টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

কক্সবাজার’সহ দেশের ১২ লাখ মানুষ চিংড়ি শিল্পের উপর নির্ভরশীল

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৬ মে, ২০১৩
  • ১৭৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

কক্সবাজার’সহ দেশের চিংড়ি শিল্পের উন্নয়নে সরকার কাজ করছে। কারণ দেশের ১২ লাখ মানুষ চিংড়ি শিল্পের উপর নির্ভরশীল। চিংড়ি শিল্প সমৃদ্ধ হলে দেশ উন্নতির দিকে এগিয়ে যাবে। মৎস্য অধিদপ্তরের একটি কর্মশালায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।
জানা গেছে, দেশের চিংড়ি শিল্প নানা সমস্যায় জর্জরিত। তাছাড়া কক্সবাজারে ভাইরাসমুক্ত চিংড়ি উৎপাদনে হয়ত একটি হ্যাচারিও সক্ষম নয়। এছাড়া চিংড়ি পোনা পরিবহন সমস্যা রয়েছে। কক্সবাজার থেকে সাতক্ষীরা’সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ট্রাক-পিকআপযোগে চিংড়ি নিতে গিয়ে মারাত্মক দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এক্ষেত্রে উৎপাদন ব্যবস্থাও আজকাল সিন্ডিকেট নির্ভর হয়ে পড়েছে। এতে চিংড়ি শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ঠরা প্রকৃত দাম পাচ্ছে না।
কর্মশালায় আরো জানানো হয়, উল্লেখিত সমস্যা ছাড়াও চিংড়ি শিল্পে নানা অস্থিরতা আছে। তাছাড়া স্থানীয় যে সমস্ত বরফকল রয়েছে সে গুলোর বরফ-এর মান নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। কক্সবাজারের চকরিয়ায় খাল বন্ধ করে চিংড়ি ঘের ঘড়ে উঠেছে। এখানে চিংড়ি ঘের গুলোতে মহিষ’র তান্ডব চলে। তবে খাল বন্ধ করে দিয়ে চিংড়ি ঘের করা ভাল উদ্যোগ নয় বলে কর্মশালায় অতিথি বক্তারা বক্তব্য রাখেন।
মৎস্য অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে এবং কক্সবাজার জেলা মৎস্য অফিসের উদ্যোগে আয়োজিত ‘গুড এ্যাকুয়াকালচার প্র্যাকটিস’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় উপরোক্ত তথ্য তুলে ধরা হয়।
কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের অডিটরিয়ামে কারিগরি ‘গুড এ্যাকুয়াকালচার প্র্যাকটিস’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালা ও ‘চিংড়ি সম্পদের টেকসই উন্নয়ন-কৌশল নির্ধারণ’ সংক্রান্ত দুটি পর্বে এ কর্মশালা চলে। মৎস্য অধিপ্তরের চট্রগ্রাম দপ্তরের কুমিল্লা এবং কক্সবাজার জেলা অফিস যার বাস্তবায়নে ছিল।
কক্সবাজার জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ফেরদৌস আহমেদের সভাপতিত্বে এ কর্মশালা ২৫ মে শনিবার সকালে অনুষ্ঠিত হয়। এতে মৎস্য অধিদপ্তরের চট্রগ্রাম বিভাগের (কুমিল্লা) উপ-পরিচালক এ.কে.এম সিদ্দিক প্রধান অতিথি ছিলেন। অতিথি ছিলেন-চিংড়ি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের কক্সবাজার জেলা কর্মকর্তা নুরুল আমিন, মৎস্য অধিদপ্তরের কক্সবাজার জেলা মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকতা মোহাম্মদ জাভেদ, অমিতোষ সেন ও কক্সবাজার সদর’র সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা ড. মঈন উদ্দিন আহমেদ। পুরো অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন-রামুু উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মশিউর রহমান।
অনুষ্ঠানে মতামত তুলে ধরেন-চিংড়ি ঘের মালিক বীর মুক্তিযোদ্ধা খোরশেদ আরা হক ও চিংড়ি খামার মালিক গ্্রুপের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমিন।
উল্লেখ্য যে, অনুষ্ঠানে চিংড়ি খামার-ঘের মালিক, ব্যবসায়ি ও মৎস্য ব্যবসায়ি’সহ বিভিন্ন পর্যারের দু’শতাধিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT