টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে সিএনজি চালক খুন তালিকা দিন, আমি তাঁদের নিয়ে জেলে চলে যাব: একজন পুলিশও পাঠাতে হবে না: বাবুনগরী টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের উদ্যোগে মানসিক রোগিদের মধ্যে খাবার বিতরণ বাংলাদেশে নারীর গড় আয়ু ৭৫, পুরুষের ৭১: ইউএনএফপিএ ফেনসিডিল বিক্রির অভিযোগে ৩ পুলিশ কর্মকর্তা প্রত্যাহার দেশের ৮০ ভাগ পুরুষ স্ত্রীর নির্যাতনের শিকার’ এ বছর সর্বনিম্ন ফিতরা ৭০ টাকা, সর্বোচ্চ ২৩১০ হেফাজতের বর্তমান কমিটি ভেঙে দিতে পারে: মামলায় গ্রেফতার ৪৭০ জন মৃত্যু রহস্য : তিমি দুটি স্বামী – স্ত্রী : শোকে স্ত্রী তিমির আত্মহত্যাঃ ধারণা বিজ্ঞানীর দেশে নতুন করে দরিদ্র হয়েছে ২ কোটি ৪৫ লাখ মানুষ

ইনানীর প্রস্তাবিত প্রায় সাড়ে ৭ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দে জাতীয় উদ্যান ভেস্তে যাওয়ার আশংকা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ১২ জুন, ২০১৩
  • ২১২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

কায়সার হামিদ মানিক উখিয়া=kh manik pic 11.06.2013
বনভূমি দখল, বনসম্পদ লুটপাটসহ বনবিভাগের অনিহার কারণে কক্সবাজারের পর্যটন স্পট ইনানীর প্রস্তাবিত জাতীয় উদ্যান প্রকল্প ভেস্তে যাওয়ার আশংকা করা হচ্ছে। প্রায় সাড়ে ৭ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দে উক্ত প্রকল্পের কাজ ২০১০ সালে শুরু হলেও এ পর্যন্ত কোন অগ্রগতি হয়নি। বন্য পশু প্রাণীর অভয়ারণ্য এখন বিরান ভূমিতে পরিণত হতে চলছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।
জানা গেছে, সরকার উপকূলীয় এলাকার সোনারপাড়া থেকে মনখালী পর্যন্ত ২৮ কিলোমিটার সমুদ্র সৈকত নিয়ে এক্সক্লোসিভ ট্যুরিস্ট জোন হিসাবে গড়ে তোলার ঘোষনা দিলে উপকূলীয় এলাকার জমি জমার ধান হঠাৎ করে বেড়ে যায়। এসময় সরকারের বিভিন্ন উচ্চ পর্যায়ের আমলা থেকে শুরু করে দেশের ধর্ণাঢ্য শিল্পপতি ইনানীর জমি কিনে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে হোটেল, মোটেল, গেস্ট হাউস থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্রকার অবকাঠামো তৈরীর জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়ে। স্থানীয় গরীব মধ্যবৃত্ত পরিবার গুলো তাদের জমিজমা মোটা অংকের টাকায় হাত বদল করে ইনানীর সংরক্ষিত বনাঞ্চলে বাড়ি ঘর তৈরী করে আশ্রয় নিতে শুরু করে। এভাবে ধারাবাহিক বনভূমি দখলের প্রবণতা আশংকা জনক ভাবে বৃদ্ধি পেলে উক্ত বনভূমি রক্ষায় এগিয়ে আসে অরোণ্যক ফাউন্ডেশন নামের একটি এনজিও সংস্থা।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের যৌথ অর্থায়নে আরোণ্যক ফাউন্ডেশন ইনানীর প্রায় ২১ হাজার একর বনভূমি রক্ষার জন্য ১৪ হাজার একর বনভূমি নিয়ে প্রস্তাবিত জাতীয় উদ্যান প্রকল্প বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া শুরু করে। এ ব্যাপারে স্থানীয় সুশীল সমাজ, সরকারী কর্মকর্তা, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি, স্কুল শিক্ষক ও মসজিদের ইমামদের নিয়ে গঠিত হয় ইনানী বনরক্ষা সহায়ক কমিটি। এ কমিটির মাধ্যমে প্রস্তাবিত জাতীয় উদ্যানের আশেপাশে বসবাসরত বননির্ভর গরীব পরিবার গুলোকে আর্থিক সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে তাদেরকে সাবলম্বি হওয়ার জন্য উৎসাহিত করে বনরক্ষা করার জন্য দায়িত্ব অপর্ণ করা হলেও চোর না শুনে ধর্মের কাহিনী। তারা বনসম্পদ লুটপাট ও বনভূমি দখল করে অন্যত্রে বিক্রির ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার ফলে প্রস্তাবিত জাতীয় উদ্যান অরক্ষিত হয়ে পড়ে।
মনখালী বনরক্ষা কমিটির সভাপতি নুরুল আবছার জানান, বন পাহারা দলের সদস্যের সহযোগিতায় স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালী কাঠ ব্যবসায়ী ইনানী রেঞ্জ কর্মকর্তা ও চোয়াংখালী বিট কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে প্রস্তাবিত জাতীয় উদ্যানের বনসম্পদ লুটপাট করে সমুদ্র পথে পাচার অব্যাহত রাখে। এছাড়াও উপকূলের বসবাসরত প্রভাবশালী সিন্ডিকেট ইনানীর বনভূমি দখল করে মোটা অংকের টাকায় দখল হস্তান্তর করার ধারাবাহিকতায় জাতীয় উদ্যান প্রকল্প অস্থিত্ব সংকটে পড়েছে।
আরোণ্যক ফাউন্ডেশনের সমন্বয়কারী আব্দুল মান্নান জানান, ২০১০ সালে উখিয়া বনবিভাগের সহযেীতায় ইনানীতে জাতীয় উদ্যান বাস্তবায়নের লক্ষ্যে একটি প্রস্তাবনা বন মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হলেও উর্ধ্বতন বনকর্মকর্তাদের অনিহার কারণে উক্ত প্রস্তাবটি ফাইল বন্দি হয়ে রয়েছে। যার ফলে জাতীয় উদ্যান প্রকল্প উন্নয়নের কাজ ব্যাহত হচ্ছে। ইনানী বনরক্ষা সহায়ক কমিটির সহ-সভাপতি অধ্যাপক হুমায়ুন কবির চৌধুরী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, তারা শুধু সভা সেমিনারের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। অথচ কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না।
ইনানী বন রক্ষা কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী জানান, সমন্বয়হীনতার কারণে প্রস্তাবিত জাতীয় উদ্যান প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ ধীর গতিতে চললেও অদূর ভবিষ্যতে উক্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের মতো ঝুঁকি থেকে দেশকে বাঁচাতে হলে এবং পর্যটন শিল্পকে আরো প্রসারিত করতে হলে উক্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের কোন বিকল্প নেই। ইনানী রেঞ্জ কর্মকর্তা বনভূমি দখল ও বনসম্পদ লুটপাটের কথা স্বীকার করে বলেন, যাদেরকে বনরক্ষার দায়িত্ব দিয়ে আর্থিক ভাবে সহায়তা প্রদান করা হয়েছে তারাই প্রস্তাবিত জাতীয় উদ্যানের ক্ষয়ক্ষতি করে যাচ্ছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT