টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :

কক্সবাজারে এখনও কাটেনি ঈদের আমেজ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ৩ অক্টোবর, ২০১৫
  • ২৬৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

নুরুল আমিন হেলালী = ঈদুল আজহার নির্ধারিত ছুটি শেষে অফিস আদালত খুললেও পর্যটন নগরী কক্সবাজারের বিনোদন স্পটগুলোতে এখনও কাটেনি ঈদের আমেজ। এখনও ভ্রমন পিয়াসী মানুষের পদচারণায় মূখরিত পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতসহ বিনোদন কেন্দ্রগুলো। ফলে দীর্ঘদিন পর হলেও খোশ মেজাজে রয়েছে পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। চাঙ্গা রয়েছে কক্সবাজারের অর্থনীতি। শহরের অভ্যন্তরিণ সড়ক-উপসড়কে চলছে রিক্সা, টমটম ও সিএনজি ট্যাক্সির দাপট। তবে দেখা গেছে, ফিরতি যাত্রী বাড়তে থাকায় বাসষ্টেশন ও বিমান বন্দরে যাত্রীদের ভীড় ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। মেঘের কোলে রোদ হেসেছে বাদল গেছে টুটি, আজ আমাদের ছুটি ও ভাই আজ আমাদের ছুটি। কবি গুরুর কবিতার লাইনগুলোর মতোই যেন মেঘ-রোদ্দুরের এই লুকোচুরির শুক্রবারের বিকেল বেলা বাবা-মায়ের সঙ্গে হাত ধরে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে ঘুরছিল চয়ন ও নয়ন নামের দুই ভাই। তাদের চোখে-মুখে ছিল খুশির ঝিলিক। তারা গাল ফোলানো হাসিতে জানায়, ঈদের ছুটির এই দিনগুলো তাদের ভালই কাটছে। কেননা যে কদিন তারা এইখানে আছে নেই বাবা-মায়ের বকা-ঝকা, নেই চোখ রাঙানি, নেই পড়ার ঝামেলা। শুধুই আনন্দ আর আনন্দ। এখনও হাজারো পরিবার মনের আনন্দে ঘুরে বেড়াচ্ছে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে। তবে অনেক পর্যটকের অভিযোগ সৈকতে ভ্রাম্যমান মৌসুমী ব্যবসায়ীদের বিড়ম্বনায়ও তাদের পড়তে হচ্ছে। চট্রগ্রামের সীতাকুন্ড থেকে স্ব-পরিবারে কক্সবাজারে আসা অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা শহিদুর রহমান জানান, এখানে এসে দেখলাম ঈদের ছুটির আমেজ এখনও পুরোপুরি কাটেনি। ভ্রমণ পিয়াসী মানুষের পদচারণায় পর্যটন শহরে এখনও বিরাজ করছে ঈদের আমেজ। এদিকে পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা জানান, এবারে বিদেশী পর্যটক কম থাকলেও ঈদের পরদিন থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত পর্যটকদের উপছে পড়া ভিড় ছিল কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন, ইনানী, হিমছড়ি, ছেরাদ্বীপ, মহেশখালীর আদিনাত, রামুর বৌদ্ধমন্দ্বির, ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক, লাবণী সমুদ্র সৈকতসহ বিনোদন কেন্দ্রগুলো। সরেজমিনে দেখা গেছে, শহরের পর্যটন স্পটগুলো এখনও পর্যটকদের পদচারণায় মূখরিত। এদিকে কলাতলী হোটেল-মোটেল জোনের কয়েক ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে জানা যায়, সুন্দর আবহাওয়া বিরাজমান থাকায় এবং রাজনৈতিক অস্থিরতা না থাকায় এবার ঈদ পরবর্তী পর্যটকের ঢল নেমেছে। জমে উঠেছে ব্যবসা বাণিজ্য। ব্যবসায়ীরাও মন্দা কাটিয়ে আলোর মুখ দেখতে শুরু করেছে। অপরদিকে সৈকতে পর্যটকদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ট্যুরিস্ট পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, শহরে পর্যটকদের জন্য চব্বিশ ঘন্টা নিরাপত্তা দিচ্ছে পুলিশ প্রশাসন।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT