টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

উখিয়া পাগলির বিল সড়ক সংস্কার হলে…

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১২
  • ১২৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

মোঃ ইসমাইল, মরিচ্যা…উখিয়ার মরিচ্যা পাগলিরবিল সড়ক এখন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। দীর্ঘ দিন ধরে এ সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় লক্ষাধিক মানুষের দূর্ভোগ চরম আকার ধারন করেছে। জন গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি সংস্কার করা হলে উখিয়ার সাথে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সরাসরি সড়ক যোগাযোগ পথ সুগম হবে। আর এটি বাস্তবায়ন হলে কৃষি, শিক্ষা, বনায়নের অভুত পূর্ব উন্নয়ন সহ ব্যবসা বানিজ্যে পূর্ব দিকের দুয়ার খুলে যাবে। এমন অভিমত সচেতন মহলের।

উখিয়া উপজেলার মরিচ্যা বাজার থেকে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার চূল্লা পাড়া— পর্যন্ত অনুমান ১২ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য পাগলির বিল সড়কের কার্পেটিং করার জন্য দুই উপজেলার মানুষের দীর্ঘ দিনের প্রাণের দাবী ছিল। এলাকার বিশাল জন গোষ্টির দাবীর প্রেক্ষিতে ৮০ দশকে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানে শাসনামলে তৎকালীন উখিয়া টেকনাফ আসনের বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শাহ জাহান চৌধুরী মরিচ্যা বাজার থেকে উত্তর বড়বিল পর্যন্ত ৭ কিলোমিটার রাস্তার মাটি ভরাট কাজ সম্পন্ন করে জনসাধারন চলাচলের উপযোগী করে তুলেন। পরবর্তীতে ১৯৯১ সালে তিনি পুনরায় সংসদ সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে মাটির রাস্তাকে ব্রিক সলিংএ উন্নীত করেন। সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহামদুল হক চৌধুরী পাগলির বিল খালে লম্বা ব্রিজ নির্মান করে যোগাযোগের পথ কিছুটা সুগম করে। হলদিয়া পালং ইউপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমিনুল আমিন জানান, হলদিয়া পালং ইউনিয়নের মরিচ্যা কাঠালিয়া, হালুকিয়া, দক্ষিন পাগলিরবিল, সিকদার পাড়া, বত্তাতলী, লেঙ্গুরবিল, উত্তর বড়বিল, বড়–য়া পাড়া, তুলাতলী পাড়া, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার রিফিউজি পাড়া, চুল্লা পাড়া, ক্যংপাড়া, মানিঙ্গা পাড়া, বিজিবি ক্যং সহ অন্তত ২০ গ্রামের মানুষের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম মরিচ্যা পগলিরবিল সড়ক। তিনি জানান, এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে অচিরেই মরিচ্যা পাগলির বিল সড়ক সংস্কারের দাবী জানান। এলাকাবাসী জানান, মরিচ্যা পাগলির বিল সড়ক সংস্কারের জন্য ক্ষমতাসীন দলের উখিয়া টেকনাফ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি সহ বিভিন্ন দপ্তরে একাধিক অভিযোগ করেও এখনো উক্ত রাস্তার ২টি ব্রিজ ও কার্পেটিং এ উন্নীত করা হয়নি। সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, হলদিয়া পালং ইউনিয়নের ৮০ শতাংশ মানুষ, কৃষির উপর নির্ভরশীল, যোগাযোগ ব্যবস্থা অনুন্নত থাকায় পরিবহন সমস্যার কারনে কৃষকরা উৎপাদিত ফসল যথা সময়ে বাজারজাত করতে না পেরে উৎপাদনে অনাগ্রহী হয়ে উঠেছে।

 

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT