টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

উখিয়ার সমুদ্র উপকূলে এক মাসে কেড়ে নিয়েছে ৮ অসহায় ব্যাক্তির জমি

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৫ মে, ২০১৩
  • ১১৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

এম বশর চৌধুরী, উখিয়া=    উখিয়ার সমুদ্র উপকুল চোয়াংখালীতে মোজাম্মেল নামে এক ভুমিদস্যু গত এক মাসে ৮ অসহায় পরিবারের বসত ভিটা কেড়ে নিয়ে ভিটাছাড়া করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এক সময়ে সাগরে মৎস্য পোনা আহরণ করে জীবিকা নির্বাহ করত ভুমি দালাল মোজাম্মেল। সাধরণ লোকজনের জমি জবর দখল, মালয়েশিয়া আদম পাচার, জাল, জালিয়াতির মাধ্যমে খতিয়ান ও দলিল সৃজন করে গত কয়েক বছরের ব্যবধানে সে কোটিপতি বনে গেছে। ইনানী পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশের সাথে উক্ত মোজাম্মেলের দহরম মহরম সম্পর্ক থাকায় অপকর্মের প্রতিবাদ করতে কেহ সাহস পায়না। যার কারনে সাধারন মানুষ জমি হারানোর আতংকে উদ্ধেগ উৎকন্ঠার মধ্যে বসবাস করছে।

অভিযোগে প্রকাশ, চোয়াংখালী গ্রামের বদি আলমের ছেলে মোজাম্মেল হক (২৮) গত কয়েক বছর ধরে সাধারণ মানুষের জমি কেড়ে নিয়ে কোটিপতি বনে গেছে। উক্ত মোজাম্মেল গত এক মাসের ব্যবধানে বহু মানুষের জমি কেড়ে নিয়েছে। তৎমধ্যে মাদারবুনিয়া গ্রামের মহিব উলাহ, লাতিফ উলাহ, ও ছৈয়দ আলমের ইনানী মৌজার বিএস ১৬১৫ খতিয়ানের ৮৮৩১ ও ৮৮৩২ দাগের ১৪ শতক জমি তার মাতা ফাতেমা বেগমের নামে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে নামজারী খতিয়ান সৃজন করে জবর দখল করে নেয়। চোয়াংখালী গ্রামের মৃত মিয়া হোছন মাষ্টারের ছেলে নুর হোছন মাষ্টারের ইনানী মৌজার বি এস ১৫৯০ নং খতিয়ানের ৭৭৩২ দাগের ১২ শতক ও ১৬০৮ খতিয়ানের ৭৭৯৭, ৭৭৯৮ দাগের ২০ শতক জমি সহ মোট ৩২ শতক জমি কেড়ে নেয়। এছাড়াও উক্ত ভুমি দস্যু মোজাম্মেল চোয়াংখালী গ্রামের আব্দু শুক্কুরের ছেলে আমির হোছনের ২০ শতক জমি, মৃত শফিকুর রহমানের ছেলে হোছন আহম্মদের ২০ শতক ও নুর নবীর ছেলে জমির আহম্মদের ৫শতক জমি কেড়ে নেয়। জমি হারানো অসহায় আমির হোছন জানান, ভুমি দস্যু মোজাম্মেল তার জমি কেড়ে নেওয়ার প্রতিবাদ করায় তাহাকে মিথ্যা ঘর পোড়া মামলার আসামী করেছে। অভিযোগ উঠেছে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের মাধম্যে ভুমি দস্যু মোজাম্মেল গরীব অসহায় মানুষের জমি জবর দখল করে পরবর্তীতে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে। তার নিয়ন্ত্রনে কমপক্ষে অর্ধশতাধিক রোহিঙ্গা ক্যাড়ার রয়েছে। তারা জমি দখল, মালয়েশিয়ায় আদম পাচার সহ নানা অপকর্মে সহায়তা করে থাকে। এদিকে ভুমি দস্যু মোজাম্মেলের বিরুদ্ধে সাগর পথে মালয়েশিয়া মানব পাচারের অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। সে গত ১২ মার্চ রাতে ছোয়াংখালী গ্রামের আলতাজ মিয়ার ছেলে নুরুল কবির (২২), মৃত তাজুর মূলুকের ছেলে ছৈয়দ করিম (৪০), ছৈয়দ করিমের ছেলে শামশুল আলম (১৭) ও মকতুল হোসেনের ছেলে নুরুল হুদা (১৯) দের সাগর পথে মালয়েশিয়া পাঠানোর নামে জন প্রতি ৫০ হাজার টাকা করে নেয়। উক্ত দালাল হতভাগা এসব ব্যাক্তিদের সাগর পথে মালেয়েশিয়া পাঠানোর নামে কোথায় নিয়ে গেছে পরিবারের লোকজন এখনো সন্ধান পায়নি। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য মৃত আব্দু শুক্কুরের ছেলে আমির হোছন বাদী হয়ে বিজ্ঞ আদালতে সিপি মামলা নং-২৩৪/১৩ দায়ের করেছেন। স্থানীয় এলাকাবাসী ভুমি দস্যু মোজাম্মেলের অপকর্ম থেকে বাচার জন্য পুলিশ সুপার সহ আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হম্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT