার কোটি টাকার টেন্ডার হয়েছে। পদ্মা সেতুর কাজ বন্ধ হয়নি, চলমান। তিনি জানান, পদ্মা সেতু প্রকল্পে পুনর্বাসনের কাজ শেষ হয়েছে, এপ্রোচ সড়কের কাজ চলমান রয়েছে। তিনি আরও জানান, আগস্টের শেষ সপ্তাহ কিংবা সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে বহুল আলোচিত মেট্রোরেল নির্মাণের কাজ শুরু হবে।
বিরোধী দলের সমালোচনাকে ইতিবাচক হিসেবে গ্রহণ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, নদীতে স্রোত না থাকলে তাকে নদী বলা যায় না, সাগরে গর্জন না থাকলে তাকে সাগর বলা যায় না, আকাশে গর্জন না থাকলে তাকে আকাশ বলা যায় না। তেমনি বিরোধী দলের সমালোচনা না থাকলে উত্তর দিতেও ভালো লাগে না। বিরোধী দল সংসদে থাকার জন্য এই বিল পাস হতে অনেক সময় লাগছে। কিন্তু তারপরও ভালো লাগছে।
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণে দীর্ঘসূত্রতার কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, ২০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ৬টি কবরস্থান, ৬টি মসজিদ ও দুটি মন্দির সরানোর জন্য সমঝোতা করতে দীর্ঘ সময় লেগেছে। কারণ, এসব প্রতিষ্ঠান স্পর্শকাতর। সেপ্টেম্বরেই চন্দ্রা-নবীনগর মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণের কাজ শেষে উদ্বোধন করা হবে বলেও জানান যোগাযোগমন্ত্রী।
বিলের বিরোধিতা করে বিরোধী দলের ভারপ্রাপ্ত চিফ হুইপ শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি বলেন, পাঁচ সিটিতে বিজয়ী হয়ে আমরা আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না। জাতীয় নির্বাচনে বর্তমান সরকারি দলকে পরাজিত করেই জনগণ আত্মতৃপ্তি অনুভব করবে।
প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সময় বেশি নেই। গণতন্ত্রের স্বার্থে তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে বিরোধীদলীয় নেত্রীর সঙ্গে আলোচনায় বসুন। আমরা আন্তরিকভাবে সহায়তা করবো।
বিএনপির ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, আওয়ামী লীগের সবদিকে ভাটা চলছে। সর্বত্রই আজ নৌকা ডুবে যাচ্ছে। আগামী নির্বাচনে গোপালগঞ্জেও নৌকার ভরাডুবি ঘটবে। এই বিলের মাধ্যমে জনগণের ওপর যদি কোনো ট্যাক্স আদায় করার চেষ্টা করা হয় তবে সারাদেশে আগুন জ্বলবে।
স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মোহাম্মদ ফজলুল আজিম বলেন, যোগাযোগমন্ত্রী সব তথ্য জানেন না। সড়ক ও জনপথ বিভাগ এখনও দুর্নীতিমুক্ত হয়নি। সংসদ আইন প্রণয়ের স্থান। সেই আইন প্রণয়নে যদি সময় দেয়া না হয় তবে চলবে কীভাবে। এভাবে চলতে পারে না। বিলের ওপর আলোচনার জন্য চাহিদামত সময় না দেয়ার প্রতিবাদে তিনি সংসদ থেকে পাঁচ মিনিটের জন্য প্রতীকী ওয়াকআউট করেন। ওয়াকআউটের সময় স্পিকার বলেন, মাননীয় সদস্য পাঁচ মিনিট সব কথা বলে এখন সময়ের অভাব বলে ওয়াকআউট করছেন? এটা দুঃখজনক। অবশ্য ওয়াকআউটের অধিকার আপনার রয়েছে।
পাস হওয়া বিলে সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ তহবিল বোর্ড নামে একটি বোর্ড গঠনের প্রস্তাব করা হয়েছে। ১৩ সদস্যের এই বোর্ডের চেয়ারম্যান হবেন সড়ক বিভাগের সচিব। আর বোর্ডের নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার নিয়োগ করবে। এছাড়া কমিটির সদস্য থাকবেন সেতু সচিব, বিআরটিএ ও বিআরটিসি চেয়ারম্যান, অর্থ বিভাগ ও সড়ক বিভাগের প্রতিনিধি, ভৌত অবকাঠামো বিভাগের প্রধান, ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক, সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী, স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী, বুয়েটের পুরকৌশল বিভাগের প্রতিনিধি এবং সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির প্রতিনিধি।
ওই আইনে আরও বলা হয়েছে, এ বোর্ডের সদর দফতর থাকবে ঢাকায়। বোর্ডের সদস্যরা সরকারের সঙ্গে বসে সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ, মেরামত ও সংস্কারের জন্য প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা প্রণয়ন করবে। সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বোর্ডের অধীনে একটি তহবিল থাকবে। যে তহবিল সরকারের অনুদান, আদায়কৃত চার্জ, লেভি, ফি ও কর এবং বিদেশি সরকার ও সংস্থার অনুদান নিয়ে গঠিত হবে।
আইনের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সড়ক রক্ষণাবেক্ষণের জন্য চাহিদার ১৩ থেকে ১৬ শতাংশের বেশি অর্থ বরাদ্দ পাওয়া যায় না। যে কারণে সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ কাজ বাধাগ্রস্ত হয়। তাই ওই অর্থের জোগান নিশ্চিত করতে এই তহবিল গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT