টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
মামুনুল হকের ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি হেফাজত দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন খালেদা জিয়া করোনার উপসর্গ দেখা দিলে ‘আইসোলেশনে’ থাকবেন যেভাবে ১২-১৩ এপ্রিল দূরপাল্লার বাস চলবে না : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী টেকনাফে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে বিকাল ৫.০০ টার পর একাধিক দোকান ও শপিংমল খোলা রাখায় জরিমানা চেয়ারম্যান -মেম্বারদের চলতি মেয়াদ আরও তিন মাস বাড়ছে স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থাপনায় ৬৪ জেলার দায়িত্বে ৬৪ সচিব মেয়ের বিয়ের যৌতুকের টাকা জোগাড় করতে না পেরে বাবার আত্মহত্যা মিয়ানমারে গুলিতে আরও ১০ জন নিহত যুক্তরাষ্ট্রে বিশেষ স্বীকৃতি পাচ্ছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

এককেন্দ্রিক ক্ষমতার কাঠামো ॥ সুশাসন প্রতিষ্ঠার প্রধান অন্তরায়

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৩
  • ২৭২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

মোহাম্মদ ওমর ফারুক, টেকনাফ ॥…আমরা কথায় কথায় যে ‘সুশাসনের’ বুলি কপচাই এদেশে তার প্রাতিষ্ঠানিকীকরণ অনেক দূরের ব্যাপার। সুশাসনের পথে আমাদের সবচেয়ে বড় অন্তরায় হল এককেন্দ্রিক ক্ষমতার কাঠামো। আওয়ামীলীগ বলুন কিংবা বিএনপি; পাঁচ বছর পর পর যারাই ক্ষমতায় থাকুন, যিনি প্রধানমন্ত্রী হন তিনিই সংসদ নেতা; আবার সেই তিনিই দলের প্রধান। এভাবে সরকার, আইনসভা আর দলের মগডালে বসা ব্যাক্তিটি মহাপরাক্রমশালী ক্ষমতার অধিকারী হয়ে উঠেন- যা তাকে চরম একনায়কে পরিণত করে। ফলে কেন্দ্র

থেকে তৃণমূল সকল স্তরে দলীয় নেতা-কর্মীদের একমাত্র রাজনৈতিক এমবিশন হয়ে যায় ‘আপা’ কিংবা ‘ম্যাডামের’ সন্তুষ্টি অর্জন। শয়নে-স্বপনে-জাগরনে ‘আপা’ আর ম্যাডামকে খুশি করার এই সুতীব্র প্রতিযোগিতা দলের ভেতরে দল-উপদলের সৃষ্টি করে। এভাবেই ‘লেজুড়বৃত্তি’ বাংলাদেশের বহুল জনপ্রিয় দল দু’টিতে তার আসন পাকাপোক্ত করেছে।

আর তাই ‘আপা’ কিংবা ‘ম্যাডাম’কেও ‘দুধ-কলা’ দিয়ে লেজুড়বৃত্তি পুষতে হয়। কারণ, বাঙ্গালী মাত্র্ই তোষামোদের কাঙ্গাল। তোষামোদ আর ‘জিন্দাবাদ’ ¯ে¬াগানের সাগরে ভেসে ‘তারা’ চলে যান হীরক রাজার দেশে। যেখানে সবাই সমস্বরে গাইবে-

“বল জয়

বল হীরক রাজার জয়

বল এমন রাজা ক’জন রাজা হয়!”

অর্থ্যাৎ, ‘আপা-ম্যাডামের’ দৃষ্টিতে দল টিকিয়ে রাখার একটা শক্তিশালী ভিত্তি হল লেজুড়বৃত্তি। তাই তাদের আশংকা এই যে, যেদিন লেজুড়বৃত্তি থাকবেনা, সেদিন দল্ও থাকবেনা….!

সুতারাং, সুশাসন প্রতিষ্ঠার অপরির্হায শর্ত  হল ক্ষমতার কাঠামোতে ভারসাম্য আনয়ন। এজন্য কতিপয় সাংবিধানিক সংস্কার অতীব জরুরীঃ (১) এক ব্যাক্তি দু’বারের বেশি সরকার প্রধান হতে পারবেন না; (খ) সরকার প্রধানকে দলীয় পদ ত্যাগ করতে হবে। (গ)  দলীয় প্রধান নির্বাচিত হবেন একটা নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য।

বাট দ্যা আইরনী অব ফ্যাট দ্যাট অষ্টমার্শ্চযজনক ভাবে আওয়ামীলীগ এবং বিএনপি এই একটা ইস্যুতে ঐক্যমত্যে পৌঁছবে। তারা উভয়েই এই সংস্কার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করবে এবং এ প্রস্তাবের অন্তরালে ওয়ান-ইলেভেনের ভূত খুঁজে বেড়াবে….!

তাইতো গ্রামের পোড় খাওয়া বুড়োটি বেরসিকভাবে বলে উঠেন,

“নৌকা আর ধানের শীষ,

দুই নাগিনের এক্ই বিষ।”

###############

মোহাম্মদ ওমর ফারুক,

টেকনাফ ॥

মোবাইল নং-০১৮২৫-১৫৭৭৩৩

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT