টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
রোহিঙ্গারা কন্যাশিশুদের বোঝা মনে করে অধিকতর বন্যার ঝূঁকিপূর্ণ জেলা হচ্ছে কক্সবাজার টেকনাফে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ৩০ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর হস্তান্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-মেম্বারদের দায়িত্ব নিয়ে ডিসিদের চিঠি আগামীকাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন (তালিকা) বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান টেকনাফ উপজেলা কমিটি গঠিত: সভাপতি, সালাম: সা: সম্পাদক: ইসমাইল আজ বিশ্ব শরণার্থী দিবস মিয়ানমারে ফেরা নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রোহিঙ্গারা ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধের সিদ্ধান্ত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন আছে, ততদিন ক্ষমতায় আছি: হানিফ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সবচেয়ে বড় ভুল : ডা. জাফরুল্লাহ

ঈদগাঁওতে ‘লাল’, ‘কাল’ ও ‘ওয়াটিস’ নামে বিক্রি হচ্ছে মাদক

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৯ অক্টোবর, ২০১৫
  • ১৭৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

মোঃ রেজাউল করিম, ঈদগাঁও = ঈদগাঁওতে ‘লাল’, ‘কাল’ ও ‘ওয়াটিস’ নামে বিক্রি হচ্ছে মাদক দ্রব্য। সাধারণ জনগণকে ফাঁকি দিতে বিকল্প এ নামগুলো ব্যবহার করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। প্রাপ্ত তথ্যে প্রকাশ, বৃহত্তর ঈদগাঁওর বিভিন্ন স্থানে ‘লাল’, ‘কাল’ ও ‘ওয়াটিস’ শব্দ গুলো মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদের নিকট খুবই পরিচিত। তাদের ভাষায় ‘লাল’ হচ্ছে ইয়াবা ট্যাবলেট, ‘কাল’ হচ্ছে হেরোইন এবং ‘ওয়াটিস’ হচ্ছে বাংলা বা চোলাই মদ। সাধারণ জনগণ যেন বুঝতে না পারে সেজন্য বিক্রেতা ও সেবনকারীরা এ নাম গুলো বিকল্প নাম হিসেবে ব্যবহার করে আসছে বলে জানা গেছে। ইয়াবা ট্যাবলেট লাল রঙের হওয়ার এর নাম দেয়া হয়েছে ‘লাল’। হেরোইনের রং কাল হওয়ায় এর নাম দেয়া হয়েছে ‘কাল’ আর বাংলা বা চোলাই মদ পানীয় জাতীয় হওয়ায় এর নাম ‘ওয়াটিস’ দেয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বৃহত্তর ঈদগাঁওর চিহ্নিত মাদক স্পট সমূহ এখন এসব শব্দে সরগরম। দরগাহ পাড়া, তেলি পাড়া, বাঁশঘাটা, খাদেমার চর, কলেজ গেইট, ঢালার দোয়ার, ভাবির দোকান, ফকিরা বাজার, বটতলী স্টেশন, ঈদগড় রোড, আলমাছিয়া রোড, বঙ্কিম বাজার, রাবারড্যামসহ অন্যান্য মাদক স্পটে এখন এসব নামে বিক্রি হচ্ছে নানা মাদক দ্রব্য। এসব সেবনে মাদকাসক্তদের প্রচুর টাকা যোগান দিতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। আর উক্ত টাকা যোগান দিতে গিয়ে তারা চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ নানা অপরাধ-অপকর্মে জড়িয়ে পড়ছে। কোন কোন ক্ষেত্রে উঠতি যুবকের পাশাপাশি শিক্ষার্থীরাও মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে। ঘন ঘন পুলিশী অভিযান না থাকায় এবং গ্রেফতার হলেও জামিনে জেল থেকে বের হয়ে আসায় মাদক বেচাকেনা কমছেই না। কোন কোন ক্ষেত্রে স্থানীয় জন প্রতিনিধি, পুলিশ ও প্রভাবশালীদের বিভিন্ন অংকের মাসোহারা দিয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা জিইয়ে রেখেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র আইসির দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি অভিযান অব্যাহত রয়েছে দাবী করে জানান, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে সংশ্লিষ্টদের অবশ্যই গ্রেফতার করা হবে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT