টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

ঈদগাঁওতে দু’ গরুচোর আটক

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩১ মে, ২০১৩
  • ১৩৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

cow theefএস. এম. তারেক, ঈদগাঁও, কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে জনতা গরু চোর সন্দেহে দু’ব্যাক্তিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। আটককৃতরা হলো চৌফলদন্ডী দক্ষিণ পাড়া গ্রামের মৃত মণির আহমদের ছেলে  ট্রাক চালক মনছুর আলম (৩০)। অপরজন ঈদগাঁও ইউনিয়নের উত্তর মাইজপাড়া গ্রামের মৃত মোসলেম উদ্দিনের পুত্র পেশাদার চোর নুরুল হক। ৩০ মে গভীর রাতে ঈদগাঁও বাস ষ্টেশন থেকে তাদের আটক করা হয়। জানা যায়, বৃহত্তর ঈদগাঁও’র বিভিন্ন এলাকা থেকে ১ মাসের ব্যবধানে  প্রায় অর্ধ-শতাধিক গরু চুরি হয়। গরুর মালিকেরা এসব চোরদের ধরতে ব্যক্তি উদ্যোগে বিভিন্ন ভাবে চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় খোঁজ খবর নিয়ে তারা আটক দু’চোরকে চোরকে ঈদগাঁও বাস ষ্টেশনে আটকে রেখে ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশকে খবর দেয়। তাৎক্ষণিকভাবে এ.এসআই রুপন চৌধুরীর নের্তৃত্বে একদল পুলিশ জনতার হাত থেকে তাদের উদ্ধার করে তদন্ত কেন্দ্রে নিয়ে আসে। এ সময় জনতা গরু চুরির কাজে ব্যবহৃত একটি মিনি ট্রাক আটক করে তদন্ত কেন্দ্রে নিয়ে আসে এবং গরু মালিকেরা নিজ উদ্যোগে চোর ধরার খবর মাইকযোগে এলাকায় প্রচার করলে শত শত উৎসুক জনতা চোরদের একপলক দেখতে তদন্ত কেন্দ্রে এসে ভীড় জমায়। গরুর মালিক শহিদুল্লাহ মিয়াজী  জানান, গত ২২ এপ্রিল চোরের দল তার গোয়াল ঘর থেকে ২ লাখ ৫০ হাজার মুল্যের ২ টি উন্নত জাতের গরু চুরি করে নিয়ে যায়। ইসলামাবাদ ইউসুফেরখীল গ্রামের ছৈয়দ করিম জানান, গত সপ্তায় চোরের দল তার গোয়াল ঘর থেকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা মুল্যের  ৪ টি গরু ,ঈদগাঁও  ইউনিয়নের জাগির পাড়া গ্রামের সাবেক মেম্বার ছৈয়দ আলম জানান , দু’ সপ্তাহ আগে তার গোয়াল ঘর থেকে ১ লাখ টাকা মুল্যের দু’টি গরু, ইসলামপুর ইউনিয়নের ডুলাফকির রাস্তার মাথা এলাকার বাসিন্দা শাহজাহান জানান, পক্ষকাল আগে তার গোয়াল ঘর থেকে ৯০ হাজার টাকা মুল্যের দু’টি গরু এবং জালালাবাদ ইউনিয়নের দক্ষিণ লারাবাক গ্রামের হোছন জানান, গত ৪ দিন আগে চোরের দল তার গোয়াল ঘরে হানা দিয়ে ৭০ হাজার টাকা মুল্যের একটি ষাঁড় নিয়ে গেছে। এছাড়া এলাকার আরো অনেকের নিকট থেকে আরো প্রায় ২৫/ ৩০ টি গরু চুরি হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ ক্যাম্পে আসা লোকজন। এদিকে চোর আটক করতে প্রধান ভুমিকা পালনকারী ইসলামাবাদের ওয়ার্ড মেম্বার আবদুর রাজ্জাক জানান, আটক মনছুরের প্রকৃত বাড়ি রামু উপজেলার জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নে। চৌফলদন্ডী থেকে বিয়ে করার পর থেকে সে চৌফলদন্ডীতেই থাকে এবং জোয়ারিয়ানালা এলাকায় সে মনছুর চোর নামে পরিচিত। সে আরো জানায়, ঘটনার দিন চৌফলদন্ডীর জনৈক মহিলার নিকট হতে গভীর রাতে  চোরাই গরু ট্রাক থেকে খালাস করা হয়েছে মর্মে সংবাদ পেয়ে তারা বাস ষ্টেশনে গিয়ে  আটক তল্লাশী করার সময় গাড়িতে গরুর বিষ্টা দেখতে পান এবং তারই সুত্র ধরে মনছুর ও তার অপর সহযোগী  নুরুল হককে আটক করা বলে জানিয়েছেন। এদিকে গাড়ীর হেলপার লুৎফুর রহমান কাজল জনতার সামনে ট্রাক ড্রাইভার মনছুর গরু চুরির সাথে সরাসরি জড়িত বলে জানিয়েছেন পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সামনে জড়ো হওয়া লোকজন। পুলিশ জানিয়েছে, আটককৃতদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্ততি ও  চুরি যাওয়া গরুর তথ্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। ভুক্তভোগীরা একটি মহল আটককৃতদের ছাড়িয়ে নেয়ার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে  বলে জানান। আটক মনছুর ও নুরুল হক নিজেদের নির্দোষ বলে দাবী করেন।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT